• বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
  • ||

লাইফ সাপোর্ট থেকে বেরিয়ে চিরবিদায় নিয়েই নিলেন

প্রকাশ:  ৩০ মার্চ ২০২০, ১০:৩৭ | আপডেট : ৩০ মার্চ ২০২০, ১০:৫১
মিলি সুলতানা

লাইফ সাপোর্ট থেকে বেরিয়ে এসে শেষমেশ যশোরের ছেলে মির্জা হুদা সোহাগ (৪৪) চিরবিদায় নিয়েই নিলেন। আমাদের মনে একটুখানি আশার সঞ্চার করে এভাবে চলে গেলেন? এমন মর্মান্তিক প্রস্থান মেনে নেয়া এত সহজ নাকি? আজ সন্ধ্যা ছ'টায় এলমহার্স্ট হসপিটালে মৃত্যুদূত আটকে দিলো তার শ্বাসপ্রশ্বাস। গতকাল শনিবার রাত আড়াইটায় ফোনে মির্জা হুদার শারীরিক অবস্থা নিয়ে কথা হয়েছিলো ইলেকশন বোর্ডের মেম্বার এবং "সাফেস্ট" অর্গানাইজেশনের ফাউন্ডার মাজেদা আপার সাথে। আপা বেশ আশাবাদী ছিলেন মির্জা হুদা সম্পর্কে। বার-বার আলহামদুলিল্লাহ উচ্চারণ করছিলেন--"মিলি তুই দেখিস মির্জা ইনশাআল্লাহ ব্যাক করবে।" আরও কত আশাব্যঞ্জক মন্তব্য আপার। বললেন তার ভেন্টিলেটর খুলে নেয়া হয়েছে। তাকে নরমাল বেডে রাখা হয়েছে।

সাধারণত পেশেন্টের হেলথ কন্ডিশন রিস্ক জোন (লাইফ সাপোর্ট) থেকে ইম্প্রুভমেন্ট হলে তাকে নরমাল বেডে নেয়া হয়। হুদা ভাইয়ের অবস্থার উন্নতি শুনে মনে মনে আল্লাহকে শুকরিয়া জানালাম। শুনেছিলাম উনার স্ত্রী সামান্য অসুস্থ। তবে সেটা কোভিড -১৯ কিনা জানি না। দুটো ছোট বাচ্চা তাদের। এমন অবস্থায় হাসব্যান্ডের করোনা পজিটিভ এবং লাইফ সাপোর্টে যাওয়া মহিলার জন্য খুবই ট্রমাটিক।

মির্জা হুদার স্ত্রী, দুটো ফুলের মত বাচ্চার কি হবে? জীবন কাহিনীটা অসম্পূর্ণই রয়ে গেলো। পরপারে তিনি শান্তিতে থাকুন।

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)


পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএম

মিলি সুলতানা,করোনাভাইরাস
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close