Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬
  • ||

বিশ্বকাপ ফাইনালের সেই গোল নিয়ে বিতর্ক!

প্রকাশ:  ১৭ জুলাই ২০১৮, ০২:৫৩
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক
প্রিন্ট icon

রাশিয়া বিশ্বকাপে ক্রোয়েশিয়াকে ৪-২ গোলে হারিয়ে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়েছে ফ্রান্স। লুজনিকি স্টেডিয়ামে এমবাপেদের এই জয়কে সমর্থন জানিয়েছে ফুটবলবিশ্ব। তবে ম্যাচের প্রথম গোলটিকে নিয়েই বিতর্কও তৈরি হয়েছে।

প্রথমার্ধের ১৮ মিনিটে মান্দজুকিচের আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে যায় ফ্রান্স। এই গোলটি রেফারি নেস্তর পিতানার ভুল সিদ্ধান্তের ফলে হয়েছে বলে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছেন অনেক ফুটবল তারকারা।

রবিবার ম্যাচের শুরু থেকে বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে ছিল ক্রোয়েশিয়া। ১৮ মিনিটে ম্যাচের গতি পাল্টে যায়। ডান দিকে আগাতে গিয়ে ডি বক্সের একটু বাইরে পড়ে যান গ্রিজমান। তখন ফ্রি কিকের বাঁশি বাজান পিতানা। গ্রিজমানের ফ্রি কিক থেকে উড়ে আসা বল আটকাতে গিয়ে নিজেদের জালে জড়িয়ে দেন ক্রোয়েশিয়ার ফুটবলার মানজুকিচ। ১-০ এগিয়ে যায় ফ্রান্স। মান্দজুকিচের ওই আত্মঘাতী গোল শেষ পর্যন্ত ফরাসিদের ম্যাচ জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়।

গোলটি নিয়ে একাধিক বিতর্ক তৈরি হয়েছে। টিভি ক্যামেরাতে ধরা পড়েছে গ্রিজমান নিজে পড়েছেন। তাকে ফাউল করা হয়নি। যেহেতু এটি পেনাল্টির সিদ্ধান্ত নয় কিংবা লাল কার্ডেরও প্রয়োজন হয়নি তাই ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির সাহায্য নেননি রেফারি।

এই সিদ্ধান্ত নিয়ে ক্ষুব্ধ স্পেনের গোলরক্ষক ক্যাসিয়াস টুইটারে লেখেন, সত্যি বলছি, ভিএআর কী জন্য রয়েছে বুঝতে পারছি না। রেফারি গ্রিজমানের পড়ে যাওয়াতে ফাউলের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, ওটা কোনোভাবেই ফাউল ছিল না। ওই ফ্রি কিকটাই ফ্রান্সকে এগিয়ে দেয়। কিন্তু তারপরও কিছু করা হল না।

যদিও ম্যাচে ফ্রান্সের আরো একটি গোলের পিছনে রেফারির অবদান রয়েছে বলে মনে করছে ফুটবলমহলের একাংশ। ৩৮ মিনিটে পেরিসিচের যে হ্যান্ড বল থেকে পেনাল্টি আদায় করে নেয় ফরাসিরা এবং স্পট কিক থেকে গোল করেন গ্রিজমান, তা পেনাল্টির যোগ্য ছিল না বলেই মত বিশেষজ্ঞদের।

apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত