• বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
  • ||

আন্দোলন বেগবান করতে বিএনপির দুই মাসব্যাপী কর্মসূচি

প্রকাশ:  ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪:৩৫
নিজস্ব প্রতিবেদক

গত জুলাই থেকে রাজপথে সক্রিয়তা বাড়ানোর পর পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে দলটির সহযোগী সংগঠনের চার জনের প্রাণহানির মধ্যে কর্মসূচি আরও বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি।

আন্দোলন বেগবান করতে এবার দুই মাসব্যাপী কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে।

সম্পর্কিত খবর

    বুধবার গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন। তিনি জানান, দুই দিন আগে তাদের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম স্থায়ী কমিটির ভার্চুয়াল সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

    নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের দাবিতে ফিরে যাওয়া বিএনপি জুলাইয়ের শেষ সপ্তাহ থেকে নানা কর্মসূচি দিয়ে রাজপথে সক্রিয় হতে শুরু করে। এর মধ্যে আগস্টের শেষ দিকে ঘোষণা করা হয় টানা ১০ দিনের কর্মসূচি।

    বিএনপি রাজপথে সক্রিয় হয়ে উঠার পর ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের হামলার অভিযোগ উঠে। একের পর এক সংঘর্ষ হতে থাকে পুলিশের সঙ্গেও।

    পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জুলাইয়ের শেষে ভোলায় দুই জন আর ১ সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জে একজনের প্রাণহানির পর প্রায় প্রতিদিনই কোথাও না কোথাও বিএনপি বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছে। সম্প্রতি মুন্সিগঞ্জে একটি বিক্ষোভে ব্যাপক সংঘর্ষের পর সেখানেও পুলিশ গুলি চালালে গুরুতর আহত হয়ে পরে হাসপাতালে মারা যান এক জন, যেটি বিএনপিতে আরও বিক্ষুব্ধ করে তুলেছে। তারা একজনের প্রাণহানির দাবি করছে যশোরেও।

    মির্জা ফখরুল বলেন, ‘নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যদির মূল্য বৃদ্ধি, চলমান আন্দোলনে ভোলায় নুরে আলম ও আব্দুর রহিম, নারায়ণগঞ্জে শাওন প্রধান, মুন্সিগঞ্জে শহিদুল ইসলাম শাওন ও যশোরে আব্দুল আলিম মোট ৫ জন হত্যার প্রতিবাদে, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে আগামী ৮ অক্টোবর ২০২২ থেকে সারা দেশে বিভাগীয় গণ-সমাবেশ অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।’

    তিনি জানান, আগামী ৮ অক্টোবর চট্টগ্রামে, ১৫ অক্টোবর ময়মনসিংহে, ২২ অক্টোবর খুলনায়, ২৯ অক্টোবর রংপুরে, ৫ নভেম্বর ২০২২ বরিশালে, ১২ নভেম্বর ফরিদপুরে, ১৯ নভেম্বর সিলেটে, ২৬ নভেম্বর কুমিল্লায়, ৩ ডিসেম্বর রাজশাহীতে এবং ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় এই বিক্ষোভ হবে।

    গত ১ সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষের সময় গোয়েন্দা বাহিনীর উপপরিদর্শক মাহফুজুর রহমান কনক অন্য পুলিশ সদস্যের রাইফেল তুলে নিয়ে গুলি করেন। ছবি: নিউজবাংলা

    বিএনপির আন্দোলনে প্রাণ হারানো পাঁচ জনের এর প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আগামী ৬ অক্টোবর দেশের সকল মহানগর পর্যায়ে এবং ১০ তারিখে সকল জেলা পর্যায়ে শোক মিছিল করার সিদ্ধান্তও জানান তিনি।

    বিএনপির সাম্প্রতিক সমাবেশগুলোতে জনসম্পৃক্ততা বেড়েছে বলেও দাবি করেন বিএনপি মহাসচিব। বলেন, ‘জনগণের মধ্যে দাবি উঠেছে, এই সরকারের পতন হওয়া উচিত।…সরকারের পদত্যাগের আগেই নিরপেক্ষ সরকার গঠন করতে হবে।’

    ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদল নেতাকর্মীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলার নিন্দা জানিয়ে বিএনপি হামলাকারীদের বহিষ্কার ও নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের অপসারণও দাবি করেন ফখরুল।

    মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
    • সর্বশেষ
    • সর্বাধিক পঠিত
    close