• মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৬ আশ্বিন ১৪২৮
  • ||

শীর্ষ নেতাদের মতামত নিলো বিএনপি

প্রকাশ:  ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:৫০
নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তরণে দলের করণীয় সম্পর্কে সিনিয়র নেতাদের মতামত নিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দলের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্যদের সঙ্গে বৈঠকের পর বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘আজকের সভায় দেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও দলের সাংগঠনিক অবস্থা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এর বেশি কিছু এখন বলার নেই। বুধ ও বৃহস্পতিবার বৈঠকের পর তিন দিনের বৈঠক নিয়ে বিস্তারিত জানানো হবে গণমাধ্যমকে।’

দ্বাদশ নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজনৈতিক কর্মকৌশল ঠিক করার লক্ষ্যে মতামত জানতে বিকেল সাড়ে ৩টায় গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপদেষ্টাদের রুদ্ধদ্বার বৈঠক শুরু হয়। শেষ হয় রাত সাড়ে ৮টায়। টানা ৫ ঘণ্টার এই বৈঠকে দলের ভাইস চেয়ারম্যান ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য মিলে উপস্থিত ছিলেন ৬২ জন।

দলের ভাইস চেয়ারম্যান শাহজাহান ওমর, হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, আলতাফ হোসেন চৌধুরী, মাহমুদুল হাসান, মীর নাসির উদ্দিন, বরকত উল্লাহ বুলু, আবদুল আউয়াল মিন্টু, শামসুজ্জামান দুদু, জয়নাল আবেদীন, নিতাই রায় চৌধুরী ও শওকত মাহমুদসহ ২৮ জন বক্তব্য দেন।

বৈঠকে উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মনিরুল হক চৌধুরী, মশিউর রহমান, আমান উল্লাহ আমান, মিজানুর রহমান মিনু, হাবিবুর রহমান হাবিব, লুতফর রহমান খান আজাদ, আবদুস সালাম, আবুল খায়ের ভুঁইয়া, ফজলুর রহমান, শাহজাহান মিয়া, সুকোমল বড়ুয়া, খন্দকার মুক্তাদির আহমেদ, এসএম ফজলুল হক, আবদুল হাই, ভিপি জয়নাল আবেদীন, গোলাম আকবর খন্দকার, অধ্যাপক শাহেদা রফিক, আফরোজা খানম রীতা, তাহসিনা রুশদীর লুনা, ফরহাদ হালিম ডোনার, অধ্যাপক তাজমেরী এস ইসলাম, আবদুল লতিফ খান, আবদুল কাইয়ুম, ইসমাইল জবিল্লাহ, এরামুজ্জামান, তৈমুর আলম খন্দকার, মইনুল ইসলাম শান্ত, মাহবুবুর রহমান, গাজী মাজহারুল আনোয়ার, হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু, শাহজাদা মিয়া, আবদুল হাই শিকদার, এনামুল হক চৌধুরী, সৈয়দ মেহেদি আহমেদ রুমি, আতাউর রহমান ঢালী, বোরহান উদ্দিন, সৈয়দ শামসুল আলম, অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম, অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস, নজমূল হক নান্নু প্রমূখ।

দলীয় সূত্রমতে, বৈঠকে অংশ নেওয়া অধিকাংশ নেতা বর্তমান সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন না করার পক্ষে এবং নিরপেক্ষ ব্যক্তি নিয়ে নির্বাচনকালীন সরকার গঠন ও নিরপেক্ষ ব্যক্তিদের সমন্বয়ে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনের পক্ষে মত দেন। পাশাপাশি দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আন্দোলন জোরদার করার পক্ষে তাদের মতামত জানান।

তারেক রহমানের সভাপতিত্বে বৈঠকে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া বিএনপির কেন্দ্রীয় দপ্তরের সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, তাইফুল ইসলাম টিপু, মনির হোসেন, বেলাল আহমেদ, চেয়ারপারসনের কার্যালয়ের এ বি এম আবদুস সাত্তার ও রিয়াজ উদ্দিন নসু সভায় উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ৫৯২ জন। এর মধ্যে স্থায়ী কমিটিতে ১৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান ৩৫ জন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদে রয়েছেন ৮২ জন। এক জন সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব, সাত জন যুগ্ম মহাসচিব, ১০ জন সাংগঠনিক সম্পাদকসহ বিভিন্ন সম্পাদকীয় পদে আছেন ১৬১ জন। এর মধ্যে স্থায়ী কমিটি, ভাইস চেয়ারম্যান ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পদধারী ১০ জন মারা গেছেন।

সবশেষ ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার চার দিন আগে ৩ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর লা মেরিডিয়ান হোটেলে বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্যদের বৈঠক হয়। এরপর দলের ভাইস চেয়ারম্যান ও সাংগঠনিক সম্পাদকদের সঙ্গে তারেক রহমান বিভিন্ন সময় পৃথকভাবে বৈঠক করেছেন। তবে এবারের মতো এমন ধারাবাহিকভাবে নির্বাহী কমিটির নেতাদের নিয়ে কোনো সভা করেননি তিনি।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

বিএনপি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close