• বুধবার, ১২ মে ২০২১, ২৯ বৈশাখ ১৪২৮
  • ||

মামুনুলের মাদ্রাসা থেকে গ্রেপ্তার হেফাজত নেতা রিমান্ডে

প্রকাশ:  ১৩ এপ্রিল ২০২১, ২৩:১০
নিজস্ব প্রতিবেদক

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-অর্থ সম্পাদক ও ঢাকা মহানগর কমিটির সহসভাপতি মুফতি ইলিয়াস হামিদীকে জিজ্ঞাসাবাদে সাত দিনের হেফাজত পেয়েছে কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার ঢাকার কেরানীগঞ্জের মডেল থানার একটি সন্ত্রাস বিরোধী আইনের মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আবেদন করলে ঢাকার মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক রাজীব হাসান তার রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ সাত দিনের রিমান্ড চেয়েছিল বলে জানিয়েছেন আদালত পরিদর্শক মেজবাহ উদ্দিন। তিনি বলেন, হেফাজত নেতার পক্ষে রিমান্ড বাতিল চেয়ে আবেদন করা হলে শুনানি শেষে তা নাকচ করেন বিচারক।

নাশকতার পরিকল্পনা, ধর্মীয় উগ্রবাদিতা ছড়ানো, ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচার চালানোর অভিযোগে সোমবার রাতে কেরাণীগঞ্জের ঘাটারচর এলাকায় হেফাজত নেতা মামুনুল হক পরিচালিত ‘তারবিয়াতুল উম্মাহ মাদ্রসা’ থেকে ইলিয়াস হামিদীকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। এ ঘটনায় র‌্যাব- ২ ওয়ারেন্ট অফিসার জামাল উদ্দিন বাদি হয়ে মুফতি ইলিয়াসসহ মোট ৯ জনের বিরুদ্ধে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় মামলা করেছেন।

মামলার বরাত দিয়ে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কাজী রমজানুল হক বলেন, হেফাজত নেতা মামুনুল হক পরিচালিত ‘তারবিয়াতুল উম্মাহ মাদ্রসা’য় কয়েকজন বসে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে এমন খবর পেয়ে র‌্যাবের একটি দল সেখানে অভিযান চালায়। অভিযানের খবর পেয়ে অন্যরা পালিয়ে গেলেও মুফতি ইলিয়াস হামিদীকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়। তার সাথে পলাতক ৮ জন ছাড়াও জামাত শিবিরসহ সমমনা বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের অনেকে উপস্থি ছিল বলে গ্রেপ্তারের পর মুফতি ইলিয়াস জানায়।

বাকিরা হলেন- শরীফ হোসাইন (৩৫), জাকির হোসেন (২৯), শফিকুল ইসলাম (২৮), ইউসুফ (৫২), ফজলুর রহমান (৪০), হেলেন (৫২), মামুন (৪০) ও ইউনুস (৫৫)।

ঢাকা, ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ দেশের বিভিন্নস্থানে যে নাশকতা করা হয়েছ তার প্রত্যেকটিতে তিনি মদদ দিয়েছেন বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।

ঢাকাসহ দেশের বিভিন্নস্থানে একযোগে তাদের আরো নাশকতার পরিকল্পনা ছিল বলে গ্রেপ্তারের পর মুফতি ইলিয়াস র‌্যাবকে জানিয়েছে।

পুলিশ কর্মকর্তা কাজী রমজানুল হক বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে র‌্যাব তাদের কাছে হস্তান্তর করার পর তারা দশ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠায়। মুফতি ইলিয়াসসহ মোট ৯ জনের বিরুদ্ধে ২০০৯ সালের সন্ত্রাসবিরোধী আইনের (সংশোধন -২০১৩) ১০/১১/১২ ১৩ ধারায় মামলা হয়েছে। পলাতক ৮ জনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

হেফাজতে ইসলাম
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close