• শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭
  • ||

‘ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠায় আরেকটি গণঅভ্যূত্থান রচনা করতে হবে’

প্রকাশ:  ২৪ জানুয়ারি ২০২১, ২০:৩৪
নিজস্ব প্রতিবেদক
ছাত্র অধিকার পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মো. রাশেদ খাঁন

দেশে সামাজিক নিরাপত্তা, মানবাধিকার ও ভোটাধিকার নেই মন্তব্য করে ছাত্র অধিকার পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মো. রাশেদ খাঁন বলেছেন, দেশের মানুষের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হলে দেশের তরুণ সমাজকে ৬৯ এর মত আরেকটি গণঅভ্যুত্থান রচনা করতে হবে।

রোববার (২৪ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘৬৯ এর গণঅভ্যুত্থানের ৫২ বছর’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

গণঅভ্যুত্থানের প্রেক্ষাপট তুলে ধরে রাশেদ খাঁন বলেন, সেসময় প্রত্যেকটি আন্দোলনে ছাত্রদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল।তাদের আন্দোল সংগ্রাম আর রক্তের বিনিময়ে গণঅভ্যুত্থান রচিত হয়। কিন্তু আজ বড় কষ্ট হয়।মহান মুক্তিযোদ্ধারা আমাদের একটি স্বাধীন রাষ্ট্র দিয়ে গেছেন কিন্তু এখনো আমরা পরিপূর্ণ স্বাধীন হতে পারিনি। দেশে সামাজিক নিরাপত্তা নেই, মানবাধিকার নেই, ভোটাধিকার নেই। এই অধিকার আদায়ে, মানুষের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হলে দেশের তরুণ সমাজকে ৬৯ এর মত আরেকটি গণঅভ্যুত্থান রচনা করতে হবে।

তিনি বলেন, সে সময় পূর্ব পাকিস্তান পশ্চিম পাকিস্তানকে একটি ওপৌনিবেশ বানিয়ে রেখেছিল।ঠিক একইভাবে এই বাংলাদেশকে ভারতের ওপৌনিবেশ বানানোর পায়তারা করা হচ্ছে।এবং সেটা করছে আওয়ামী লীগ সরকার।আমরা দেখছি তারা অবৈধভাবে তিন মেয়াদে ভারতের পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতা দখল করে আছে।ভারত যা বলছে তারা তাই করছে।তাহলে আপনারা কি বলবেন? তারা কি বাংলাদেশকে ভারতের কাছে বিক্রি দিচ্ছে না? তিনি আরো বলেন, আজ রাজনৈতিক দলগুলোকে রাজপথে দেখা যায় না।আজ সেই মাওলানা ভাসানীর মত নেতৃত্ব নেই বলে আওয়ামী লীগ সরকার জবর দখল করে ক্ষমতায় বসে আছে।আমরা যদি দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বের কথা চিন্তা করে আমাদেরকে রাজপথে নেমে আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তোলার মাধ্যমে এই সরকারের পরিবর্তন করতে হবে।

তরুণ এই ছাত্রনেতা বলেন, আজ গণঅভ্যুত্থানের ৫২ বছর। এই দিনটি না আসলে আমরা মহান মুক্তিমুক্তযুদ্ধ পেতাম না।আর মুক্তিযুদ্ধ না হলে বাংলাদেশকে পেতাম না।আজ দেখুন, যারা দেশের বড় বড় রাজনৈতিক দল তারা এই দিবসকে ভুলে যাচ্ছে।যে গণঅভ্যুত্থানের মাধ্যমে আওয়ামী লীগের মহান নেতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তানের কারাগার থেকে মুক্তি পায়, সেই গণঅভ্যুত্থানকে তারা ভুলে গেছে। তারা ভুলে গেছে মজলুম জননেতা মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীকে।যে ভসানীর জন্ম না হলে, তিনি আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে না তুললে বঙ্গবন্ধুর জন্ম হত না, তিনি কারাগার থেকে মুক্তি পেতেন না।আর তিনি কারাগার থেকে মুক্তি না পেলে বাংলাদেশের জন্ম হত না। অথচ আজকে তারা ইতিহাস ভুলে গিয়েছে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

ছাত্র অধিকার পরিষদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
cdbl
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close