• রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ৩ মাঘ ১৪২৭
  • ||

‘২৫৩ পরিবারের পরিচয় পোস্টারিং করা হবে, যাতে জনগণ থু থু ফেলতে পারে’

প্রকাশ:  ১৪ জানুয়ারি ২০২১, ২১:৩৩
ঢাবি প্রতিনিধি

বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতা ও ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নূর বলেছেন, বাংলাদেশের সম্পদ লুটপাট, বিদেশে অর্থপাচার ও কালো-বাজারির মাধ্যমে ২৫৩টি পরিবার সারা দেশের জনগণের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে। তাদের পরিচয় পোস্টারিং করে সারা দেশে ছড়িয়ে দেয়া হবে। যাতে জনগণ তাদের গায়ে থু থু ফেলতে পারে।

বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে শাহবাগের জাতীয় জাদুঘরের সামনে বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদ আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু পাকিস্তান আমলে বলেছিলেন, ২২টি পরিবার জনগণের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে, দেশের সম্পদ লুটপাট করছে। স্বাধীন দেশে আজকে আমাদের কাছে তথ্য আছে, ২৫৩টি পরিবার দেশের জনগণের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে, দেশের সম্পদ লুটপাট করে বিদেশে পাচার করছে। কালো-বাজারি ও সিন্ডিকেটের মাধ্যমে দ্রব্যের দাম বাড়িয়ে মানুষের জীবনকে দুর্বিষহ করে তুলেছে।

নূর বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তার কাছে সকল ডকুমেন্ট আছে, কারা বেগমপাড়ায় বাড়ি-গাড়ি করছে, টাকা-পয়সা কে কোথায় পাচার করছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আপনি তো জনগণের প্রতিনিধি। আপনাকে বলব, দয়া করে সেই তালিকা জনসম্মুখে প্রকাশ করুন। আপনার আইন শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী যদি ব্যবস্থা নিতে না পারে, আমরা জনগণকে সাথে নিয়ে তাদের প্রতিহত করব। অন্যায় যখন নিয়ম হয়ে দাঁড়ায়, প্রতিবাদ তখন কর্তব্য হয়ে যায়।

সরকার দুর্নীতির জন্য দুয়েকটা ‘চুনোপুঁটি’ ধরেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, মিডিয়ায় সেগুলো চাউর হয়েছে, কিন্তু বড় বড় পাচারকারীরা ধরাছোঁয়ার বাইরে। তাদের বিরুদ্ধে সরকার কেন ব্যবস্থা নিতে পারছে না? কারণ থু থু উপরের দিকে ফেললে তা বুকে এসে পড়বে। আমরা তথ্য সংগ্রহ করেছি, ২৫৩টি পরিবার যারা দেশের মানুষের সাথে ছিনিমিনি খেলছে, তাদের পরিচয় পোস্টারিং করে সারা দেশে ছড়িয়ে দেওয়া হবে। যাতে জনগণ তাদের গায়ে থু থু ফেলতে পারে।

বাজারে নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধিতে ক্ষোভ প্রকাশ করে নুরুল হক নূর বলেন, বর্তমান সরকার ভাঁওতাবাজির ইশতেহার দিয়েছে। ১০ টাকার চালের দাম আজকে ৭০ টাকা। পেঁয়াজের ভরা মৌসুমে যখন দেশের কৃষকদের কাছেই পেঁয়াজ আছে, তখন কেন ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি? দেশের পাটকল, চিনিকলগুলো কেন বন্ধ রাখা হয়েছে, যেখানে আমাদের নিজ দেশের ছেলেদের কর্মসংস্থান হয়? সরকার এসব প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে দেশকে একটি নির্ভরশীল রাষ্ট্রে পরিণত করছে।

তিনি বলেন, আজকে দেশের মানুষ জীবনমরণ সংকটে আছে। এই করোনার মধ্যে বিভিন্ন দেশের মানুষ ভ্যাকসিন পাচ্ছে। সেখানে আমরা ভারত থেকে ৪৭ শতাংশ বেশি দামে ভ্যাকসিন কিনছি। ... আজকে যারা লুটপাট করছে, সরকার তাদের সুযোগ করে দিচ্ছে।

মানববন্ধনে ছাত্র অধিকার পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খাঁন বলেন, দেশে চাকরিজীবীদের কথা বিবেচনা করা হয়, কিন্তু কৃষক-শ্রমিকদের কথা বিবেচনা করা হয় না। আজকে বাজার নিয়ন্ত্রণ করে সিন্ডিকেট। সরকার বাজার সিন্ডিকেটমুক্ত করতে ব্যর্থ হয়েছে। ফলে দ্রব্যমূল্য মানুষের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে।

শ্রমিক অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক আব্দুর রহমান বলেন, প্রতিটি পণ্য পল্লী অঞ্চলগুলো থেকে শহরে আসতে প্রত্যেক স্থানে চাঁদাবাজি হয়, তাই দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পাচ্ছে। সরকার এসব চাঁদাবাজি নির্মূল করতে পারছে না।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

নুরুল হক নূর,বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
cdbl
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close