• বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
  • ||

জাসদ হার না মানা কর্মীর দল: ইনু

প্রকাশ:  ৩১ অক্টোবর ২০২০, ১৯:৩৪
নিজস্ব প্রতিবেদক

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) হার না মানা কর্মীর দল বলে মন্তব্য করে দলটির সভাপতি ও সংসদ সদস্য (এমপি) হাসানুল হক ইনু বলেছেন, তিনি কর্মীদের নিযুক্ত জাসদের একজন পাহারাদার মাত্র।

শনিবার (৩১ অক্টোবর) বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে দলের ৪৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

হাসানুল হক ইনু বলেন, রাজনীতির এ পর্বে সংঘবদ্ধ অপরাধী-দুর্নীতিবাজ চক্রকে ধ্বংস করতে সুশাসনের সংগ্রামই জাতীয় কর্তব্য। সংঘবদ্ধ অপরাধী ও দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর হাতে থাকা শাসনদণ্ডের কঠোর ব্যবহার চাই। সমাজে সব ধরনের বৈষম্যের অবসানে অর্থনীতিকে সংবিধান নির্দেশিত সমাজতন্ত্রের লক্ষে ঢেলে সাজাতে হবে।

তিনি বলেন, সর্বজনীন সামাজিক নিরাপত্তা, জনস্বাস্থ্যসেবা, খাদ্য নিরাপত্তা, শিক্ষা ও ইন্টারনেট ব্যবহারের সুযোগকে মৌলিক অধিকার হিসেবে বাস্তবায়ন করতে হবে। ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা-ধর্মীয় উগ্রবাদ-ধর্মীয় জঙ্গিবাদ-সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক শক্তিকে ঐক্যবদ্ধভাবে মাঠে সোচ্চার থাকতে হবে।

জাসদ সভাপতি প্রতিষ্ঠাতা এবং জাসদের শহীদ ও প্রয়াত নেতাকর্মীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, জাসদ হচ্ছে ‘হার না মানা কর্মীর দল’। জাসদ সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক কর্মীদের দ্বারা নিযুক্ত জাসদের পাহারাদার মাত্র। জাসদ প্রতিষ্ঠাকালীন ‘সমাজতন্ত্রের লক্ষে সমাজ বদল ও মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার’ অঙ্গীকার ধারণ করেই রাজপথ-সংসদ-সরকার এবং ঐক্যের ভেতরে সোচ্চার ভূমিকায় অবিচল আছে।

সভায় আরো বক্তব্য রাখেন জাসদের সাধারণ সম্পাদক এবং এমপি শিরীন আখতার, স্থায়ী কমিটির সদস্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন, নুরুল আখতার, মোখলেছুর রহমান মুক্তাদির, শওকত রায়হান, নইমুল আহসান জুয়েল, মো. মোহসীন, ওবায়দুর রহমান চুন্নু, সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সফি উদ্দিন মোল্লা, জাসদের সহ-সভাপতি উম্মে হাসান ঝলমল, জাতীয় শ্রমিক জোট সভাপতি সাইফুজ্জামান বাদশা, ঢাকা মহানগর পশ্চিম জাসদের সভাপতি মাইনুর রহমান, জাতীয় কৃষক জোটের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আমিন কাওছার, জাতীয় যুব জোটের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল কবির স্বপন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক রাশিদুল হক ননী প্রমুখ।

সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপি বলেন, করোনা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে পুঁজিবাদ তথা মুক্ত বাজার অর্থনীতি মানুষের খাদ্য, চিকিৎসাসহ কোন অধিকারই দিতে পারেনা। তিনি জনগণের প্রতি রাষ্ট্রের দায়িত্ব ও কর্তব্য সুনির্দিষ্টভাবে নির্ধারণ করার দাবিতে শ্রমিক-কৃষক-নারী-ছাত্র-যুবকদের সংগ্রাম পুনর্গঠন ও এগিয়ে নিতে জাসদের নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান।

স্থায়ী কমিটির সদস্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন বলেন, জাসদের সংগ্রামের গৌরবজ্জ্বল ইতিহাস নতুন প্রজন্মের সামনে তুলে ধরে নতুন প্রজন্মের আশা-আকাংখাকে ধারন করে নতুন প্রজন্মের সাথে সংযোগ গড়ে তোলাই জাসদের নেতা-কর্মীদের বর্তমান চ্যালেঞ্জ।

আলোচনা সভার শুরুর পূর্বে শহীদ কর্নেল আবু তাহের বীর উত্তম, জাতীয় বীর কাজী আরেফ আহমেদ, শহীদ এড. মোশাররফ হোসেন, শহীদ স্বপন চৌধুরী, শহীদ সিদ্দিক মাষ্টার, শহীদ ডা. শামসুল আলম খান মিলন, শহীদ শাজাহান সিরাজ, প্রয়াত নেতা ড. আখলাকুর রহমান, নিখিল চন্দ্র সাহা, আখতার আহমেদ, সৈয়দ জাফর সাজ্জাদ খিচ্চু, এড. হাবিবুর রহমান শওকত, ইকবাল হোসেন খানসহ দলের শহীদ ও প্রয়াত নেতাদের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান এবং তাদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করেন জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটি, জাসদ ঢাকা মহানগর সমন্বয় কমিটি, জাতীয় নারী জোট, জাতীয় শ্রমিক জোট-বাংলাদেশ, জাতীয় যুব জোট, জাতীয় কৃষক জোট, জাতীয় আইনজীবী পরিষদ, বাংলাদেশ ছাত্রলীগসহ জাসদের সহযোগী সংগঠনসমূহ।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

জাসদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
cdbl
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close