• বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই ২০২০, ২৫ আষাঢ় ১৪২৭
  • ||

বিএনপি নেতারা কে কোথায় ঈদ করছেন

প্রকাশ:  ২৪ মে ২০২০, ২২:১৭
নিজস্ব প্রতিবেদক

এ বছর করোনাভাইরাসের কারণে দেশবাসীর মধ্যে ঈদের আনন্দ অনেকটাই ফিকে হয়ে গেছে। রাজনৈতিক পাড়ায়ও উদ্দীপনা দেখা যাচ্ছে না খুব একটা। তবে বিএনপির জন্য এবারের ঈদের বাড়তি একটা তাৎপর্য অবশ্যই আছে। আর সেটা হচ্ছে দুই বছর পর কারাগারের বাইরে ঈদ করবেন দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। তবে করোনা সংক্রমণের কালে ঈদের দিন দলের শীর্ষ নেতারা প্রিয় নেত্রীর সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করতে যাবেন কিনা- তা এখনও নিশ্চিত নয়।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় গত ২৫ মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতাল থেকে মুক্তি পান বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। ওই দিনই বিএসএমএমইউ থেকে গুলশানের বাসা ‘ফিরোজা’য় ওঠেন অসুস্থ বেগম জিয়া।

বাসায় ফিরেই করোনা ভাইরাসের কারণে ফিরোজার দোতলায় চিকিৎসকদের পরামর্শক্রমে তিনি ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন। ওই ১৪ দিন শেষ হওয়ার পর এখনও তিনি কোয়ারেন্টানেই আছেন। এর মধ্যেই সোমবার মুসলিম জাহানের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন হবে। তাই প্রতিবারের ন্যায় এবার বাংলাদেশে অবস্থানরত বিভিন্ন দেশের কূটনীতিক, বিশিষ্ট নাগরিক ও সর্বস্তরের মানুষের সঙ্গে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন না তিনি। তবে দুই বছর সাজা ভোগের পর এবার ‘ফিরোজা’য় ঈদ উদযাপন করবেন খালেদা জিয়া। বিএনপির একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

কারাবন্দি অবস্থায় কারাগারে গত ৪টি ঈদ উদযাপন করতে হয়েছে বিএনপির চেয়ারপারসনকে। ২০১৮ সালে ৮ ফেব্রুয়ারি গ্রেফতার হয়ে নাজিম উদ্দিন রোড়ের পরিত্যক্ত পুরানো কেন্দ্রীয় কারাগারে দুটি ঈদ এবং হাসপাতালে দুটি ঈদ পার করেন বেগম জিয়া। এরআগে ১/১১ সরকারের সময় সংসদ ভবন এলাকায় সাব জেলে বন্দি থাকাকালে খালেদা জিয়া ২টি ঈদ কাটিয়েছেন।

তবে ঈদের দিন ‘ফিরোজা’য় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যরা বেগম জিয়াকে ঈদ শুভেচ্ছা জানাতে যাবেন কি না- তা এখনও জানা যায়নি। কিন্তু ঈদের দিন খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্যরা তাঁর জন্য রান্না করা খাবার নিয়ে যাবেন বলে জানা গেছে।

এদিকে ঈদকে সামনে রেখে বিএনপি যেমন নিজেদের সব কর্মসূচিই করোনা ভাইরাস কেন্দ্রিক করেছে তেমনি দলটির নেতারাও এবার ঈদ উদযাপনের কোনও প্রস্তুতি নেননি। আর বিএনপি নেতারা প্রতিবারের ন্যায় এবারও যেমন ঢাকায় ঈদ করছেন তেমনি ঢাকার বাইরে তৃণমূল নেতাকর্মীদের নিয়ে নিজ গ্রামেও ঈদ উদযাপনের কথা ভাবছেন।

জানা গেছে, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম ইসলাম আলমগীরসহ দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্যরা এবার ঈদ উদযাপন ঢাকাতেই করবেন। এরমধ্যে শুধু বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী চট্টগ্রামে ঈদ উদযাপন করবেন। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ঈদে ঢাকাতেই থাকবেন বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান বলেন, ‘বিএনপি মহাসচিবসহ দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যরা এবার ঢাকাতেই ঈদ উদযাপন করবেন। তবে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী চট্টগ্রামে ঈদ উদযাপন করবেন।’

ঈদের দিন সকালে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সমাধিতে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যদের নিয়ে শ্রদ্ধা জানাবেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শায়রুল কবির খান জানিয়েছেন, ঈদের দিন বেলা ১১টায় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যদেরকে নিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাবেন বিএনপি মহাসচিব।

ভাইস চেয়ারম্যানদের মধ্যে আব্দুল্লাহ্-আল-নোমান ঢাকায়, বরকত উল্লাহ বুলু নির্বাচনী এলাকা নোয়াখালী, শামসুজ্জামান দুদু, ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর বীর উত্তম ঢাকায় ঈদ করবেন বলে জানা গেছে। দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভীও ঢাকায় ঈদ করবেন।

এছাড়া চেয়ারপারসনের উপদেষ্টাদের মধ্যে আমান উল্লাহ আমান, জয়নুল আবদীন ফারুক ঢাকায় ঈদ করবেন। হাবিবুর রহমান হাবিব নির্বাচনী এলাকা পাবনায় ঈদ করবেন। যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, হাবিব-উন-নবী খান সোহেলও ঢাকায় ঈদ করবেন।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

বিএনপি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close