• সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬
  • ||

বিএনপির নেতিবাচক রাজনীতি না থাকলে দেশ আরও এগিয়ে যেত: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশ:  ১৬ নভেম্বর ২০১৯, ০১:০৪ | আপডেট : ১৬ নভেম্বর ২০১৯, ০১:১৪
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

দেশের উন্নয়নের নানা চিত্র তুলে ধরে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ দাবি করেছেন, বিএনপি ও তার মিত্রদের নেতিবাচক রাজনীতি না থাকলে গত দশ বছরে বাংলাদেশ আরও বহুদূর এগিয়ে যেতে পারত।

তিনি বলেন, অবশ্যই যারা দায়িত্বে থাকবে তাদের সমালোচনা হবে। আমরা মনে করি সমালোচনা পথচলাকে শাণিত করে। কিন্তু অন্ধের মতো সমালোচনা দেশ রাজনীতি ও সমাজ কোনটির জন্য সহায়ক নয়। সমালোচনার পাশাপাশি ভালো কাজের প্রশংসাও থাকতে হবে। না হলে কেউ ভালো কাজ করার জন্য উৎসাহিত হবে না। সবকিছুতে না বলার যে নেতিবাচক রাজনীতি দেশের উন্নয়নের ক্ষেত্রে অন্যতম প্রতিবন্ধকতা।

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) বিকেলে চট্টগ্রামের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের বঙ্গবন্ধু কনফারেন্স হলে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য উপ কমিটি আয়োজিত ‘শিল্প ও বাণিজ্য ক্ষেত্রে উন্নয়নের এক দশক’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ নতুন উচ্চতায় উন্নীত হয়েছে দাবি করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, দশ বছর আগে আমাদের মাথাপিছু আয় ছিল ৬’শ ডলার। বর্তমানে মাথাপিছু আয় ২ হাজার ডলার ছুঁই ছুঁই। ২০০৮ সালে আমাদের দেশে দারিদ্র্যসীমার নিচে বাস করত ৪১ শতাংশ মানুষ। বর্তমানে দারিদ্র্যসীমার নিচে বাস করে ২০ শতাংশ মানুষ। অর্থাৎ দারিদ্র্য কমে অর্ধেকে নেমে এসেছে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সেই দেশ যেখানে মাথাপিছু জমির পরিমাণ পৃথিবীতে সর্বনিম্ন এবং মানুষের ঘনত্ব পৃথিবীতে সর্বোচ্চ। সেই দেশ পৃথিবীকে অবাক করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে খাদ্যে উদ্বৃত্তের দেশে রূপান্তরিত হয়েছে। বিশ্ব খাদ্য সংস্থা বাংলাদেশকে সফল কেস স্টাডি হিসেবে আফ্রিকার দেশগুলোর সামনে উপস্থাপন করে।

তিনি বলেন, দেশের ১৫ কোটি মানুষ মোবাইল ফোন ব্যবহার করে। সাড়ে ৩ কোটি মানুষ ফেসবুক ব্যবহার করে। চট্টগ্রামের রিকশাওয়ালা ভোলায় পরিবারের কাছে মোবাইলে টাকা পাঠায়। বিদেশে সন্তানের সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলে। ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন বাস্তব।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ও শিল্প ও বাণিজ্য উপ কমিটির চেয়ারম্যান কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা বিশিষ্ট সমাজবিজ্ঞানী প্রফেসর ড. অনুপম সেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রামের সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, চট্টগ্রাম-১১ আসনের সংসদ সদস্য এম এ লতিফ, চট্টগ্রাম চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম। স্বাগত বক্তৃতা দেন আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক সাবেক এমপি মো. আব্দুচ ছাত্তার।


পূর্বপশ্চিমবিডি/ওআর

চট্টগ্রাম,তথ্যমন্ত্রী,চসিক মেয়র
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত