Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬
  • ||

রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি ফয়সালের আবেগঘন স্ট্যাটাস

প্রকাশ:  ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১০:২৬
রাজশাহী প্রতিনিধি
প্রিন্ট icon

রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সহ- সভাপতি সালমান ফিরোজ ফয়সাল সোমবার তার ফোসবুক আইডি হতে আবেগঘন কথা লিখে স্ট্যাটাস দিয়েছেন। সেই স্ট্যাটাসে তার ছাত্র রাজনীতিসহ ত্যাগী আওয়ামী লীগের অসহায়ত্বের কথা উঠে এসেছে। এই স্ট্যাটাসে তার কথাগুলো যৌক্তিক ও সত্য দাবি করে বেশ কিছু কমেন্টও করেছে।

এই ছাত্রলীগ নেতা এবার উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করেন। তার বাড়ি রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী উপজেলার রাজাবাড়ী হাট এলাকা।

পাঠকদের উদ্দেশ্য তার ফেসবুক স্ট্যাটাস হুবহু তুলে ধরা হলো-

যখন বিএনপি ক্ষমতায় ছিল তখন "ছাত্রদল"-এর ক্ষমতা ছিল সবার উর্ধ্বে। পুলিশের বাবারও ক্ষমতা ছিলনা ছাত্রদলের উপরে কোন কথা বলার, কেন জানেন⁉

কারন বেগম জিয়ার চোর পুত্র তারেক রহমান প্রতিটি সেক্টরেই ছাত্রদলের কর্মীদেরকে চাকরীর বাজারে বিনা পরীক্ষাতেও অনেক বড় বড় যায়গাতে বসিয়ে রেখেছিল। তারা এখন চাকরিও করছে কিছুই হয়নি তাদের বরং কঠোর আওয়ামী পন্থী হয়ে মিশে আছেন এখন। একটু লক্ষ করলেই বোঝা যায় সারা দেশে বিএনপি নয় বরং আওয়ামীলীগের সাধারন কর্মীরা মামলার স্বীকার বেশি হচ্ছে।

আরো লক্ষ্য করলে দেখা যায়, তৃনমূলে ছাত্রলীগের একটা ছেলে যখন মোটরসাইকেল চালাতে গিয়ে সার্জেন্টের সামনে পড়ে, তখন তাদের নিজের পরিচয় দিলে অপমান-অপদস্ত হতে হয়। তখন ছাত্রলীগের পরিচয় দেয়া ছেলেটি ফোন দেই কোন বড় ভায়ের কাছে, আর সার্জেন্ট চরম মুড নিয়ে দাড়িয়ে থাকে কথা বলতে চাইনা। এমনটি হতো না, যদি সার্জেন্টটি ছাত্রলীগের হতো!!!

এমন হাজারো ঘটনা নিয়মিত ঘটে চলেছে আওয়ামীলীগের বিভিন্ন সাধারন কর্মীদের সাথে, দেশের বিভিন্ন স্থানে, যেটা বড় বড় নেতাদের চোখের আড়ালেই থেকে যায়।

আর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মেধা দিয়ে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পরেও ভাইভা থেকে তাদেরকে বাদ দেওয়া হয়। আসলে কি ছাত্রলীগ করে বলে তাদেরকে বাদ দেওয়া হয়?? যদি তাই-ই হয় তবে তাদেরকে বাদ দিবে-তো বিএনপি-জামাত পন্থীরা। তাহলে আপনারা কোন পন্থী??

এত মানবতা, নিরপেক্ষতা দিখিয়ে ভাল সেজে লাভ কি? আওয়ামী লীগের অনেক সিনিয়র নেতারা কি এগুলো বুঝেন না?? নাকি, সাউন্ডপ্রুভ এসি গাড়িতে থাকেন বলে আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগের সাধারন নেতাকর্মীদের আহাকার আপনাদের কানে পৌছায় না??

আপনাদের নিজেদের কোন স্বার্থ হাসিল করার জন্য ছাত্রলীগকে ব্যবহার করে ছুড়ে ফেলে দেন!! বলির পাঠা বানান ছাত্রলীগের কর্মীদের।

একটি কথা মনে রাখবেন, তৃনমূলের নেতাকর্মীরা আপনাদের মতন আওয়ামিলীগের নেতাকে মোটেও ভালবাসে না। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা আপনাদেরকে দায়ীত্ব দিয়েছেন বলে, তৃনমূলের নেতাককর্মীরা, আপনারা যাতে করে সঠিক ভাবে দায়ীত্ব পরিচালনা করতে পারেন সেই জন্য সাহায্য করে। কিন্তু, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ও হাতে গোনা দু'একজন ছাড়া অসহায় তৃনমূলের কোন নেতাকর্মীদের জন্য আপনারা কখনো সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন না। শেখ হাসিনা আপনাদেরকে দায়ীত্ব দেন সংগঠনকে গতিশীল ও তৃনমূলের নেতাকর্মীদের সুবিধা-অসুবিধা দেখার জন্য।

দলের যেকোন প্রয়োজনে সুশীল সমাজ ও নিরপেক্ষরা এগিয়ে আসবেনা বরং ছাত্রলীগই সর্বপ্রথম রাস্তায় নেমে পড়বে জীবন বাজি রেখে।

সবার প্রিয় হাসু আপা❤ যারা আপনার নিকট গিয়ে বলে ছাত্রলীগের ছেলেদের অনেক চাকরী দিলাম। তারা আপনাকে অকপটে মিথ্যা বলে চলেছে। ছাত্রলীগকে কেউ কোন সাহায্য করে না বরং টাকার বিনিময়ে বিএনপি-জামাত পরিবারের ছেলেদের চাকুরী দেয়। প্রিয় আপা, আপনার ছাত্রলীগের সন্তানেরা নিজ মেধা দিয়ে বিভিন্ন জায়গায় দায়ীত্ব পালন করছে।

ভাল থাকুক বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সকল নেতাকর্মী❤❤❤❤

সালমান ফিরোজ ফয়সাল

সহ-সভাপতি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ

রাজশাহী জেলা শাখা..

পূর্বপশ্চিমবিডি/পিএস

রাজশাহী,স্ট্যাটাস,ছাত্রলীগ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত