Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • রোববার, ২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
  • ||

ছাত্রলীগের কমিটিতে বিতর্কিত যারা

প্রকাশ:  ১৬ মে ২০১৯, ১৬:৩৪ | আপডেট : ১৬ মে ২০১৯, ১৬:৪৮
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট icon

কেন্দ্রীয় সম্মেলনের একবছর পর ৩০১ সদস্যের কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষণা করে ছাত্রলীগ। সোমবার (১৩ মে) সংগঠনের সভাপতি রেজোয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী স্বাক্ষরিত কমিটির তালিকা গণমাধ্যমে প্রকাশ করা হয়। কমিটি ঘোষণার পরপরই ক্ষোভে ফেটে পড়েন পদবঞ্চিতরা। তারা সংবাদ সম্মেলন করে বলেন, বিগত দিনগুলোতে যারা সক্রিয়ভাবে ছাত্রলীগের সঙ্গে জড়িত ছিল তাদের একটি বৃহৎ অংশকে বাদ কিংবা সঠিক মূল্যায়ন না করে ছাত্রলীগে নিষ্ক্রিয়, সাবেক চাকরিজীবী, বিবাহিত, অছাত্র, গঠনতন্ত্রের অধিক বয়স্ক, বিভিন্ন মামলার আসামি, মাদকসেবী, মাদক ব্যবসাসহ বিভিন্ন অপকর্মের দায়ে আজীবন বহিষ্কৃতসহ নানা অভিযোগে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের পদায়ন করা হয়েছে।

তার দুদিন পরে এমন কয়েকজনের নাম প্রকাশ করেন পদবঞ্চিতরা।

কমিটিতে পদপ্রাপ্ত যারা বিকর্তিত

এস এম তৌফিকুল ইসলাম সাগর সহ-সভাপতির পদ পেয়েছেন। তারা বাবা সোহরাব হোসেন কিশোরগঞ্জ-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য। ২০১৮ সালের আগস্ট মাসে তার বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে মামলা করা হয়।

গাজীপুরের কাউলতিয়া ইউনিয়ন শাখার আহ্বায়ক কমিটিতে যুগ্ম আহ্বায়ক ছিলেন মোঃ রুহুল আমিন। ২০০৬ সালে গঠিত হওয়া ছাত্রদলের এই কমিটির আহ্বায়ক ছিলেন মোঃ শাহাদাত হোসেন। সেই রুহুল আমিন ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে সহ-সভাপতির পদ পেয়েছেন।

৬ নম্বর সহ-সভাপতি আতিকুর রহমান খানের বিরুদ্ধে রয়েছে মাদক ও ইয়াবা সেবন এবং মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মল চত্বরে পহেলা বৈশাখের কনসার্টে আগুন দেয়ার অভিযোগ আছে তার বিরুদ্ধে। তাছাড়া ১৩ নম্বর সহ-সভাপতি শাহরিয়ার কবির বিদ্যুতের বিরুদ্ধে মাদক মামলা রয়েছে।

৭ নম্বর সহ-সভাপতির পদ পেয়েছেন সাবেক কেন্দ্রীয় কমিটির বরকত হোসেন হাওলাদার। তিনি ২০১১ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রত্ব হারান। এর আগের বছর দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে তাকে ছাত্রলীগ থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছিল।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আবু সাঈদ আকন্দ সহ-সভাপতি হয়েছেন। সোহাগ জাকির কমিটির এই সদস্যকে দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে আজীবন বহিষ্কার করা হয়েছিল। সহসভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল গোপালগঞ্জে একটি হত্যাচেষ্টা মামলার আসামি।

আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক হয়েছেন ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চেীধুরী শোভনের আপন ছোট ভাই মোঃ রাকিনুল হক চৌধুরী। রাজনীতিতে তার নিষ্ক্রিয়তা থাকা সত্ত্বেও ছাত্রলীগ সভাপতির ছোটভাই বলে সম্পাদক পদ পাওয়াতে ক্ষোভ প্রকাশ করেন অনেকে।

সংঘর্ষের ঘটনার দুইদিন পর শোভন-রাব্বানীকে গণভবনে তলব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় তিনি পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে ঠাঁই পাওয়া বিতর্কিতদেরকে বাদ দিয়ে নতুন কমিটি করার নির্দেশ দেন।

অভিযুক্ত বিবাহিত, অছাত্র, হত্যা ও মাদক মামলার আসামিদেরকে চিহ্নিত করে তাদের পদ বিলুপ্তির আওতায় এনে ত্যাগীদেরকে পদায়নের নির্দেশ দেন শেখ হাসিনা।

এবিষয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি বলেন, নেত্রীর নির্দেশই চূড়ান্ত বলে বিবেচিত। ছাত্রলীগকে বিতর্কমুক্ত করতে কাজ তদন্ত কমিটির রিপোর্ট অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পিপিবিডি/এআইএস

ছাত্রলীগ
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত