• বুধবার, ০৪ আগস্ট ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮
  • ||
  • মূলত অন্যের ঘুড়ি কেটে নিচে নামানোর জন্য রশিতে কাচের গুঁড়া ও আঠা দিয়ে ধারালো করা হয়।
    মূলত অন্যের ঘুড়ি কেটে নিচে নামানোর জন্য রশিতে কাচের গুঁড়া ও আঠা দিয়ে ধারালো করা হয়।
  • রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঘুড়ির সুতায় মাঞ্জা দিচ্ছে ঘুড়িপ্রেমিকেরা। ছবি: পূর্বপশ্চিম
    রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঘুড়ির সুতায় মাঞ্জা দিচ্ছে ঘুড়িপ্রেমিকেরা। ছবি: পূর্বপশ্চিম
  • ঘুড়ি ওড়ানো বেশ জনপ্রিয় একটি খেলা। এখন অলিগলিতে চলছে ঘুড়ির নাটাই বেচাকেনা। কাচের গুঁড়ি দিয়ে ঘুড়ির সুতা ধারালো করা হয়। একে স্থানীয়ভাবে ‘মাঞ্জা’ বলা হয়। মূলত অন্যের ঘুড়ি কেটে নিচে নামানোর জন্য রশিতে কাচের গুঁড়া ও আঠা দিয়ে ধারালো করা হয়। রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঘুড়ির সুতায় মাঞ্জা দিচ্ছে ঘুড়িপ্রেমিকেরা। ছবি: পূর্বপশ্চিম
    ঘুড়ি ওড়ানো বেশ জনপ্রিয় একটি খেলা। এখন অলিগলিতে চলছে ঘুড়ির নাটাই বেচাকেনা। কাচের গুঁড়ি দিয়ে ঘুড়ির সুতা ধারালো করা হয়। একে স্থানীয়ভাবে ‘মাঞ্জা’ বলা হয়। মূলত অন্যের ঘুড়ি কেটে নিচে নামানোর জন্য রশিতে কাচের গুঁড়া ও আঠা দিয়ে ধারালো করা হয়। রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঘুড়ির সুতায় মাঞ্জা দিচ্ছে ঘুড়িপ্রেমিকেরা। ছবি: পূর্বপশ্চিম
  • ঘুড়ি ওড়ানো বেশ জনপ্রিয় একটি খেলা। এখন অলিগলিতে চলছে ঘুড়ির নাটাই বেচাকেনা। কাচের গুঁড়ি দিয়ে ঘুড়ির সুতা ধারালো করা হয়। একে স্থানীয়ভাবে ‘মাঞ্জা’ বলা হয়। মূলত অন্যের ঘুড়ি কেটে নিচে নামানোর জন্য রশিতে কাচের গুঁড়া ও আঠা দিয়ে ধারালো করা হয়। রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঘুড়ির সুতায় মাঞ্জা দিচ্ছে ঘুড়িপ্রেমিকেরা। ছবি: পূর্বপশ্চিম
    ঘুড়ি ওড়ানো বেশ জনপ্রিয় একটি খেলা। এখন অলিগলিতে চলছে ঘুড়ির নাটাই বেচাকেনা। কাচের গুঁড়ি দিয়ে ঘুড়ির সুতা ধারালো করা হয়। একে স্থানীয়ভাবে ‘মাঞ্জা’ বলা হয়। মূলত অন্যের ঘুড়ি কেটে নিচে নামানোর জন্য রশিতে কাচের গুঁড়া ও আঠা দিয়ে ধারালো করা হয়। রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঘুড়ির সুতায় মাঞ্জা দিচ্ছে ঘুড়িপ্রেমিকেরা। ছবি: পূর্বপশ্চিম
  • ঘুড়ি ওড়ানো বেশ জনপ্রিয় একটি খেলা। এখন অলিগলিতে চলছে ঘুড়ির নাটাই বেচাকেনা। কাচের গুঁড়ি দিয়ে ঘুড়ির সুতা ধারালো করা হয়। একে স্থানীয়ভাবে ‘মাঞ্জা’ বলা হয়। মূলত অন্যের ঘুড়ি কেটে নিচে নামানোর জন্য রশিতে কাচের গুঁড়া ও আঠা দিয়ে ধারালো করা হয়। রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঘুড়ির সুতায় মাঞ্জা দিচ্ছে ঘুড়িপ্রেমিকেরা। ছবি: পূর্বপশ্চিম
    ঘুড়ি ওড়ানো বেশ জনপ্রিয় একটি খেলা। এখন অলিগলিতে চলছে ঘুড়ির নাটাই বেচাকেনা। কাচের গুঁড়ি দিয়ে ঘুড়ির সুতা ধারালো করা হয়। একে স্থানীয়ভাবে ‘মাঞ্জা’ বলা হয়। মূলত অন্যের ঘুড়ি কেটে নিচে নামানোর জন্য রশিতে কাচের গুঁড়া ও আঠা দিয়ে ধারালো করা হয়। রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঘুড়ির সুতায় মাঞ্জা দিচ্ছে ঘুড়িপ্রেমিকেরা। ছবি: পূর্বপশ্চিম
  • ঘুড়ি ওড়ানো বেশ জনপ্রিয় একটি খেলা। এখন অলিগলিতে চলছে ঘুড়ির নাটাই বেচাকেনা। কাচের গুঁড়ি দিয়ে ঘুড়ির সুতা ধারালো করা হয়। একে স্থানীয়ভাবে ‘মাঞ্জা’ বলা হয়। মূলত অন্যের ঘুড়ি কেটে নিচে নামানোর জন্য রশিতে কাচের গুঁড়া ও আঠা দিয়ে ধারালো করা হয়। রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঘুড়ির সুতায় মাঞ্জা দিচ্ছে ঘুড়িপ্রেমিকেরা। ছবি: পূর্বপশ্চিম
    ঘুড়ি ওড়ানো বেশ জনপ্রিয় একটি খেলা। এখন অলিগলিতে চলছে ঘুড়ির নাটাই বেচাকেনা। কাচের গুঁড়ি দিয়ে ঘুড়ির সুতা ধারালো করা হয়। একে স্থানীয়ভাবে ‘মাঞ্জা’ বলা হয়। মূলত অন্যের ঘুড়ি কেটে নিচে নামানোর জন্য রশিতে কাচের গুঁড়া ও আঠা দিয়ে ধারালো করা হয়। রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঘুড়ির সুতায় মাঞ্জা দিচ্ছে ঘুড়িপ্রেমিকেরা। ছবি: পূর্বপশ্চিম
close