• শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
  • ||

পেঁয়াজ মানুষের হৃদয়ে আঘাত হেনেছে, ক্ষুর্ণ হয়েছে সরকারের ইমেজ

প্রকাশ:  ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ০২:৩১
এম. আব্দুল বাতেন

বর্তমান সময়ের সবচেয়ে আলোচিত বিষয় পেঁয়াজ। নিজ ঘরে হতে শুরু করে রাস্তা, ঘাট, হাট-বাজার, চায়ের দোকান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ফসলের মাঠ হতে শুরু করে এমন কোন জায়গা নেই যে পেঁয়াজের লাগামহীন দাম নিয়ে কথা বলা হচ্ছে না।

আলোচনা করলে ভূল হবে সরকার কে এমন ভাবে কটুক্তি করে কথা বলা হচ্ছে যা নিজের হৃদয়ে আঘাত লাগছে। তবে জনগণের পালস বলে কথা তাই সব কিছু শুনতেই হচ্ছে। আমার ক্ষুদে জ্ঞানেও উপলব্ধি হয়েছে যে নিয়ন্ত্রীণহীন দাম বাড়ার জন্য সরকারের যথেষ্ঠ গাফলতি আছে। পেঁয়াজ যেমন ঘরে বেশী দিন থাকলে পঁচে যায় আমার মনে হচ্ছে এই সরকারও পেঁয়াজের দূষণে পঁচতে বসেছে। আমার কথা গুলো একটু খারাপ লাগতে পারে তবে বাস্তবতা বুঝি এটাই। এই সরকারের অনেক সাফল্য আছে যা বলে শেষ করা যাবে না। আমাদের প্রধানমন্ত্রীর সফলতার জন্যই দেশের সুনাম আজ বর্হিরবিশ্বে প্রশংসিত কিন্তু মাত্র একটি জিনিস শুধু পেঁয়াজের কারণেই মনে হচ্ছে অতীতের সকল সফলতার গ্লানি মুছে যাচ্ছে। কথায় আছে “ যদি কোন ব্যক্তির কাজ প্রথমে অনেক করে দেন আর শেষেরটি শুধু করবেন না তাহলে বলবে সে আমার একটিও কাজ করে দেয়নি। ঠিক এমনি ব্যাপার হয়েছে। এটাই হলো জনগণের পালস। এই পালস বুঝেই নাকি রাজনীতি করতে হয়।

বড় বড় আমলা মন্ত্রীরা আজ আপনারা উপলব্ধি করতে পারছেন কিনা জানিনা। আপনারা আসুন গ্রাম গঞ্জে , হাট-বাজারে ঘুরে দেখুন। সাধারণ মানুষের আর্তনাদ শুধু মাত্র এই পেঁয়াজ জনগণের হৃদয়ে কতটা আঘাত হেনেছে। আজ কেউ বাজার করতে গেলেই চিন্তা করছে পেঁয়াজের যে দাম সু-স্বাদু খাবার খেতে হলে তো পেঁয়াজ লাগবে কিন্তু পেঁয়াজ কিনতে না পারার কারণে অনেকে রুচি সম্মত খাবার খাওয়া হতে বিরত থাকছে।

আর ধানের দাম নিয়ে তো কৃষকের আর্তনাদ আছেই। ধানের দাম নিয়ে কৃষকদের চাপা ক্ষোভ থাকলেও তারা নিরবেই সয়ে যায়। আজ এমন একটা জিনিস লাগামহীণ হয়েছে যে প্রতিটি মানুষের হৃদয়ে ক্ষত হয়েছে। কেননা পেঁয়াজ প্রতিদিন সবার চাই চাই। আপনার দলের বলেন আর বিরোধী দল বলেন সবাই এর বিরোধীতা করছে। বিরক্ত হয়ে পড়েছে, হয়তো কেই মুখ খুলে জোরালে প্রতিবাদ করতে পারছে না।

তবে ফেসবুকে কিছু শ্রেণীর মানুষ প্রতিবাদ বলেন আর ব্যাঙ্গাত্নক বলেন তা অব্যহত রেখেছে। কিছু ব্যাঙ্গাত্নক দেখে নিজেকে খুব খারাপ লাগছে আর ভাবনা হচ্ছে আমার যতটা খারাপ লাগছে সরকারের কি লাগছে না? বাণিজ্য বক্তব্য গ্রহণ যোগ্য নয় জনগণের কাছে। বক্তব্যর উল্টো বাতাস বইছে বাজারে। তাহেল সরকার কি এর দায় এড়াতে পারে? যখন পেঁয়াজ ১০০ টাকা ছুঁই ছুঁই তখন সরকারের পক্ষ হতে বলা হলো পেঁয়াজ ওমুক ওমুক দেশ হতে আনা হচ্ছে বাজার ঠিক হয়ে যাবে। কই এখন পর্যন্ত তো বাজার ঠিক হয়নি বরং পাগলা ঘোড়ার গতিতে বৃদ্ধি পেয়েছে পেঁয়াজের দাম। এখন আবার শোনা যাচ্ছে বিমানে পেঁয়াজ আসছে বাজার ঠিক হয়ে যাবে। জানিনা এর ফলাফলা কি হবে। ঠিক হলে তো জনগণ সরকারকে সাধুবাদ জানাতে কার্পণ্য করবে না।

তিনদিন আগে প্রবীণ আওয়ামীলীগ নেতা ও সাবেক বাণিজ্য মন্ত্রী বর্তমান বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি তোফায়েল আহম্মেদ জাতীয় সংসদে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বর্তমান মন্ত্রীর কাজে যে বিরক্ত তা বোঝা যায়। তিনি ১৯৯৬-২০০১ সালে মন্ত্রণালয় চালাতে গিয়ে পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেলে কি করেছিলেন তা ব্যাখ্যা করেছিলেন তা সত্যিই প্রশংসনীয়। এমন অভিজ্ঞ লোক ছাড়া এমন মন্ত্রণালয় চালালে বিতর্ক হবে। একজন মন্ত্রী হতে হলে অনেক গুণের অধিকারী ও সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা থাকতে হবে নইলে দেশ পরিচালনা সম্ভব না।

বর্তমান সময়টা মনে হচ্ছে সর্বক্ষেতে পেঁয়াজ নিয়ে যে হাহাকার তা জনগণের সকল অর্জন মুছে যাবার মত। ব্যাখ্যা করতে বলতে চাইছি না অল্প কথায় বলতে চাই ইতো মধ্যে গত ১১ বছরে যত দেশরত্ন শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে যা অর্জন হয়েছে মাত্র কিছু দিনের পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণ করতে না পারার কারণে সরকারের জন প্রিয়তা অর্ধেকে নেমে এসেছে। সরকারর ইমেজ কঠিন ক্ষুর্ণ হয়েছে। বিশেষ করে ঘরের নারীরা রান্না ঘরে গিয়ে প্রচন্ড বিরক্ত হয়ে সরকার কে গালি দিচ্ছে।

পেঁয়াজের সংকটের কারণে যখন দাম আকাশ ছোঁয়া দেশ তোলপাড় তখন চট্টগ্রামে খাতুনগজ্ঞের বাজার হতে টনের টন গুদাম ভর্তি পেঁয়াজ পঁচা বের হচ্ছে। অথচ সরকার বলে আসছে বাজারে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। আমার প্রশ্ন কেমন করে কাদেরকে দিয়ে নজরাদি করা হলো যে টনের টন পেঁয়াজ গুদামে রাখা আছে তা ধরতে পারলেন না।

এসবের দায় কোন ভাবেই সরকার এড়াতে পারে না। সরকারের উচিত হতে এখনই বাজার নিয়ন্ত্রণ করে জনগণের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে পেঁয়াজের দাম নিয়ে আসবেন। বসে থেকে মিডিয়ার সমনে বড় বড় লেকচার দিলে চলবে না। বর্তমান সময়ের জনগণ অনেক সচেতন। আমার হয়তো জনগণকে বোকা ভেবে যা মনে আসে তাই বলে বোঝানোর চেষ্টা করি কিন্তু মনে রাখবেন জনগণও আপনার চাইতে বেশী বুঝতে শিখেছে।

সকল কিছু চিন্তা ভাবনা করে সরকারের প্রতি আকুল আবেদন জানাই জনগণের দোয়া ও ভালোবাসা নিতে সরকারে ইমেজ ধরে রাখতে পেঁয়াজের বাজার নিয়ন্ত্রণ সহ জনস্বার্থে সকল বিষয়গুলি সু-বিবেচনা করে দেশ পরিচালনার আকুল আবেদন জানাচ্ছি।

লেখক: সাংবাদিক


পূর্বপশ্চিমবিডি/কেএম

এম. আব্দুল বাতেন,পেঁয়াজ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত