Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬
  • ||

ভাইয়া, পদ্মা সেতুতে নাকি মাথা লাগে, ঘুম ভাঙলো টেলিফোনে

প্রকাশ:  ১১ জুলাই ২০১৯, ২১:৫৪ | আপডেট : ১২ জুলাই ২০১৯, ০১:৩৪
আনিসুর রহমান
প্রিন্ট icon

আজ সকালে ঘুম ভাঙলো গ্রামের বাড়ির এক কাজিনের মোবাইল ফোনে। তার নাম সিদ্দিকা। এবার উচ্চ মাধ্যমিকে দ্বিতীয় বর্ষে পড়ে। সে বলছে ভাইয়া, পদ্মা সেতুতে নাকি মানুষের মাথা লাগে? রাতের বেলা মানুষ নাকি ধরে নিয়ে যাচ্ছে? আমরা তো সন্ধ্যার পর ঘর থেকে বের হতে পারছি না, খুব ভয়ে আছি। ভাইয়া, এই খবরটা কি ঠিক? আমি একটু বিরক্ত হলাম, তারপরও বললাম, এসব ফালতু কথায় কান দিবি না। এটা গুজব। পত্রপত্রিকা পড়িস না? এটা বলে আমি লাইন কেটে দিলাম। এমনিভাবে দুপুরে যখন অফিসে আসি, এটা নিয়ে কয়েক জায়গায় আলোচনা, মানুষের বেশ কৌতূহল। মানুষ আসল বিষয়টা কী তা জানতে চায়। ইতোমধ্যে এ গুজব রুখতে সরকারও পদক্ষেপ নিয়েছে।

এছাড়া গতকাল পদ্মাসেতুর প্রকল্প পরিচালকের কার্যালয়ের পক্ষ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে সম্প্রতি ছড়িয়ে পড়া একটি গুজবের বিষয়ে সাধারণ মানুষকে সচেতন থাকতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয় যে, পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজে মানুষের মাথা লাগবে বলে একটি মহল সামাজিক মাধ্যমে গুজব ছড়াচ্ছে যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন।

পদ্মা সেতু নির্মাণের জন্য ঐ অঞ্চলের কাছে বেশ কয়েকটি এলাকায় বিভিন্ন বয়সী মানুষ অপহৃত হচ্ছে বলেও গুজব ছড়িয়ে পড়ায় কিছু এলাকায় মানুষের মধ্যে ভিত্তিহীন আতঙ্ক তৈরি হয়েছে বলে দেশের বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে খবরও বের হয়।

তবে কোনো এলাকার আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছ থেকেই কোনো অপহরণের খবর পাওয়া যায়নি।

তাহলে কেন এমন একটি ভিত্তিহীন গুজব ছড়িয়ে পড়লো যার কারণে পদ্মা সেতুর প্রকল্প পরিচালকের দপ্তর থেকে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে এই অপপ্রচারের প্রতিবাদ করতে হলো?

এ বিষয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সরকারকে বিপদে ফেলতে গুজবের ডালপালা বিস্তার করছে। পদ্মা সেতু নিজস্ব অর্থায়নে হচ্ছে- এটা তারা সহ্য করতে পারছে না, গায়ে জ্বালা ধরছে। তাই তারা বলে লক্ষ মানুষের মাথা ও রক্তের প্রয়োজন।

বিবিসি বাংলার এক প্রতিবেদককে বলা বলেছে, পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজের জন্য মানুষের মাথা লাগবে বলে যে গুজব ছড়িয়ে পড়েছে, তার বিরুদ্ধে সতর্ক করে দিয়েছে সেতু কর্তৃপক্ষ।

এদিকে, পদ্মা সেতু নির্মাণে মানুষের মাথা লাগবে'- সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এমন গুজব ছড়ানোর দায়ে আজ সকালে এক স্কুলছাত্রকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। ফরিদপুর-৮ রাজবাড়ীর পাংশার নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতার হওয়া স্কুলছাত্রের নাম পার্থ আল-হাসান। সে পাংশা উপজেলার পাট্রা ইউনিয়নের বৈরাট গ্রামের আব্দুর সালামের ছেলে এবং মাজাইল বিএমডি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

তবে এই গুজব সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য কেই করছে কিনা জানি না। যতটুকু জানি এই গুজব শুরু হয়েছে বহু আগে থেকে। আগে গল্প শুনতাম বড় দিঘি কাটার পর কে যেন স্বপ্নে দেখেছে মাথা লাগবে, না হয় ক্ষতি হবে এমন আজগুবি, হাবিজাবি অনেক কিছু্। এসব আগেকার গল্প। তবে এই আধুনিক যুগে এসেও এসব গল্প গুজব ছড়ায়- এটা অনাকাঙ্ক্ষিত ।

(লেখক: যুগ্ম বার্তা সম্পাদক, পূর্বপশ্চিমবিডি)

পদ্মা সেতু
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত