• শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
  • ||

কল ড্রপের ক্ষতিপূরণ পাচ্ছেন গ্রাহক

প্রকাশ:  ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:৪৭ | আপডেট : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:৫০
নিউজ ডেস্ক

কল ড্রপের নতুন নির্দেশনা জারি করে বিটিআরসি বলেছে, প্রতিবার কল ড্রপের জন্য মোবাইল ফোনের গ্রাহকদের কমপক্ষে ৩০ সেকেন্ড ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। সর্বোচ্চ দিতে হবে ৪০ সেকেন্ড।

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যামসুন্দর সিকদার সংবাদ সম্মেলনে এ নতুন নির্দেশনার কথা জানান।

ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে সংবাদ সম্মেলনে সংযুক্ত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব মো. খলিলুর রহমান।

সংবাদ সম্মেলনে কল ড্রপ নিয়ে বিস্তারিত জানান বিটিআরসির সিস্টেম অ্যান্ড সার্ভিসেস বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. নাসিম পারভেজ।

বিটিআরসির চেয়ারম্যান বলেন, নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিদিন প্রথম ও দ্বিতীয় কল ড্রপের ক্ষেত্রে প্রতিবারের জন্য ৩০ সেকেন্ড বা তিনটি পালস (১ পালস ১০ সেকেন্ড) ক্ষতিপূরণ দিতে হবে গ্রাহককে। আর তৃতীয় হতে সপ্তম কল ড্রপের ক্ষেত্রে প্রতিবারের জন্য ৪০ সেকেন্ড বা চারটি পালস পাবেন গ্রাহক। এ নির্দেশনা ‘অন নেট’ অর্থাৎ একই অপারেটরের নেটওয়ার্কের কলের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে। এক অপারেটর থেকে অন্য অপারেটরের নেটওয়ার্কে কলের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে না। আগামী ১ অক্টোবর থেকে এ নির্দেশনা কার্যকর হবে।

নতুন নির্দেশনায় কল ড্রপ নিয়ে সব মোবাইল ফোন অপারেটরের জন্য অভিন্ন ইউএসএসডি কোড ১২১৭৬৫# ডায়াল করে একজন গ্রাহক জানতে পারবেন তার আগের দিন, সপ্তাহ বা মাসিক অন-নেট কল ড্রপের পরিমাণ কত।

এছাড়া কল ড্রপের ফলে পাওয়া কল মিনিট পরবর্তী দিনের প্রথম কল হতে ব্যবহারযোগ্য হবে। ফেরত পাওয়া মিনিট পুরোপুরি ব্যবহার শেষ হওয়ার আগে গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট হতে কোনো টাকা কাটা যাবে না। একই সঙ্গে কলড্রপের জন্য ফেরত দেওয়া টকটাইমের বিষয়ে গ্রাহককে এসএমএস করে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জানাতে হবে।

সংবাদ সম্মলনে মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, অপারেটররা যদি তাদের নেটওয়ার্ক উন্নয়নে মনোযোগ দেন, সেবার মান ভালো করেন, তাহলে তো ক্ষতিপূরণ দিতে হয় না। তিনি আরও বলেন, গ্রাহকদের মানসম্মত সেবা দিতে হবে, এর কোনো বিকল্প নেই।

মোবাইল ফোনে কল ড্রপ কখনও কাম্য নয় উল্লেখ সচিব করে মো. খলিলুর রহমান বলেন, সাধারণ মানুষ যাতে মানসম্পন্ন সেবা থেকে বঞ্চিত না হয়, সেদিকে অপারেটরদের নজর দিতে হবে। ভয়েস কলের উন্নতির পাশাপাাশি ডেটার গতির বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে হবে।

মোবাইল টেলিযোগাযোগে মানসম্মত সেবা নিশ্চিতে বেশ কিছু পদেক্ষপ নেওয়া হয়েছে জানিয়ে বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার বলেন, ২০২১ এবং ২০২২ সালে তরঙ্গ নিলাম ও টাওয়ার শেয়ারিং গাইডলাইন চালু করা হয়েছে। পাশাপাশি মোবাইল অপারেটর এবং এনটিটিএন অপারেটদের মধ্যে দূরত্ব কমাতে কার্যকর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আপাতত ‘অন নেট’ কল ড্রপ নির্দেশিকা প্রণীত হলেও বিটিআরসিতে স্থাপিত টেলিকম মনিটরিং সিস্টেম চালু হলে ‘অফ নেট’ কল ড্রপের ক্ষেত্রেও নির্দেশনা আসবে।

কল ড্রপ,ক্ষতিপূরণ,গ্রাহক
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close