• সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
  • ||

ভূমি সেবা সপ্তাহ ১৯ থেকে ২৩ মে

প্রকাশ:  ১৩ মে ২০২২, ১৬:৫১
নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশের বিভাগীয় পর্যায় থেকে শুরু করে ইউনিয়ন পর্যায় পর্যন্ত কল সেন্টারের মাধ্যমে অনলাইন এবং ডাকযোগে ভূমি সেবাকে গুরুত্ব দিয়ে চলতি মাসে পাঁচ দিনের ‘ভূমি সেবা সপ্তাহ’ উদযাপন করতে যাচ্ছে ভূমি মন্ত্রণালয়।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আগামী ১৯ থেকে ২৩ মে ‘ভূমি অফিসে না এসেই ডিজিটাল ভূমি সেবা গ্রহণ’ প্রতিপাদ্যে দেশের আট বিভাগে 'ভূমি সেবা সপ্তাহ-২০২২' উদযাপন করা হবে।

এবার '১৬১২২ নম্বরে কল সেন্টারের মাধ্যমে ভূমিসেবা' এবং 'ডাকযোগে ভূমিসেবা' বিষয় দুটিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে দেশব্যাপী এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী।

ভূমি ব্যবস্থাপনায় জনসচেতনতা বাড়াতে এবং হয়রানি কমিয়ে এ কাজে দক্ষতা ও গতিশীলতা আনতে মন্ত্রণালয় সেবা সপ্তাহের এই আয়োজন করেছে।

দেশের ৬৪ জেলা এবং ৫০৭ উপজেলার রাজস্ব সার্কেল, ইউনিয়ন ও পৌর ভূমি অফিসে এই সপ্তাহ উদযাপন করা হবে বলে মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ভূমি সেবা সপ্তাহে দেশের প্রতি জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট ভূমি অফিস, স্থানীয় সম্মেলন কক্ষ কিংবা সুবিধাজনক স্থানে ক্যাম্প করে সেবা বুথ থাকছে। ওই বুথে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সেবাগ্রহীতারা ভূমি বিষয়ে নানা ধরনের পরামর্শ পাবেন এবং কী কী ভূমি সেবা আছে সে সম্পর্কেও জানতে পারবেন।

জেলা পর্যায়ে অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ের লক্ষ্যে 'অনলাইন রেজিস্ট্রেশন'কে ভূমি সেবায় সবার আগে রাখা হয়েছে। এছাড়া ভূমি উন্নয়ন কর আদায় ও অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর দেওয়া সংক্রান্ত কার্যক্রম, ই-নামজারির আবেদন গ্রহণ, নিষ্পত্তিকৃত এলএ কেইসের ক্ষতিপূরণের চেক দেওয়া, খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি প্রাপ্তির আবেদন গ্রহণ ও তাৎক্ষণিকভাবে তা সরবরাহ, এবং অনলাইনে মৌজা ম্যাপ ডাক বিভাগের মাধ্যমে সরবরাহ করা ইত্যাদিও গুরুত্ব পাচ্ছে জেলা পর্যায়ের ভূমি সেবায়।

উপজেলা পর্যায়ে যেসব ভূমি সেবায় বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে ভূমি উন্নয়ন কর আদায় ও অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ের লক্ষ্যে রেজিস্ট্রেশন, ই-নামজারির আবেদন গ্রহণ, ভূমিহীনদের মধ্যে বন্দোবস্তকৃত জমির কবুলিয়ত ও দলিল হস্তান্তর। এছাড়াও ভূমি অফিসের প্রবেশমুখে নামজারির প্রবাহচিত্র স্থাপন করার ব্যবস্থা গ্রহণ, নামজারি/জমাভাগ/খারিজ করতে মোট খরচ এক হাজার একশত সত্তর টাকা লিখিত সাইনবোর্ড লাগানোর ব্যবস্থা গ্রহণ এবং এসব সেবার ব্যানার ও প্ল্যাকার্ড স্থাপন করার বিষগুলো।

ডিসিআর ও খতিয়ান দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়াকে সেবাকে ইউনিয়ন পর্যায়ে যেসব ভূমি সেবায় বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে এবারের সপ্তাহে। এ ছাড়াও ভূমি উন্নয়ন কর আদায় ও অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ের লক্ষ্যে রেজিস্ট্রেশন, অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর দেওয়ার জন্য রেজিস্ট্রেশন সম্পর্কে ব্যাপক প্রচার এবং ভূমি সেবা সংক্রান্ত বুকলেট ও লিফলেট বিতরণ ইত্যাদিও থাকছে পাঁচ দিনের এই ভূমি সপ্তাহে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, তথ্যপ্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে ঘরে বসেই যেন সাধারণ মানুষ নিজের ভূমি সুরক্ষাসহ বিভিন্ন কাজ করতে পারে সেজন্য এক ঠিকানায় সব ভূমি সেবা নিয়ে আসার জন্য স্থাপন করা হয়েছে ‘ভূমি সেবা প্ল্যাটফর্ম’।

ভূমি সেবা খাতে চলতি বছরে যেসব অনলাইন সেবা যুক্ত হয়েছে, সেগুলোকে জনগণের মধ্যে পরিচিত করাতে এবারের ভূমি সেবা সপ্তাহে নানা পদক্ষেপ থাকবে।

এবার থেকে প্রতি বছর ভূমি সেবা সপ্তাহে স্বচ্ছ, দক্ষ, জনবান্ধব ও জবাবদিহিমূলক ভূমিসেবা দেওয়া ও বাস্তবায়নে বিশেষ কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভূমি মন্ত্রণালয়। এর আওতায় মাঠ পর্যায়ে ভূমি অফিসে কর্মকর্তাদের পুরস্কার দেওয়া হবে।

সহকারী কমিশনার (ভূমি), কানুনগো, সার্ভেয়ার, ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা, ইউনিয়ন ভূমি উপ-সহকারী কর্মকর্তা, জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসার, চার্জ অফিসার, সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার, উপ-সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার এবং সেটেলমেন্ট সার্ভেয়ারদের মধ্যে থেকে নিজ নিজ পদবির ক্যাটাগরিতে মূল্যায়ন করা হবে।

মূল্যায়নে সর্বোচ্চ নম্বর পাওয়াদের পুরস্কার হিসেবে ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট দেওয়া হবে।

পূর্বপশ্চিম- এনই

ভূমি মন্ত্রণালয়
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close