• মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ৪ কার্তিক ১৪২৮
  • ||

শনিবার নয় রোববার চালু হবে বিমানবন্দরে করোনা পরীক্ষা

প্রকাশ:  ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:৫২
নিজস্ব প্রতিবেদক

কয়েক দফা ঘোষণা দিয়েও বিমানবন্দরে সঠিক সময়ে চালু করা গেল না প্রবাসীদের করোনা পরীক্ষা। মেশিন বসলেও এখনো ট্রায়াল চালানো হয়নি। ফলে শনিবার নয়, আগামী রোববার চালু হবে এই কার্যক্রম।

শুক্রবার রাত পৌনে ১০টায় বিমানবন্দরের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. শাহরিয়ার সাজ্জাদ এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

সম্পর্কিত খবর

    শাহরিয়ার সাজ্জাদ বলেন, ‘মেশিন বসানো হয়ে গেছে। রাতেই মেশিনগুলো রান করবে, শনিবার সকালে টেকনিক্যাল কমিটি, মনিটরিং কমিটিসহ অন্যান্য বিভাগ সকাল ১০টায় বিমানবন্দরে আসবে। সবকিছু পর্যবেক্ষণ ও কোনো ধরনের সংশোধন থাকলে তা ঠিক করা হবে। এ ছাড়া এমআইসের সঙ্গে আইডি স্থাপন আগামী পরশু (রোববার) থেকে অফিশিয়াল রানিংয়ে চলে যেতে পারব।’

    শাহরিয়ার বলেন, ‘আমরা কখনো বলিনি যে শনিবার চালু হচ্ছে। আমরা বলে এসেছি, আপ টু দ্য মার্ক না হওয়া পর্যন্ত যেহেতু এয়ারপোর্ট, তাই রিস্কে যাব না। দোয়া করেন যেন এটা সাকসেসফুলি করতে পারি।’

    এর আগে শুক্রবার সকালে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ বিমানবন্দরে ল্যাব স্থাপনের কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে বলেন, আজ (শুক্রবার) রাতের মধ্যে রান করবে। আগামীকাল (আজ) থেকে হয়তো আরম্ভ হবে এবং এদিনই ফ্লাইট চালু হবে। এমনিতেই তো সময় অনেক লেগেছে, কিন্তু কাজের সময় খুব কম লাগছে।

    মন্ত্রীর বক্তব্যের ১২ ঘণ্টা পার না হতেই বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে এমন খবর আসল।

    এদিন মন্ত্রী আরও বলেন, করোনা পরীক্ষায় আশা করি কোনো ধরনের গাফিলতি হবে না। হলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে এটি মনিটরিং করার দায়িত্ব স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের। এ ছাড়া একটি টিম গঠন করা হয়েছে, তারা বিষয়টি দেখবে।

    আমিরাত র‍্যাপিড পিসিআরের কথা বললেও আরটিপিসিআর স্থাপন করা হচ্ছে। এতে কোনো ধরনের সমস্যা হবে কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে ইমরান আহমদ বলেন, র‍্যাপিড পিসিআর কিংবা নরমাল হোক, ব্যাপার হলো আরব আমিরাত সরকার কি চায় সেটাই বড় বিষয়। এটা তো আমাদের সমস্যা না। তারা যেটা চাইবে সেটাই হবে। বিষয় হলো দ্রুত চালু করা।

    চলমান করোনা মহামারিতে দেশে আসেন কয়েক হাজার প্রবাসী। ভাইরাসটির প্রকোপ ক্রমেই কমতে থাকলে কর্মস্থলে ফিরতে চান প্রবাসীরা। কিন্তু আগস্টে আরব আমিরাত নতুন শর্ত হিসেবে যাত্রার ছয় ঘণ্টা আগে নমুনা পরীক্ষার নেগেটিভ সনদের কথা জুড়ে দেয়। তাও আবার পরীক্ষাগার হতে হবে বিমানবন্দরে। কিন্তু দেশের তিনটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এই ধরনের সুবিধা না থাকায় বিপাকে পড়েন আমিরাত প্রবাসীরা।

    অনেকের ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ায় সময় মতো কাজে ফিরতে পারছে না। ফলে সংবাদ সম্মেলন থেকে শুরু করে বিক্ষোভ সমাবেশ ও অনশন করেন তাঁরা। পরে গত ৬ সেপ্টেম্বর এক সপ্তাহের মধ্যে বিমানবন্দরে পিসিআর ল্যাব স্থাপনের নির্দেশনা আসে প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে। তারপরও সেটি এক সপ্তাহ পর ১৫ সেপ্টেম্বর সাত প্রতিষ্ঠানকে অনুমোদন দেওয়া হয়।

    এর মধ্যে ছয়টি প্রতিষ্ঠান স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর (এসওপি) জমা দেয়। এসব প্রতিষ্ঠানেই হবে প্রবাসীদের করোনা পরীক্ষা।

    পিপি/জেআর

    মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
    • সর্বশেষ
    • সর্বাধিক পঠিত
    close