• রোববার, ০১ আগস্ট ২০২১, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮
  • ||

শেয়ারবাজারে ফিরলো বিনিয়োগকারীদের আরো ৮ হাজার কোটি টাকা 

প্রকাশ:  ১৭ জুলাই ২০২১, ১৫:১০
নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনাভাইরাসের ক্রমবর্ধমান সংক্রমণে লাগাম টানতে সরকারের জারি করা বিধিনিষেধের মধ্যে দ্বিতীয় সপ্তাহে সীমিত পরিসরে লেনদেন শেষ করেছে দেশের পুঁজিবাজারে। তবে ১৫ জুলাই থেকে আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে সবকিছু স্বাভাবিক করে দেয়ায় ব্যাংক লেনদেনের সঙ্গে সঙ্গে পুঁজিবাজারে সেদিন থেকে আগের সময় অনুযায়ী লেনদেন শুরু হয়। যা ১৯ জুলাই পর্যন্ত থাকবে। তবে ঈদের পর থেকে পুনরায় সীমিত পরিসরে লেনদেন হবে। ১ জুলাই থেকে লকডাউন শুরু হয় এবং এই সময়ে সীমিত পরিসরে ব্যাংক ও পুঁজিবাজার খোলা রাখার নির্দেশনা জারি করা হয়। নির্দেশনা অনুসারে সাপ্তাহিক বন্ধ থাকে তিনদিন এবং বাকি দিনগুলোতে পুঁজিবাজারে লেনদেন চলে ৩ ঘণ্টা। পরে আবার বিধিনিষেধের সময়সীমা বাড়ানো হলে ব্যাংক লেনদেনের সময় বাড়লে পুঁজিবাজারে লেনদেনেরও সময় বাড়ে ১ ঘণ্টা। লকডাউন পরিস্থিতিতে গত সপ্তাহে সীমিতভাবে পুঁজিবাজারে তিন কার্যদিবস ও স্বাভাবিকভাবে এক কার্যদিবস লেনদেন হয়। গত সপ্তাহে লেনদেনের মাধ্যমে সপ্তাহ শেষে উভয় এক্সচেঞ্জের সবগুলো সূচকের সঙ্গে বাজার মূলধন বেড়েছে সাড়ে ১৫ হাজার কোটি টাকার বেশি। গত সপ্তাহে ডিএসইতেই বাজার মূলধন ৮ হাজার কোটি টাকার বেশি বেড়েছে। অন্যদিকে উভয় এক্সচেঞ্জে সপ্তাহজুড়ে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারদর বেড়েছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, গত সপ্তাহে লেনদেন শুরুর আগে ডিএসইর বাজার মূলধন ছিল ৫ লাখ ১৭ হাজার ১৮২ কোটি ১৮ লাখ ৬৫৯ টাকা। যা সপ্তাহজুড়ে লেনদেন শেষে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ২৫ হাজার ২৭১ কোটি ৮২ লাখ ১৪ হাজার ২১৮ টাকা। অর্থাৎ সপ্তাহ শেষে চার কার্যদিবসে ডিএসইর বাজার মূলধন বেড়েছে ৮ হাজার ৮৯ কোটি ৬৪ লাখ ১৩ হাজার ৫৫৯ টাকা বা ১ দশমিক ৫৬ শতাংশ।

বাজার মূলধনের সঙ্গে গত সপ্তাহে ডিএসইতে টাকার অংকে মোট লেনদেন বেড়েছে। গত সপ্তাহে চার কার্যদিবসে ডিএসইর মোট লেনদেন হয়েছে ৬ হাজার ৭০৬ কোটি ৪৮ লাখ ৭৩ হাজার ৯০৯ টাকা। যেখানে তার আগের সপ্তাহে চার কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৬ হাজার ৪১০ কোটি ৭০ লাখ ৭৩ হাজার ৩৮৮ টাকা। সে হিসাবে টাকার অংকে ডিএসইর মোট লেনদেন বেড়েছে ২৯৫ কোটি ৭৮ লাখ ৫২১ টাকা বা ৪ দশমিক ৬১ শতাংশ।

একই সঙ্গে গত সপ্তাহে টাকার অংকে ডিএসইর গড় লেনদেনও বেড়েছে। গত সপ্তাহে চার কার্যদিবসে ডিএসইর গড় লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৬৭৬ কোটি ৬২ লাখ ১৮ হাজার ৪৭৭ টাকা। যা তার আগের সপ্তাহে চার কার্যদিবসে ছিল ১ হাজার ৬০২ কোটি ৬৭ লাখ ৬৮ হাজার ৩৪৭ টাকা। সে হিসাবে গত সপ্তাহে ডিএসইর গড় লেনদেন বেড়েছে ৭৩ কোটি ৯৪ লাখ ৫০ হাজার ১৩০ টাকা বা ৪ দশমিক ৬১ শতাংশ।

সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৯৪ দশমিক ৫৯ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৫২ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৩০৭ দশমিক ৩৬ পয়েন্টে, যা আগের সপ্তাহ শেষে ছিল ৬ হাজার ২১২ দশমিক ৭৭ পয়েন্টে। নির্বাচিত কোম্পানির সূচক ডিএস-৩০ সপ্তাহের ব্যবধানে ২৬ দশমিক ৬৯ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ১৯ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ২৭৪ দশমিক ৯১ পয়েন্টে, যা আগের সপ্তাহ শেষে ছিল ২ হাজার ২১২ দশমিক ৭৭ পয়েন্টে। ডিএসইর শরিয়াহ সূচক ডিএসইএস ১৭ দশমিক ৮১ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৩৩ শতংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৩৫৯ দশমিক ৩৬ পয়েন্টে, যা আগের সপ্তাহে ছিল ১ হাজার ৩৪১ দশমিক ৫৫ পয়েন্টে। গত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৮১ কোম্পানি, মিউচুয়াল ফান্ড ও করপোরেট বন্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ২৬৭টির, কমেছে ৯৪টির, অপরিবর্তিত রয়েছে ১৬টির আর লেনদেন হয়নি ৪টির। দেশের আরেক পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) গত সপ্তাহে লেনদেন শুরুর আগে বাজার মূলধন ছিল ৪ লাখ ৪১ হাজার ১১ কোটি ৩৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা। যা সপ্তাহজুড়ে লেনদেন শেষে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ৪৮ হাজার ৮৯৪ কোটি ৩২ লাখ ৯০ হাজার টাকা। অর্থাৎ সপ্তাহ শেষে চার কার্যদিবসে সিএসইর বাজার মূলধন বেড়েছে ৭ হাজার ৮৮২ কোটি ৯৯ লাখ ৬০ হাজার টাকা বা ১ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

সিএসইতে গত সপ্তাহের চার কার্যদিবসে মোট লেনদেন হয়েছে ২৪৩ কোটি ৪০ লাখ ১২ হাজার ২২২ টাকার। আগের সপ্তাহের চার কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ২৮৬ কোটি ৩ লাখ ৭৩ হাজার ৯৪০ টাকার। সেই হিসাবে সপ্তাহের ব্যবধানে সিএসইতে লেনদেন কমেছে ৪২ কোটি ৬৩ লাখ ৬১ হাজার ৭১৮ টাকা বা ১৪ দশমিক ৯০ শতাংশ।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

শেয়ারবাজার
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close