• মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২২, ৪ মাঘ ১৪২৮
  • ||

অক্সিজেনের চাহিদা দ্বিগুণ, সরবরাহ করাই বড় চ্যালেঞ্জ

প্রকাশ:  ২১ এপ্রিল ২০২১, ২৩:১৬
নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশের করোনা পরিস্থিতি যতই খারাপের দিকে যাচ্ছে ততই সংকট বাড়ছে মেডিক্যাল অক্সিজেনের। সরবরাহে হিমশিম খাচ্ছে উৎপাদক ও খুচরা বিক্রেতারা। করতে হচ্ছে আমদানিও। শিল্প-কারখানায় অক্সিজেন সরবরাহ অনেকে বন্ধ করার কথা জানালেও সেখানকার চাহিদাও ভূমিকা রাখছে চলমান সংকটে।

হাসপাতাল সূত্র বলছে, গত বছরের তুলনায় এ বছর করোনা সংক্রমণ অনেক বেশি বেড়ে যাওয়ায় এবং নতুন স্ট্রেইনগুলো অতি মাত্রায় সংক্রামক হওয়ায় রোগীদের ফুসফুস মারাত্মকভাবে আক্রান্ত হচ্ছে। অনেকেরই তীব্র শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দিচ্ছে। ফলে বেশি সংখ্যক রোগীকে অক্সিজেন দিতে হচ্ছে।

তারা আরও জানান, গুরুতর অসুস্থদের জীবন বাঁচাতে অক্সিজেন সরবরাহ নিরবচ্ছিন্ন রাখা অত্যন্ত জরুরি। বেশিরভাগ রোগীই তীব্র শ্বাসকষ্ট নিয়ে আসছেন এবং তাদের হাই-ফ্লো নজেল ক্যানুলার মাধ্যমে অক্সিজেন দিতে হচ্ছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, সরকারি হাসপাতালগুলোতে অক্সিজেন সরবরাহ নিরবচ্ছিন্ন রাখতে প্রতিদিন প্রায় এক হাজার টন অক্সিজেন প্রয়োজন। এ অক্সিজেনের ৯০ শতাংশই সরবরাহ করে লিন্ডে বাংলাদেশ লিমিটেড নামের একটি বহুজাতিক কোম্পানি। বাকিটা সরবরাহ করে ইসলাম অক্সিজেন লিমিটেড ও স্পেকট্রা অক্সিজেন লিমিটেড।

লিন্ডে বাংলাদেশের মুখপাত্র সাইকা মাজেদ বলেন, ‘কোভিড হাসপাতালগুলোতে মেডিকেল অক্সিজেনের চাহিদা বেড়ে প্রায় দ্বিগুণ হয়ে গেছে। এই চাহিদা মেটাতে আমরা এখন শিল্পজাত অক্সিজেনের চেয়ে মেডিকেল অক্সিজেন উৎপাদনকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছি।’

তিনি জানান, লিন্ডে বাংলাদেশ দেশের সবগুলো সরকারি হাসপাতালেই অক্সিজেন সরবরাহ করে। পাশাপাশি নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রগুলোতে (আইসিইউ) নিরবচ্ছিন্ন অক্সিজেন দরকার হয়, এমন কিছু বড় বেসরকারি হাসপাতালেও অক্সিজেন সরবরাহ করে।

লিন্ডে বাংলাদেশের অক্সিজেনের ঘাটতি আছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এক অর্থে, কিছু ঘাটতি তো আমাদের আছেই।’

সাইকা মাজেদ বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ ও চট্টগ্রামে আমাদের দুটি অক্সিজেন প্ল্যান্ট আছে। এগুলো থেকে প্রতিদিন ৯০ টন অক্সিজেন উৎপাদিত হয়। আগে মেডিকেল ও শিল্পজাত অক্সিজেনের অনুপাত ছিল প্রায় ৬০:৪০। শিল্পজাত অক্সিজেনের চাহিদা আগের মতো থাকলেও মেডিকেল অক্সিজেনের চাহিদা ৮০ শতাংশ পর্যন্ত বেড়ে গেছে। ফলে অনুপাত হয়ে গেছে ৮০:২০। এ কারণে আমরা শিল্পজাত অক্সিজেনের উৎপাদন কমিয়ে মেডিকেল অক্সিজেন উৎপাদনকে প্রাধান্য দিচ্ছি।’

ভারতেও লিন্ডে বাংলাদেশের একটা অক্সিজেন প্ল্যান্ট রয়েছে। সেখান থেকে ট্যাংকারে করে অক্সিজেন এনে বাংলাদেশের হাসপাতালগুলোতে সরবরাহ করা হচ্ছে।

পিপি/জেআর

অক্সিজেন
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close