• মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯
  • ||

সংসদের অধিবেশন বসছে বৃহস্পতিবার

প্রকাশ:  ৩১ মার্চ ২০২১, ১৫:৩০
নিজস্ব প্রতিবেদক

একাদশ জাতীয় সংসদের দ্বাদশ অধিবেশন বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) বেলা ১১টায় শুরু হচ্ছে। করোনা পরিস্থিতিতে এবারো যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ অধিবেশন চলবে।

সংসদের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, সংক্ষিপ্ত এই অধিবেশন চলবে ১, ৩ ও ৪ এপ্রিল। বরাবরের মতো এবারো কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে অধিবেশন চলবে। অধিবেশনে যোগ দিতে হলে সংসদ সদস্যদের করোনা টেস্ট করতে হবে। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরও করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়ে সংসদে প্রবেশ করতে হবে।

এই সংসদ অধিবেশন নির্বিঘ্ন করতে কিছু নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে ৩১ মার্চ রাত ১২টা থেকে সব ধরনের অস্ত্র, বিস্ফোরক দ্রব্য, অন্যান্য ক্ষতিকারক ও দূষণীয় দ্রব্য বহন এবং যেকোনো প্রকার সমাবেশ, মিছিল, শোভাযাত্রা, বিক্ষোভ প্রদর্শন ইত্যাদি নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

চলমান করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে অধিবেশন কভার করতেও সংসদে ঢুকতে পারবেন না সাংবাদিকরা। অধিবেশন চলার সময় ছাড়া অন্য যেকোনো সময় সেখানে সাংবাদিকদের প্রবেশে কোনো বাধা নেই।

সংসদের গণসংযোগ অধিশাখার পরিচালক মো. তারিক মাহমুদ স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত এক চিঠিতে এ তথ্য জানানো হয়।

চিঠিতে তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় একাদশ জাতীয় সংসদের দ্বাদশ অধিবেশন শুরু হবে। আপনারা দীর্ঘদিন ধরে জাতীয় সংসদে উপস্থিত থেকে দায়িত্বশীলতার সঙ্গে সংসদ অধিবেশন কাভার করে আসছেন। কিন্তু করোনা মহামারির এই বিশেষ পরিস্থিতিতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে দ্বাদশ অধিবেশনেও জাতীয় সংসদ সচিবালয় সাংবাদিকদের কার্ড ইস্যু করছে না।

তিনি বলেন, এমতাবস্থায় বাংলাদেশ টেলিভিশন বা সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশন বা বাংলাদেশ বেতার থেকে ফিড নিয়ে জাতীয় সংসদের কার্যক্রম কাভার করার অনুরোধ করছি।

অধিবেশনের কার্যক্রম শেষ হওয়ার পর জাতীয় সংসদের মূল ভবনে প্রবেশে ইচ্ছুক সাংবাদিকরা কোভিড-১৯ নেগেটিভ রিপোর্ট সাপেক্ষে অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড দিয়ে ঢুকতে পারবেন। সেজন্য সাংবাদিকদের সংসদ সচিবালয় মেডিকেল সেন্টার থেকে কোভিড-১৯ টেস্ট করানোর জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, করোনাকালীন অধিবেশনগুলোতে বিশেষ দিন ছাড়া সাংবাদিকদের প্রবেশ নিষিদ্ধ রয়েছে। এর আগে সংসদের একাদশ ও শীতকালীন অধিবেশন ১৮ জানুয়ারি শুরু হয়েছিলো। এটি শেষ হয় ২ ফেব্রুয়ারি। এই অধিবেশনের কার্যদিবস ছিলো ১২টি। সংবিধান অনুযায়ী একটি অধিবেশন শেষ হওয়ার ৬০ দিনের মধ্যে আরেকটি অধিবেশন বসতে হয়।

পূর্বপশ্চিমবিডি/অ-ভি

অধিবেশন,সংসদ,করোনাভাইরাস,চিঠি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close