• শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ২০ ফাল্গুন ১৪২৭
  • ||

২৪ ঘণ্টায় টিকা নিয়েছেন আড়াই লাখেরও বেশি মানুষ

প্রকাশ:  ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২০:৪৫
নিজস্ব প্রতিবেদক
রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে জাতীয় ক্রিকেট দলের পেসার তাসকিন আহমেদ করোনার টিকা গ্রহণ করেন। ছবি: পিআইডি

দেশব্যাপী চলমান টিকাদান কর্মসূচিতে গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে করোনার টিকা নিয়েছেন দুই লাখ ৬১ হাজার ৯৪৫ জন। যাদের মধ্যে পুরুষ এক লাখ ৬৪ হাজার ৯৩৬ জন এবং নারী ৯৭ হাজার নয়জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বৃহস্পতিবার বলা হয়েছে, দেশের এক হাজার ৪০০ টিকাদান কেন্দ্র থেকে প্রতিদিন ৩ লাখ ৬০ হাজার টিকা দানের সক্ষমতা রয়েছে। গত ২৭ জানুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত সারা দেশে করোনার টিকা নিয়েছেন ১৮ লাখ ৪৮ হাজার ৩১৩ জন। যাদের মধ্যে পুরুষ ১২ লাখ ৩৩ হাজার ৬৫৫ জন এবং নারী ছয় লাখ ১৪ হাজার ৬৫৮ জন।

এদিকে, রাজধানী ঢাকার ৪৬টি টিকাদান কেন্দ্রে গত ২৪ ঘণ্টায় মোট ৩২ হাজার ৪১২ জনকে টিকা দেয়া হয়েছে। অন্যদিকে, এখন পর্যন্ত মোট দুই লাখ ৪৫ হাজার ৮২৮ জনকে টিকা দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে এক লাখ ৬৪ হাজার ৯৬০ জন পুরুষ এবং ৮০ হাজার ৮৬৮ জন নারী রয়েছেন।

এর আগে, মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে গত ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে দেশে ব্যাপকভাবে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।

রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতালসহ সারা দেশের এক হাজার পাঁচটি হাসপাতালে কোভিড-১৯ টিকা দেয়া হচ্ছে।

ভারতের উপহার হিসেবে সেরাম ইনস্টিটিউটের তৈরি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিশিল্ড টিকার ২০ লাখ ডোজ গত ২১ জানুয়ারি বাংলাদেশে এসে পৌঁছে। এরপর ২৫ জানুয়ারি সেরাম থেকে বাংলাদেশের ক্রয় করা কোভিশিল্ডের প্রথম চালানের ৫০ লাখ ডোজ নিরাপদে ঢাকায় আসে। করোনার টিকা নিতে চাইলে www.surokkha.gov.bd ওয়েবসাইটে গিয়ে নিবন্ধন করতে হবে।

গত ২৭ জানুয়ারি গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে পরীক্ষামূলক টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর ভার্চুয়াল উপস্থিতিতে পাঁচজনকে টিকা দেয়া হয়।

দেশে করোনা পরিস্থিতি

দেশে ২৪ ঘণ্টায় প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে মৃত্যু ও শনাক্ত কমেছে বলে বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনা সংক্রান্ত নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে আট হাজার ৩২৯ জনে দাঁড়িয়েছে।

এছাড়া, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৯১ জনের শরীরে নতুন করে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। যার ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা পাঁচ লাখ ৪২ হাজার ২৬৮ জনে পৌঁছেছে।

এর আগে বুধবার অধিদপ্তর জানায়, আগের ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে ১৬ জনের মৃত্যু এবং ৪৪৩ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

সারা দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪ হাজার ৭৪২টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে অ্যান্টিজেন টেস্টসহ গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪ হাজার ৬০৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় মোট ৩৯ লাখ ৮ হাজার ২৫৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২.৬৮ শতাংশ। মোট পরীক্ষায় এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৮৭ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় মোট মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৫৩ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন আরও ৬৭৮ জন। এ নিয়ে দেশে মোট সুস্থ ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চার লাখ ৮৯ হাজার ৯৩২ জনে। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯০ দশমিক ৩৫ শতাংশ।

গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর ১৮ মার্চ প্রথম একজনের মৃত্যুর কথা জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

করোনাভাইরাস
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
cdbl
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close