• বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১৩ কার্তিক ১৪২৭
  • ||

টিকিটের জন্য আজও সৌদি প্রবাসীদের বিক্ষোভ

প্রকাশ:  ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪:৫৩
নিজস্ব প্রতিবেদক

ভিসা জটিলতার আশঙ্কায় দ্রুত কর্মক্ষেত্রে ফিরতে সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্সের টিকিটের টোকেনের দাবিতে রাজধানীর কারওরানবাজার এলাকায় জড়ো হয়ে আজও বিক্ষোভ করেছে সৌদি প্রবাসীরা। শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকাল পৌনে ১০টা থেকে হোটেল সোনারগাঁওয়ের সামনে বিক্ষোভ করেন প্রবাসীরা। বিক্ষোভের ফলে কারওরানবাজার ও বাংলামোটরের উভয় পাশে যানজট সৃষ্টি হয়।

কয়েক শত সৌদি প্রবাসী শ্রমিকরা ফেরার টিকিটের দাবিতে পঞ্চম দিনের মতো রাস্তায় নামেন শনিবার। টিকিটের আশায় কারওয়ান বাজারের সোনারগাঁও হোটেলের পাশে সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্স এবং মতিঝিলে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের অফিসের সামনে অবস্থান নেন তারা।

সম্পর্কিত খবর

    সকাল থেকে সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্সের কাউন্টার থেকে ৮৫১ থেকে ১২০০ নম্বর টোকেনধারীদের ফেরার টিকিট দেওয়া হচ্ছে। রবিবার ১২০১ থেকে ১৫০০ নম্বর টোকেনধারীদের টিকিট দেওয়া হবে। যারা টোকেন পাননি, তাদের ২৯ সেপ্টেম্বর আসতে বলা হয়েছে।

    এই সময় পর্যন্ত সৌদি আরব যেতে নতুন টিকিট বিক্রি করবে সৌদি এয়ারলাইন্স। তবে কাজের ফিরতে চান কিন্তু এখনো টোকেন পাননি এমন টিকিট প্রত্যাশীরাও কাউন্টারে ভিড় করে টোকেন দেওয়ার দাবি জানাচ্ছেন। এক পর্যায়ে টোকেনের দাবিতে সকাল ১১টার দিকে কারওয়ান বাজারে সার্ক ফোয়ারার দু'পাশে সড়ক অবরোধ করেন তারা। পরে পুলিশ এসে বুঝিয়ে তাদের সড়ক থেকে উঠিয়ে দেয়। সোনারগা্ঁও হোটেলের গেটের সামনে হাজার খানেক মানুষ অবস্থান করছেন।

    অন্যদিকে মতিঝিলে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের অফিসের সামনেও কয়েক হাজার মানুষ ভিড় করেছেন টিকিটের জন্য। ১৬, ১৭, ১৮, ১৯ ও ২০ মার্চের ফিরতি টিকিট যাদের ছিল, শনিবার তাদের ২৯ ও ৩০ সেপ্টেম্বরের টিকিট দেওয়া হচ্ছে। তবে ওই পাঁচদিনের দিনের ফিরতি টিকিটধারীদের বাইরেও অনেকে টিকিটের জন্য ভিড় করেছেন। এতে সেখানে চরম বিশৃঙ্খলতা দেখা দিয়েছে। করোনাভাইরাসের মহামারির কারণে বিমান যোগাযোগ দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল। এই সময়ে ছুটিতে দেশে এসে আটকা পড়েছেন প্রায় দুই লাখ প্রবাসী কর্মী। তাদের মধ্যে প্রায় ৮০ হাজার সৌদিপ্রবাসী ফিরতি টিকিট নিয়ে দেশে এসেছেন। কিন্তু করোনায় আটকে যান। তিন দফায় সাত মাস তাদের ভিসা ও আকামার মেয়াদ বাড়ায় সৌদি সরকার। আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর আকামার মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও সেই মেয়াদ ২৪ দিন বাড়ায় সৌদি। ভিসা ও কাজে ফেরার সময়সীমা (এক্সিট রি-অ্যান্ট্রি) বাড়াতে সম্মত হয়েছে রিয়াদ।

    বিক্ষোভরত প্রবাসীরা জানান, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সৌদি আরবে যেতে না পারলে তাদের চাকরি হারাতে হবে। কিন্তু তারা সৌদি এয়ারলাইন্সের টিকিট পাচ্ছেন না। প্লেনের কৃত্রিম সংকটের অভিযোগও তোলেন তারা।

    জানা গেছে, করোনাভাইরাস মহামারিতে নিজ দেশে আটকা পড়া সৌদি আরবে কর্মরত বিদেশি কর্মীদের আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ফেরার বাধ্যবাধকতা দিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। এরপর থেকে দেশে আটকা পড়া বহু প্রবাসী টিকিটের জন্য হন্যে হয়ে ঘুরছেন। অনেকের ফিরতি প্লেনের টিকিট থাকলেও সেটিও পাচ্ছেন না। ফলে বাধ্য হয়ে রাস্তায় নামেন প্রবাসীরা।

    পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন শুক্রবারও বলেছেন, দুশ্চিন্তার কারণ নেই। ছুটিতে এসে আটকেপড়া সবাই সৌদি আরব যেতে পারবেন। এ জন্য সৌদি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করা হচ্ছে। কারও ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও আকামা থাকলে তাদের আবার ভিসা দেওয়া হবে। শুক্রবার সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্সের কাউন্টার থেকে ৫০১ থেকে ৮৫০ নম্বর টোকেনধারী ৩৫০ জনের সৌদি ফেরার টিকিট নিশ্চিত করা হয়। এদিন যারাই টিকিট পেয়েছেন, তাদের গন্তব্য ছিল মহাখালী ডিএনসিসি মার্কেটের করোনা পরীক্ষাকেন্দ্রে। শনিবারও যারাই টিকিট পাচ্ছেন তারাই ছুটে যাচ্ছেন করোনা পরীক্ষা করাতে।

    পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

    মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
    cdbl
    • সর্বশেষ
    • সর্বাধিক পঠিত
    close