• বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১৭ আশ্বিন ১৪২৭
  • ||

রাতে বন্ধ থাকবে ‘ডিএসই মোবাইল’ অ্যাপস

প্রকাশ:  ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:১৪
নিজস্ব প্রতিবেদক
সংগৃহীত

সাইবার হামলার আশঙ্কায় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) মোবাইল অ্যাপভিত্তিক লেনদেন প্লাটফর্ম ‘ডিএসই মোবাইল’ সার্বক্ষণিক চালু না রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এখন থেকে শুধু লেনদেন কার্যদিবসে সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত অ্যাপসটিতে বিনিয়োগকারীরা লগড-ইন করতে পারবেন। বিনিয়োগকারীদের লেনদেন নিরাপদ রাখতে রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) ডিএসই কর্তৃপক্ষ এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে, যা স্টক এক্সচেঞ্জের ওয়েবসাইটে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ডিএসই কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ডিএসই মোবাইল অ্যাপ ব্যবহারকারীরা শুধু লেনদেন কার্যদিবসে সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারবেন। অন্য সময়ে অ্যাপসটি বন্ধ থাকবে। এছাড়া শুক্র ও শনিবার ছাড়াও সরকারি অন্যান্য ছুটির দিনেও অ্যাপসটি অপাতত বন্ধ থাকবে। অর্থাৎ লেনদেন কার্যদিবসে সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত ছাড়া অন্য সব সময় অ্যাপসটিতে লগড-ইন করা যাবে না। এক্সচেঞ্জ, বিনিয়োগকারী এবং জাতীয় বৃহৎ স্বার্থে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে ডিএসই কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে এলে বিনিয়োগকারীরা আবার ডিএসই মোবাইল অ্যাপ স্বাভাবিকভাবে ব্যবহার করতে পারবেন বলেও জানিয়েছে ডিএসই।

সম্পর্কিত খবর

    অবশ্য ডিএসই মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে সিকিউরিটিজ কেনাবেচা করা গেলেও এর মাধ্যমে নিবন্ধনকারীদের অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

    ২০১৬ সালের ৯ মার্চ থেকে চালু হওয়ার পর থেকে বিনামূল্যে ট্রেকহোল্ডারদের মাধ্যমে গ্রাহকদের ডিএসই মোবাইল অ্যাপস সেবা দিয়ে আসছে। অ্যাপসটি ব্যবহারকারীদের সরাসরি সিকিউরিটিজ লেনদেনের আদেশ দেওয়ার অনুমতি দেয়, তবে কোনো অস্বাভাবিক ক্রয়-বিক্রয়াদেশ থাকলে ট্রেডার ও ব্রোকার তা বাতিল করতে পারে। অ্যাপসটিতে নিবন্ধনকারীরা দিনের যেকোনো সময়ে তাদের পোর্টফোলিও দেখতে পারতেন। তালিকাভুক্ত যেকোনো সিকিউরিটিজের এক বছরের দরের ওঠা-নামাও দেখা যায়। বিনিয়োগ করা সিকিউরিটিজে তাৎক্ষণিক লাভ-লোকসানের তথ্যও দেখা যায়। তবে এখন নির্ধারিত সময় ছাড়া ডিএসই মোবাইল অ্যাপসে প্রবেশ করা যাবে না।

    ডিএসই ইনভেস্টর ও ডিএসই-মোবাইল ট্রেডার নামে অ্যাপ্লিকেশনটির দুটি ট্রেডিং সংস্করণ রয়েছে। এর বাইরে ডিএসই-মোবাইল ভিআইপি নামে একটি নন-ট্রেডিং সংস্করণ রয়েছে। গতকাল পর্যন্ত ডিএসই মোবাইল অ্যাপসে নিবন্ধনকারীর সংখ্যা ছিল ৩৩ হাজার ৩৯৭ জন। এই অ্যাপসে গতকাল ১৭ হাজার ১৬০ জন লগড-ইন ছিলেন। গতকাল ডিএসই মোবাইল ও ডিএসই ইনভেস্টরের মাধ্যমে মোট ৫৮ হাজার ৩২৯টি ট্রেড সম্পন্ন হয়।

    সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে তথ্য আসে, বিগল বয়েজ নামে উত্তর কোরিয়ার একটি হ্যাকার গ্রুপ ব্যাংকগুলোতে সাইবার হামলা চালাতে পারে। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ২৭ আগস্ট ব্যাংকগুলোকে সতর্ক থাকার জন্য চিঠি দেওয়া হয়। একই সঙ্গে আরোপ করা হয় বাড়তি সতর্কতা, যা এখনো অব্যাহত রয়েছে। এরই অংশ হিসেবে অনেক ব্যাংক রাতে তাদের এটিএম সেবা বন্ধ রাখছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে বলেও ব্যাংকগুলোর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

    ২০১৬ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউ ইয়র্কে রক্ষিত বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে ৮ কোটি ১০ লাখ মার্কিন ডলার চুরি হয়। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এই অর্থ চুরিতেও উত্তর কোরিয়ার একটি চক্র জড়িত ছিল বলে এরই মধ্যে এফবিআইয়ের তদন্তে বেরিয়ে আসে।

    বিশ্বব্যাপী ব্যাংকগুলো নিজেদের মধ্যে লেনদেন করতে সোসাইটি ফর ওয়ার্ল্ডওয়াইড ইন্টার ব্যাংক ফিন্যান্সিয়াল টেলিকমিউনিকেশন বা সুইফট নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে। বিশেষ ধরনের বার্তা প্রেরণের মাধ্যমে এই লেনদেন করা হয়। রিজার্ভ চুরির ক্ষেত্রে চক্রটি ম্যালওয়্যারের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সুইফট নেটওয়ার্কের সঙ্গে যুক্ত কম্পিউটারের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছিল।

    জানা গেছে, করোনাভাইরাসের কারণে সুইফট নেটওয়ার্ক বন্ধ আছে মর্মে প্রকৃত কোম্পানির ছদ্মবেশ ধরে একই নাম, ওয়েবসাইট, ই-মেইল ঠিকানা ব্যবহার করে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার কৌশল অবলম্বন করছে প্রতারকরা।

    পূর্বপশ্চিমবিডি/ এনএন

    ডিএসই মোবাইল
    মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
    cdbl
    • সর্বশেষ
    • সর্বাধিক পঠিত
    close