• বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭
  • ||

৫ আগস্টের মধ্যে চট্টগ্রামে নির্বাচন সম্ভব নয় : ইসি

প্রকাশ:  ১৪ জুলাই ২০২০, ১৮:৩৮ | আপডেট : ১৪ জুলাই ২০২০, ১৮:৪০
নিজস্ব প্রতিবেদক

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে অনুষ্ঠিত হচ্ছে না চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের নির্বাচন। নির্বাচন কমিশন (ইসি) চলমান করোনা পরিস্থিতি এবং পাহাড় ধসের আশঙ্কায় নির্ধারিত সময়ের মধ্যে (৫ আগস্ট) ভোট করতে পারবে না বলে স্থানীয় সরকার বিভাগকে জানিয়ে দিয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের বর্তমান মেয়াদ শেষ হলেই প্রশাসক নিয়োগ করবে সরকার।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, কমিশনের উপসচিব আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত ভোট করতে না পারার সিদ্ধান্তের একটি চিঠি মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিবকে পাঠানো হয়েছে।

সিটি করপোরেশনের আইন অনুযায়ী, মেয়াদ শেষ হওয়ার পূর্ববর্তী ১৮০ দিনের মধ্যে ভোট অনুষ্ঠানের কথা রয়েছে। আগামী ৫ আগস্ট চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়াদ শেষ হবে।

অবশ্য এই সময়ের মধ্যে নির্বাচন করার লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন আগেই চট্টগ্রাম সিটি কমিশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছিল। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী গত ২৯ মার্চ ছিল ভোটের দিন। কিন্তু এরই আগে দেশে করোনা প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়ায় ওই নির্বাচন স্থগিত করা হয়। ওই একই দিনে বগুড়া-১ এবং যশোর-৬ আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা ছিল। তখন ওই নির্বাচন দুটিও স্থগিত করা হয়েছিল। তবে সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার কারণে করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও আজ ১৪ জুলাই ওই দুটি আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হলো।

নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে স্থানীয় সরকার বিভাগে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়েছে, দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণজনিত কারণে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ২৯ মার্চ ২০২০ তারিখে নির্ধারিত চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছিল। বর্তমানে করোনা পরিস্থিতি অব্যাহত থাকায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবং অতিবৃষ্টি ও পাহাড় ধ্বসের আশঙ্কা বিবেচনায় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়াদকালের মধ্যে অর্থাৎ ৫ আগস্ট ২০১০ তারিখের মধ্যে নির্বাচন আয়োজন করা সম্ভব হবে না বলে নির্বাচন কমিশন সিদ্ধান্ত প্রদান করেছে। বিষয়টি নির্দেশক্রমে অবহিত করা হলো।

সিটি করপোরেশন আইন অনুযায়ী, মেয়াদ শেষ হওয়ার পর সঙ্গে সঙ্গে করপোরেশন ভেঙে যাবে। এক্ষেত্রে ওই করপোরেশনে প্রশাসক নিয়োগ করা হবে।

আইনে বলা আছে, কোনও নতুন সিটি করপোরেশন প্রতিষ্ঠা করা হলে, অথবা কোনও সিটি করপোরেশন বিভক্ত করা হলে, অথবা কোনও সিটি করপোরেশন মেয়াদোত্তীর্ণ হলে সরকার সিটি করপোরেশন গঠিত না হওয়া পর্যন্ত তার কার্যাবলী সম্পাদনের উদ্দেশ্যে একজন উপযুক্ত ব্যক্তি বা প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিযুক্ত কর্মকর্তাকে প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ প্রদান করতে পারবে।

নির্বাচন কমিশনের চিঠি পাওয়ার বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘আমরা কমিশনের চিঠি পেয়েছি। নির্ধারিত সময় শেষ হলে আমরা আইন অনুযায়ী চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে প্রশাসক নিয়োগ দিতে পারবো।’

পূর্বপশ্চিমবিডি/জেআর

চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচন
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close