• বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭
  • ||

করোনাকালের উপনির্বাচন, ভোট দিয়ে ফের লাইনে একই মুখ

প্রকাশ:  ১৪ জুলাই ২০২০, ১৪:৫২
নিজস্ব প্রতিবেদক

বগুড়া-১ ও যশোর-৬ আসনের উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে, চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। কেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতি অনেক কম। কয়েকটি কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি প্রমাণে কৃত্রিম লাইন তৈরি করা হয়েছে। ভোট দিয়ে এসে একই ব্যক্তি আবারও লাইনে এসে দাঁড়াচ্ছেন।

সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা থাকায় করোনা ও বন্যা পরিস্থিতির মধ্যেও নির্বাচন করতে হচ্ছে বলে দাবি করছে নির্বাচন কমিশন। এ উপলক্ষে নির্বাচনী এলাকায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

বগুড়া-১ (সারিয়াকান্দি-সোনাতলা) আসনে উপনির্বাচনে বেলা ১১টা পর্যন্ত ৩টি কেন্দ্র ঘুরে যে তথ্য পাওয়া গেছে তাতে দেখা যায় ভোট পড়েছে গড়ে ১২ শতাংশ। বেশিরভাগ কেন্দ্রেই স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। জেলার সোনাতলা উপজেলার সুখানপুকুর উচ্চ বিদ্যালয়ের কেন্দ্রে কৃত্রিমভাবে ভোটারদের লাইন তৈরি করা হয়েছে। সকাল থেকেই একই মুখ সেখানে লাইন ধরে দাঁড়িয়ে রয়েছেন। কেউ কেউ ভোট দিয়ে এসে ফের লাইনে দাঁড়াচ্ছেন। এই ভোট কেন্দ্রর প্রিজাইডিং অফিসার শহীদুল ইসলাম জানান, তার কেন্দ্রের ৪ হাজার ১৮৯ ভোটারের মধ্যে ১১টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ২৫৬টি।

বগুড়া-১ আসনে ১২৩টি ভোটকেন্দ্র। সারিয়াকান্দি ও সোনাতলা এ দুই উপজেলা নিয়ে গঠিত আসনটিতে তিন লাখ ৩০ হাজার ৯১৮ জন ভোটারের মধ্যে সারিয়াকান্দি উপজেলায় এক লাখ ৭৭ হাজার ৩৫২ জন ও সোনাতলা উপজেলায় এক লাখ ৫৩ হাজার ৫৬৬ জন। মোট ভোটারের মধ্যে পুরুষ এক লাখ ৬২ হাজার ৩৩২ জন ও নারী এক লাখ ৬৮ হাজার ৫৮৬ জন।

এ উপনির্বাচনে বিএনপি অংশ নিচ্ছে না। তবে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টিসহ ৫ প্রার্থী এতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সাহাদারা মান্নান (নৌকা), জাতীয় পার্টির অধ্যক্ষ মোকছেদুল আলম (লাঙ্গল), প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের (পিডিপি) মোহাম্মদ রনি (বাঘ), বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের নজরুল ইসলাম (বটগাছ) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ইয়াসির রহমতুল্লাহ ইন্তাজ (ট্রাক)।

যশোর-৬ আসনের উপনির্বাচনের ভোট কেন্দ্রগুলোতেও ভোটারদের উপস্থিতি নেই। নিয়মরক্ষার এ উপনির্বাচন নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে কোনো আগ্রহ নেই। এ আসনের রিটার্নিং কর্মকর্তা জ্যেষ্ঠ জেলা নির্বাচন অফিসার হুমায়ুন কবির জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভোটগ্রহণ চলছে। সব কেন্দ্রে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করার জন্য ব্যানার রাখা হয়েছে।

কেশবপুরের সাগরদাড়ি ইউনিয়েনের চিংলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র ঘুরে দেখা যায়, মঙ্গলবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত সেখানে ২৮ শতাংশ ভোট পড়েছে।

কেশবপুর উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা নিয়ে যশোর-৬, কেশবপুর সংসদীয় আসন গঠিত। মোট ভোটার ২ লাখ ৩ হাজার ১৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ২ হাজার ১২২ জন ও নারী ভোটার ১ লাখ ৮৯৬ জন। মোট ভোটকেন্দ্র ৭৯টি ও বুথ ৩৭৪টি। ৭৯ জন প্রিজাইটিং অফিসার, ৩৭৪ জন সহকারি প্রিজাইটিং অফিসার ও ৭৪৮ জন পোলিং অফিসার উপনির্বাচনে দায়িত্ব পালন করছেন বলে জানান উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. বজলুর রশীদ।

আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য ইসমাত আরা সাদেকের মৃত্যুতে যশোর-৬ আসন এবং একই দলের আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে বগুড়া-১ আসন শূন্য হয়।

পূর্বপশ্চিম-এনই

উপনির্বাচন,বগুড়া-১,যশোর-৬
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close