• শনিবার, ০৮ আগস্ট ২০২০, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭
  • ||

থাকা-খাওয়া ২০ কোটি, খতিয়ে দেখছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়

প্রকাশ:  ০২ জুলাই ২০২০, ১৮:১৮ | আপডেট : ০২ জুলাই ২০২০, ১৮:২১
নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে কোভিড চিকিৎসায় নিয়োজিতদের থাকা-খাওয়ায় ২০ কোটি টাকার বিলের বিষয়টি খতিয়ে দেখছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢামেক হাসপাতালে পরিদর্শনে গিয়ে এই কথা জানান স্বাস্থ্য সচিব মো. আ. মান্নান। এ সময় তিনি হাসপাতালের চিকিৎসা বিষয়ক সকল খোঁজখবর নেন।

পরিদর্শন শেষে হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় উপস্থিত সাংবাদিকদের সচিব বলেন, আপনারা এটাকে বলতে পারেন না যে অনিয়ম। এটা বড় কিছু না। বিষয়টি আমরা দেখছি এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে একটা নির্দেশনা দিয়েছে। এই পেমেন্টটা দেওয়ার আগে অভিযোগটি খতিয়ে দেখবে। আমরা একটা প্রতিবেদন চেয়েছি হাসপাতালটির পরিচালকের কাছে। ওভারওল তিনি একটা প্রতিবেদন তিনি দেবেন। এখানে কোন অনিয়ম হয়েছে কিনা আমরা তা দেখছি।

তিনি বলেন, এখানে কতজন করোনা আক্রান্ত রোগীর জন্য কতজন চিকিৎসক, নার্স, প্যাথোলজিস্ট, চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী, আনসার সদস্য আছেন তা দেখতে এসেছি। এখানকার রোগীরা, চিকিৎসক, নার্স, স্টাফ, টেকনিশিয়ানরা কেমন আছেন তাও দেখে গেলাম। মেডিকেল অফিসার থেকে শুরু করে অধ্যাপক পর্যন্ত প্রত্যেকের পরিসংখ্যান আমি নিয়েছি।

কোভিড-১৯ পরীক্ষার ফির বিষয়ে তিনি বলেন, এটা কি খুব বেশি? ২০০ টাকা মিনিমাম একটা বিষয়। অনেকেই একটু কাশি দিলেই হাসপাতালে আসে পরীক্ষা করতে। এটা যেন না হয় এ জন্যই এই ফি নির্ধারণ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, চিকিৎসকসহ সবার থাকা-খাওয়াসহ কোন বিষয় যেন সমস্যা না হয় সেগুলো আমরা দেখছি। চিকিৎসকদের হোটেলে না রাখতে পারলে যে ডরমিটরিগুলো আছে বিকল্প হিসেবে সেগুলো ব্যবহার করতে বলছি। তাতে সরকারের কিছু সাশ্রয় হবে। কোন জায়গাতেই শত ভাগ কিছু করা যাচ্ছে না। তবু আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি। যারা সমালোচনা করছে তারা কিন্তু কোনো কাজ করতে আসবে না। আমাদের পক্ষ থেকে যতটুকু সাপোর্ট দেওয়ার দরকার আমরা দিচ্ছি।


পূর্বপশ্চিমবিডি/জেআর

করোনা
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close