• সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ২৩ চৈত্র ১৪২৬
  • ||

সাময়িক সময়ের জন্য বিদ্যু‌তের দাম বাড়া‌নো হ‌চ্ছে: কাদের 

প্রকাশ:  ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২০:২৫ | আপডেট : ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২০:২৯
নিজস্ব প্রতিবেদক

বিদ্যু‌তের দাম বৃ‌দ্ধি সাম‌য়িক সম‌য়ের জন্য উল্লেখ করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, উৎপাদন খরচ মিলিয়ে বিদ্যুৎ ব্যবস্থাকে আরো আধু‌নিক ও আপনাদের কাছে সহজলভ্য করার জন্য বিদ্যুতের দাম কিছুটা বাড়া‌নো হ‌চ্ছে।

তিনি বলেন, আপনা‌দের কা‌ছে শতভাগ বিদ্যুৎ পৌঁছানোর জন্য একটু কষ্ট হবে। তারপরও বিদ্যুতের উপর সরকারকে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দিতে হবে। এই ভর্তুকি কমানোর জন্য, বিদ্যুত উৎপাদন করার জন্য সাময়িকভাবে দাম বাড়া‌নো হ‌চ্ছে। আমি আশা করি ঢাকাবাসী জনগণ এটা মেনে নেবেন।

শুক্রবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর হাতিরপুলে শহীদ সেলিম দেলোয়ার দিবসে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবা‌বে ওবায়দুল কা‌দের ব‌লেন, ‘আমি বলতে চাই আজকে বিদ্যুৎ, পানির জন্য আপনাদের সেবা পেতে কোনো অসুবিধা হচ্ছে না। পানি আর বিদ্যুতের সরবরাহ যা‌তে অব্যাহত থাকে এই মুজিববর্ষে।

তিনি বলেন, শতভাগ মানুষের কাছে বিদ্যুৎ পৌঁছানোর জন্য আপনাদের সাময়িক কষ্ট হবে। এতে আপনাদের ২৪ ঘণ্টা বিদ্যুৎ সরবরাহ চলবে, বিদ্যুতের কোন ঘাটতি হবে না।

বর্তমানে ৯৬ ভাগ মানুষ বিদ্যুৎ পাচ্ছেন জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, মুজিব বর্ষে ১০০ ভাগ মানুষ বিদ্যুৎ পাবেন। এটাই শেখ হাসিনার অঙ্গীকার।

বিএনপি আমলের কথা উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির আমলে ঘণ্টায় ঘণ্টায় লোডশেডিং হয়েছে। বিদ্যুৎহীন অন্ধকারে ছিলেন আপনারা। দিনের পর দিন বিদ্যুৎ-পানি থাকতো না। হঠাৎ করে বিদ্যুতের দাম বাড়িয়ে দিত বিএনপি সরকার।

দিল্লিতে চলমান সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ভারতের দিল্লি শহরে অভ্যন্তরীণ সংকট চলছে। একথা সত্য পাশের ঘরে আগুন লাগলে সে আগুন প্রতিবেশীর ঘরেও আসে। ভারত আমাদের বিশ্বস্ত প্রতিবেশী। তাদের সাথে আমাদের চমৎকার সম্পর্ক বিরাজ করছে। আমি ভারত সরকারকে বলব—দিল্লিতে যে রক্তপাত চলছে, তা আর না বাড়িয়ে অতি দ্রুত সমাধান করে নেবেন, এটাই আমরা বলতে পারি।

তিনি আরো বলেন, দিল্লিতে যে দাঙ্গা চলছে তার জন্য ১৯৭১ সালের সেই রক্তের অক্ষরে লেখা বন্ধুত্বকে আমরা বিসর্জন দিতে পারি না। মজিববর্ষের উৎসবে ভারতকে যদি আমরা আমন্ত্রণ না জানাই, এটা হবে অকৃতজ্ঞতা। কাজেই সেই দুঃসময়ের বন্ধুদের বাদ দিয়ে মুজিববর্ষের উৎসব আমরা পালন করতে পারি না। কাজেই মুজিব বর্ষের উৎসবে ভারত প্রতিনিধিত্ব করবে, এটা স্বাভাবিক বিষয়।

ভারত যাতে নিজেরা আলোচনা করে তাদের অভ্যন্তরীণ সমস্যা সমাধান করে, এ ব্যাপারে তাদের সরকারের প্রতি আমরা আহ্বান জানাব।

এ সময় নগরবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়ে সেতুমন্ত্রী আরো বলেন, ঢাকা সিটি নির্বাচনে আপনারা যে দুই মেয়রকে নির্বাচিত করেছেন তার জন্য আপনাদের আমরা ধন্যবাদ জানাই। নির্বাচনের পর দুই মেয়র শপথ নিয়েছেন। তারা দায়িত্ব নেওয়ার পরেই গণশুনানি করবেন। আপনাদের কাছে যাবেন, আপনাদের যা সমস্যা সেগুলো গণশুনানিতে তাদের জানাবেন। দুই মেয়র আপনাদের সমস্যার সমাধান করবেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী আজকে সততার সাথে দেশ চালাচ্ছেন। শেখ হাসিনা আছেন বলে অনেক শান্তি আছে। সন্ত্রাসীরা মানুষকে যা‌তে দুর্ভোগে ফেলতে না পারে কষ্ট দিতে না পারে সেজন্য শেখ হাসিনা আজকে অভিযান শুরু করেছেন। আমি আপনাদেরকে অনুরোধ করব আপনারা এই শুদ্ধি অভিযানে বঙ্গবন্ধু কন্যা‌কে সহযোগিতা করবেন। তিনি আজকে সারা দুনিয়াকে দেখিয়ে দি‌য়ে‌ছেন যে, তিনি নিজের দলের বিরুদ্ধে প্রথম শু‌দ্ধি অভিযান চালাচ্ছেন।

ডেঙ্গু প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সম্পাদক বলেন, ডেঙ্গু মশার কারণে গতবছর কিছুদিন অশান্তিতে কেটেছে। এবারের নতুন মেয়রদের শপথ গ্রহণের সময় শেখ হাসিনা বলে দিয়েছেন এই ভোট যেন মশা খেয়ে না ফেলে। এখন থেকে ডেঙ্গু মশার উপদ্রব হতে পারে। তাই এখন থেকে ঘরে ঘরে প্রস্তুতি নিতে হবে। নিজেরা প্রস্তুত হতে হবে, জনগণকে প্রস্তুত করতে হবে।

শহীদ সেলিম-দেলওয়ার স্মৃতি পরিষদের সভাপতি ড. আব্দুল ওয়াদুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দোয়া অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আব্দুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা ঐক্য মঞ্চের সভাপতি রুহুল আমিন মজুমদার, পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম এ আউয়াল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


পূর্বপশ্চিমবিডি/ওআর

কাদের,বিদ্যুত,আওয়ামী লীগ,রাজধানী
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close