• শনিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২০, ২১ চৈত্র ১৪২৬
  • ||

করোনা সন্দেহে যাত্রীর গোপন তথ্য প্রকাশে আইইডিসিআর’র উদ্বেগ

প্রকাশ:  ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২০:৫২ | আপডেট : ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২০:৫৪
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক
ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা

বিদেশ ফেরত যাত্রীকে করোনা ভাইরাস (কভিড-১৯) সংক্রমণ সন্দেহ করে তার গোপনীয়তা লংঘন করা অপরাধ বলে মনে করছে আইইডিসিআর।

বৃহস্পতিবার (২০ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় পাাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)-এর পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা উদ্বেগের সঙ্গে বলেছেন,

‘আমরা উদ্বেগের সাথে অবহিত হয়েছি যে, কোন এক স্থল বন্দরে দায়িত্বরত একজন কর্মকর্তা (স্বাস্থ্য বিভাগের নয়) বিদেশ থেকে আগত একজন যাত্রীকে কোভিড-১৯ সংক্রমিত সন্দেহ করে তাঁর ব্যক্তিগত পরিচয় সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশ করে দিয়েছেন। এ ধরনের অপেশাদার আচরণ শুধু নৈতিকতা বিরোধীই নয়, সংবেদনশীল সরকারী তথ্যের গোপনীয়তা লঙ্ঘন সংক্রান্ত সরকারি চাকরি বিধিরও লঙ্ঘন। কোন ব্যক্তি কোভিড-১৯ সংক্রমিত কিনা তা নিশ্চিত করার ও প্রকাশ করার সরকার নির্ধারিত প্রতিষ্ঠান হচ্ছে আইইডিসিআর। সংশ্লিষ্ট সকলকে আমরা এ বিষয়টি আবারো মনে করিয়ে দিচ্ছি। ’

তিনি বলেন, ‘কোভিড-১৯ শনাক্তের জন্য সকল পর্যায়ের সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা তথা সর্বস্তরের জনসাধারণের সক্রিয় সহযোগিতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু ভুল পদ্ধতিতে সহযোগিতা করতে গেলে তা শনাক্তকরণ প্রক্রিয়াকেই বিপন্ন করবে। কোভিড-১৯ সন্দেহভাজন ব্যক্তি নিজের ব্যক্তিগত ও সামাজিক নিরাপত্তা বিপন্ন হবার ভয়ে তার তথ্য ও অবস্থান গোপন করতে পারেন। এ ধরনের বিপজ্জনক পরিস্থিতি এড়াতে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধৈর্যশীল ও শান্ত পরিবেশে পেশাগত দক্ষতা ও আন্তরিকতা দিয়ে দায়িত্ব পালনের অনুরোধ করছি। যে কোন জিজ্ঞাস্য আইইডিসিআর কোভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণ কক্ষ কিংবা স্থানীয় সিভিল সার্জন বা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কাছ থেকে জেনে নিতে অনুরোধ জানচ্ছি।’

প্রফেসর ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, ‘সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে প্রেরিত সর্বশেষ খবরে আমরা জানতে পেরেছি যে, মোট ৫ জন বাংলাদেশের নাগরিক কোভিড-১৯ সংক্রমিত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তাদের মধ্যে এক জন আইসিইউতে আছেন। কোয়ারেন্টিনে আছেন ৫ জন বাংলাদেশের নাগরিক। সিঙ্গাপুরে সর্বমোট ৮৪ জন কোভিড-১৯ রোগী চিকিৎসাধীন, ১০৭৮ জনকে পরীক্ষা করে কোভিড-১৯ পাওয়া যায়নি, ২৯ জনের পরীক্ষার ফলাফল অপেক্ষাধীন। বাংলাদেশে সিঙ্গাপুরের দূতাবাস থেকেও আমাদেরকে সেদেশের পরিস্থিতি সম্পর্কে নিয়মিত অবহিত করা হচ্ছে।’

এদিকে করোনা ভাইরাস শনাক্তে বাংলাদেশকে কিট উপহার দিয়েছে চীন। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশে অবস্থিত চীন দূতাবাসের মাধ্যমে কোভিড-১৯ শনাক্তকরণের জন্য ৫০০ পিসিআর কিট আইইডিসিআরকে হস্তান্তর করা হয়। এ উপহারের জন্য আইইডিসিআরের পরিচালক স্থানীয় চীন দূতাবাসের মাধ্যমে সেদেশের সরকারকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

করোনাভাইরাস,যশোর
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close