• শনিবার, ২৮ মার্চ ২০২০, ১৪ চৈত্র ১৪২৬
  • ||

আজীবন রেশন পাবেন পুলিশ সদস্যরা

প্রকাশ:  ৩০ জানুয়ারি ২০২০, ১৮:২৮
নিজস্ব প্রতিবেদক

অবসরের পরও রেশন পাবেন পুলিশ সদস্যরা। পুলিশ সদস্যদের পরিবারের দুই সদস্যকে আজীবন রেশন সুবিধা দেয়ার দাবি ছিল দীর্ঘ দিনের। এর পরিপ্রেক্ষিতে তাদের আজীবন রেশন দেয়ার বিষয়ে ভাবছে সরকার।

সম্প্রতি এ-সংক্রান্ত প্রস্তাবে সম্মতি প্রদান করেছে অর্থ বিভাগ। অর্থ বিভাগের যুগ্মসচিব আশরাফ উদ্দীন আহম্মদ খান স্বাক্ষরিত সম্মতিপত্র স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিবের কাছে পাঠানো হয়েছে।

গত বছরের ২৬ ডিসেম্বর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে অর্থ মন্ত্রণালয়ে পুলিশ সদস্যদের আজীবন রেশন সুবিধা দেয়ার বিষয়ে চিঠি পাঠানো হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৩ জানুয়ারি অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের যুগ্ম সচিব আশরাফ উদ্দীন খান স্বাক্ষরিত একটি চিঠি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগে পাঠানো হয়।

চিঠিতে বলা হয়, ‘যে সকল পুলিশ সদস্য অবসরে যাবেন, তাদের পরিবারের মোট দুই সদস্যের আজীবন রেশন সুবিধা প্রদানের বিষয়ে অধিকতর পর্যালোচনার নিমিত্তে তথ্য প্রেরণের জন্য বলা হলো। ’

যেসব তথ্য জানতে চাওয়া হয়েছে, সেগুলো হলো- ‘বর্তমানে পুলিশ সদস্যদের রেশনে কোন কোন আইটেম কী পরিমাণে দেয়া হয় (তথ্য ছকসহ)? আইটেমওয়ারি রেশনমূল্য ও ভর্তুকির পরিমাণ কত? যারা অবসরে যাবেন, তাদের পরিবারের দুই সদস্যকে আজীবন কী হারে রেশন দেয়া হবে? আজীবন রেশন প্রদান করা হলে, এ খাতে বার্ষিক মোট কত টাকা ভর্তুকি দিতে হবে? এবং ভর্তুকি কোন খাত থেকে কীভাবে মিটানো হবে?

সম্মতিপত্রে বলা হয়, বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত পরিবারের মোট দুজন সদস্যকে সরকার কর্তৃক ভর্তুকিতে নিম্নবর্ণিত হারে ও শর্তে রেশন প্রদানে সম্মতি জ্ঞাপন করা হয়েছে।

অবসরপ্রাপ্ত পুলিশের দুই সদস্যবিশিষ্ট পরিবার মাসে ২০ কেজি চাল পাবে। একই সঙ্গে, প্রতিমাসে আটা ২০ কেজি, ভোজ্যতেল সাড়ে ৪ কেজি এবং ডাল ২ কেজি রেশন হিসেবে পাবে। তবে পরিবারের সদস্য সংখ্যা একজন হলে এর অর্ধেক হারে রেশন সুবিধা পাবেন।

তবে এজন্য বেশকিছু শর্ত জুড়ে দেয়া হয়েছে। এগুলো হচ্ছে-যে সকল পুলিশ সদস্য চলতি বছরের ১ জানুয়ারি বা পরবর্তী সময়ে অবসরে গিয়েছেন বা যাবেন তারা এ সুবিধা পাবেন। সন্তানদের ক্ষেত্রে এ সুবিধা ২১ বছর পর্যন্ত প্রযোজ্য হবে। অবিবাহিত কন্যা, প্রতিবন্ধী, স্ত্রী ও বিকলঙ্গ সন্তান আজীবন এ সুবিধা পাবেন।

পরিবারের সদস্য যা-ই হোক না কেন, শুধুমাত্র দুজন সদস্য এই সুবিধা পাবেন। স্বামী-স্ত্রী উভয়ই পুলিশ বাহিনীর সদস্য হলে অথবা ভিন্ন ভিন্ন রেশন সুবিধা সম্বলিত দফতর/সংস্থায় কর্মরত হলে তাদের যেকোনো একজন যতদিন কর্মরত থেকে পারিবারিক রেশন সুবিধা ভোগ করবেন ততদিন পর্যন্ত তাদের কেহ বা পরিবারের কোনো সদস্য অবসরকালীন রেশন সুবিধা পাবেন না।

এ বাবদ প্রয়োজনীয় ব্যয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের খাদ্য ভর্তুকি খাত থেকে মিটাতে হবে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে এ আদেশ জারি করতে হবে। আদেশ জারির তারিখ থেকে এটি কার্যকর হবে।

এদিকে, আজীবন রেশন সুবিধা পাওয়ার খবরে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন মাঠ পর্যায়ের পুলিশ সদস্যরা।


পূর্বপশ্চিমবিডি/ওআর

পুলিশ,রেশন,আজীবন,বাংলাদেশ পুলিশ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close