• রোববার, ১২ জুলাই ২০২০, ২৮ আষাঢ় ১৪২৭
  • ||

নতুন আইন বলবৎ হলেও পুরোনো আইনই কার্যকর

প্রকাশ:  ০১ নভেম্বর ২০১৯, ১৬:৩১ | আপডেট : ০১ নভেম্বর ২০১৯, ১৬:৩৯
নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীসহ সারাদেশে ১ নভেম্বর (শুক্রবার) থেকে কার্যকর হলো আলোচিত ‘সড়ক পরিহন আইন ২০১৮’। নতুন আইনে হেলমেট ছাড়া বাইক চালালে ১০ হাজার টাকা ও ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকলে ২৫ হাজার টাকাসহ বিভিন্ন অপরাধের কঠোর শাস্তি ও জরিমানার বিধান রয়েছে। তবে নতুন আইন কার্যকর হলেও এখনই প্রয়োগ করা হচ্ছে না। প্রয়োগ হচ্ছে পুরাতন আইন।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) ও পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ বলছে, নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকর হলেও পুরোনো আইনই প্রয়োগ করা হবে। তবে পর্যায়ক্রমে সহনীয় মাত্রায় নতুন আইনটি প্রয়োগ করা শুরু হবে। তার আগে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যদের নতুন আইনটি সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা দেওয়াসহ পথচারী, চালক ও হেলপারদের মোটিভেশন করা হবে।

শুক্রবার রাজধানীর মতিঝিল, কারওয়ান বাজার, শাহবাগসহ বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে দেখা গেছে রাস্তায় যানবাহন চলাচল আগের মতোই রয়েছে। তবে ছুটির দিন হওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই অন্যান্য দিনের তুলনায় সড়কে যানবাহনের চাপ কম।

বিজয় সরণি এলাকায় দ্বায়িত্বরত ট্রাফিক সার্জেন্ট মো. শফিউল্লাহ বলেন, আমরা নতুন আইনটি প্রয়োগের আগে এ সম্পর্কে পরিবহন শ্রমিক বা চালকদের ধারণা দিচ্ছি। নতুন আইনের কোন ধারায় কী শাস্তি বা জরিমানা তা তুলে ধরছি। যাতে আইনটি সম্পর্কে কারো নেতিবাচক ধারণা কিংবা জানতেন না এমন অজুহাত তৈরি না হয়।

তিনি বলেন, অচিরেই নতুন আইনটি প্রয়োগ করা হবে। এছাড়া আইনটি বাস্তবায়ন হলে সড়কে আগের তুলনায় গতি বাড়বে, শৃঙ্খলা ফিরে আসবে।

অ্যাপভিত্তিক মোটরসাইকেল চালক মেহেদুল ইসলাম বলেন, এ আইন প্রয়োগ হলে কোনো চালক আর গাড়ি চালাতে চাইবে না। কারণ একজন পথচারী যদি তার নিজের দোষে যানবাহনের নিচে এসে পড়ে তাহলে এর দায়ভার তো গাড়ি চালকের না। এসব ক্ষেত্রে অবশ্যই সংশোধনী জরুরি। তাছাড়া যারা গরীব চালক বা হেলপার তাদের ক্ষেত্রে তো জরিমানা কিংবা জেল উভয়টাই বেশি।

নতুন সড়ক পরিবহন আইনের সর্বোচ্চ শাস্তি পাঁচ বছরের কারাদণ্ড ও জরিমানা সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা। এছাড়া উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে দুর্ঘটনা ঘটিয়ে কাউকে হত্যা করার প্রমাণ মিললে মৃত্যুদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে।

নতুন আইন কার্যকর হলেও তা প্রয়োগ হচ্ছে কিনা জানতে চাইলে বিআরটিএ’র পরিচালক (রোড সেফটি) শেখ মো. মাহবুব-ই-রববানী বলেন, আমরা শুরুতেই একেবারে নতুন আইনটি চাপিয়ে দিচ্ছি না। কারণ পুরোনো আইনের সঙ্গে নতুন আইনের অনেক পার্থক্য রয়েছে। হঠাৎ করে নতুন আইন চাপিয়ে দিয়ে এমন কোনো পরিস্থিতির সৃষ্টি করা হবে না যাতে গাড়ি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তবে পর্যায়ক্রমে নতুন আইনটি সহনীয় মাত্রায় প্রয়োগ করা হবে। এছাড়া আপাতত পুরোনো আইনেই কাজ চলবে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এস.খান

সড়ক পরিবহন আইন
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close