• বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬
  • ||

আবরার হত্যার বিচার চেয়ে পলাশীতে সড়ক অবরোধ

প্রকাশ:  ০৯ অক্টোবর ২০১৯, ১৫:৩৭ | আপডেট : ০৯ অক্টোবর ২০১৯, ১৫:৪৫
নিজস্ব প্রতিবেদক

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের গণপিটুনিতে নিহত বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদের হত্যার বিচার চেয়ে পলাশীর মোড়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থীরা। আবরার হত্যার বিচারসহ ১০ দফা দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তারা।

বুধবার (৯ অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে বকশিবাজার থেকে পলাশী মোড় পর্যন্ত সড়কের দুই পাশে বেরিকেড দিয়ে সড়ক অবরোধ করেন বুয়েটের শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, বুয়েটের ভিসি অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলামকে দুপুর ২টার মধ্যে ক্যাম্পাসে হাজির হয়ে আবরার হত্যায় প্রশাসনিক ব্যর্থতার জবাব দিতে হবে। তিনি কেন আবরারের জানাজায় উপস্থিত ছিলেন না সেটিও জানাতে হবে। পাশাপাশি ১০ দফা দাবি পূরণ করতে হবে। তা না-হলে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তারা।

এ সময় ভিসি বিরোধী ও আবরার হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের ফাঁসির দাবিতে স্লোগান দিচ্ছেন শিক্ষার্থীরা।

তারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে রাজনৈতিক কার্যক্রমের জন্য অস্বস্তিতে থাকেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। তাই এ কার্যক্রম নিষিদ্ধ করা হোক। নয়তো বড় আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেন তারা।

এর আগে সকালে থেকে বুয়েটের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে এসে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা। সেখানে এক সংবাদ সম্মেলন থেকে তুলে ধরা হয়েছে নতুন ১০ দফা দাবি।

১১ অক্টোবরের মধ্যে শেরে বাংলা হলের প্রভোস্টকে প্রত্যাহার, আবরারের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি, জড়িতদের বুয়েট থেকে আজীবন বহিষ্কারের পুরনো দাবির সঙ্গে অবিলম্বে আবরার হত্যা মামলার চার্জশিট প্রকাশ এবং ১৫ অক্টোবরের মধ্যে বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করার দাবি জানান তারা।

সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষে তিন জন এসব দাবি সাংবাদিকদের সামনে পড়ে শোনান। তাদের একজন প্রতিনিধি বলেন, বেঁধে দেয়া সময়ে দাবি পূরণ না করা হলে ১৪ অক্টোবর অনুষ্ঠেয় বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষাসহ সব অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম স্থগিত রাখতে হবে।

প্রসঙ্গত, ভারতের সঙ্গে চুক্তির বিরোধিতা করে শনিবার বিকালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন ফাহাদ। এর জের ধরে রোববার রাতে শেরেবাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে ডেকে নিয়ে তাকে পিটিয়ে হত্যা করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। পরে তার লাশ সিঁড়িতে ফেলে রাখা হয়। এ ঘটনায় আবরারের বাবা ১৯ জনকে আসামি করে একটি মামলা করেন। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের ১১ জনকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করে কেন্দ্রীয় কমিটি।

পূর্বপশ্চিমবিডি/জিএম

বুয়েট ছাত্র,আবরার ফাহাদ,হত্যার বিচার,পলাশীর মোড়,সড়ক অবরোধ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close