• বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
  • ||

বঙ্গবন্ধুর ভাষণ বিকৃতি

জাতির কাছে ক্ষমা চাইলেন এ কে খন্দকার

প্রকাশ:  ০১ জুন ২০১৯, ১৩:২৮ | আপডেট : ০১ জুন ২০১৯, ১৫:২০
নিজস্ব প্রতিবেদক

মুক্তিযুদ্ধের উপ- সর্বাধিনায়ক ও সাবেক মন্ত্রী এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) এ কে খন্দকার (বীরউত্তম) ‘১৯৭১ : ভেতরে বাইরে’ বইয়ে ভুল তথ্যের জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও জাতির কাছে ক্ষমা চেয়েছেন তিনি।।বইটির এক জায়গায় তিনি উল্লেখ করেছেন- বঙ্গবন্ধু ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণের শেষে ‘জয় পাকিস্তান’ বলেছিলেন।

শনিবার (১ জুন) রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে বইয়ের বিতর্কিত অংশটি প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন। সেই সঙ্গে বইয়ে উল্লিখিত অসত্য তথ্যের জন্য তিনি ক্ষমা চান।

এ কে খন্দকারের ‘১৯৭১: ভেতর বাইরে’ বইটি ২০১৪ সালের আগস্টে প্রথমা প্রকাশনী থেকে বের হয়। ওই বইয়ের ৩২ পৃষ্ঠায় এ কে খন্দকার উল্লেখ করেন, ৭ মার্চ ভাষণের শেষে শেখ মুজিবুর রহমান ‘জয় পাকিস্তান’ বলেছিলেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে ওই তথ্যের জন্য এ কে খন্দকারের বইটি সমালোচনার মুখে পড়ে। ওই সময় বইটি নিষিদ্ধ করারও দাবি ওঠে। বইটিতে উদ্দেশ্যমূলকভাবে ইতিহাস বিকৃতি করা হয়েছে বলেও অভিযোগ ওঠে।

এ কে খন্দকার অনুতাপ প্রকাশ করে বলেন, এই অংশটুকুর জন্য দেশপ্রেমিক অনেকেই কষ্ট পেয়েছেন বলে আমি বিশ্বাস করি। এই তথ্যটুকু যেভাবেই আমার বইয়ে আসুক না কেন এ অসত্য তথ্যের দায়ভার আমার। বঙ্গবন্ধু তার ৭ মার্চের ভাষণে কখনোই ‘জয় পাকিস্তান’ শব্দটি বলেননি। তাই আমি আমার বইয়ের ৩২ নম্বর পৃষ্ঠার উল্লেখিত বিশেষ অংশযুক্ত পুরো অনুচ্ছেদটুকু প্রত্যাহার করে নিচ্ছি। একইসঙ্গ আমি জাতির কাছে ও বঙ্গবন্ধুর বিদেহি আত্মার কাছে ক্ষমা চাইছি।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে প্রকাশিত এই বইটি ব্যাপক আলোচনার জন্ম দেয়। বইটির একটি অংশে এ কে খন্দকার লিখেন যে, ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ রেসকোর্স ময়দানের ঐতিহাসিক সমাবেশে নিজের ভাষণ শেষ করে ‘জয় পাকিস্তান’ বলে স্লোগান দেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। সেসময় বইটি নিষিদ্ধ করারও দাবি ওঠে। আওয়ামী লীগ সরকারের সাবেক এই পরিকল্পনামন্ত্রীর বিচারও দাবি করেন অনেকেই।

পিপিবিডি/জিএম

সাবেক মন্ত্রী,এয়ার ভাইস মার্শাল,এ কে খন্দকার,বীরউত্তম,রিপোর্টার্স ইউনিটি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত