• শনিবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৯, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
  • ||

সম্পূর্ণ ইভিএমে আগামী বছরই তিন সিটিতে ভোট

প্রকাশ:  ৩০ মে ২০১৯, ০১:৪৮ | আপডেট : ৩০ মে ২০১৯, ০১:৫৫
নিজস্ব প্রতিবেদক

আগামী বছরই ঢাকার উত্তর-দক্ষিণ ও চট্রগ্রাম সিটি করপোরেশনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। নির্বাচনে তিন সিটির সবগুলো কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

২০১৮ সালের এপ্রিলের শেষ দিকে নির্বাচনের ভোটগ্রহণ করতে মার্চের প্রথম সপ্তাহে তফসিল ঘোষণা করবে ইসি। এ জন্য প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি রাখছে সাংবিধানিক এই সংস্থাটি। এর আগে ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল তিন সিটিতে একই দিনে ভোট হয়।

গত ৫ মে অনুষ্ঠিত ময়মনসিংহ সিটিরও সব কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় আগামী বছর তিন সিটি ও পৌরসভার ভোট ইভিএমে গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।

ইসির একজন যুগ্ম সচিব বলেছেন, আগামী বছর এপ্রিলের দিকে ঢাকার দুই সিটি ও চট্টগ্রাম সিটিতে ভোট করার চিন্তা করছে ইসি। এ ক্ষেত্রে ১ মার্চ ভোটার দিবস রয়েছে। তাই ভোটার দিবসের পরপর মার্চের প্রথম সপ্তাহে তফসিল প্রদানের জন্য ইসির কাছে প্রস্তাব দেওয়া হবে।

ইসির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল ঢাকা উত্তরে ভোট হওয়ার পর ১৪ মে প্রথম সভা হয়েছিল উত্তর সিটিতে। সে হিসাবে উপনির্বাচনে নির্বাচিত মেয়র ২০২০ সালের ১৩ মে পর্যন্ত দায়িত্ব পালনের সুযোগ পাবেন। আর দক্ষিণ সিটিতে প্রথম সভা হয় ১৭ মে। অর্থাৎ এ সিটির মেয়াদ শেষ হবে ২০২০ সালের ১৬ মে। এ ছাড়া প্রায় কাছাকাছি সময়ে চট্টগ্রাম সিটির মেয়াদও শেষ হবে।

২০১৭ সালে বর্তমান ইসির নিজেদের তৈরি নতুন ইভিএম যাত্রা শুরু করে। অধিকাংশ রাজনৈতিক দলের বিরোধিতার মুখে সংসদে ইভিএম চালুও করা হয়। সিটি ভোটে কিছু কেন্দ্রে চালুর পর সংসদে ছয়টি আসনে ইভিএম ব্যবহার করে সমালোচনার মুখেও পড়ে সংস্থাটি। ইতিমধ্যে প্রায় চার হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে দেড় লাখ ইভিএমের জন্য একটি প্রকল্পও (বাস্তবায়নকাল- শুরু জুলাই ২০১৮ থেকে সমাপ্তি জুন ২০২৩) রয়েছে।

পিপিবিডি/এস.খান

সিটি নির্বাচন,ইভিএম
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত