Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • রোববার, ১৬ জুন ২০১৯, ২ আষাঢ় ১৪২৬
  • ||

সরকারের প্রচেষ্টায় গড় আয়ু বেড়েছে: ডিএমপি কমিশনার

প্রকাশ:  ২৮ মে ২০১৯, ১৩:১০ | আপডেট : ২৮ মে ২০১৯, ১৩:৫৩
নিজস্ব সংবাদদাতা
প্রিন্ট icon

সরকারের নানা উন্নয়ন তুলে ধরে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, এই সরকারের প্রচেষ্টায় মানুষের গড় আয়ুও বেড়েছে।

মঙ্গলবার (২৮ মে) রাজধানীর সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালে আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ঘরমুখো মানুষের যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে বাস মালিক ও শ্রমিক নেতৃবৃন্দের সাথে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মত বিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, বাংলাদেশের সবচেয়ে বৃহৎ উৎসব ঈদুল ফিতর। এই উৎসবে মানুষকে নির্বিঘ্নে ঘরে ফেরার জন্য প্রশাসনের পাশাপাশি শ্রমিক ড্রাইভার মালিক জনগণকেও সহযোগিতা করতে হবে। যাতে যাত্রীরা ঈদের ছুটিতে বাড়ি গিয়ে, ঈদের পরে আবার নির্বিঘ্নে ঢাকায় ফিরতে পারে।

ঢাকা শহরে ধারণ ক্ষমতার চেয়ে বেশি পরিবহন চলাচল করে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাস টার্মিনালে যে হলুদ দাগ থাকবে তার ভিতর থেকে যাত্রীকে গাড়িতে উঠাতে হবে। হলুদ দাগ পার হয়ে রাস্তায় গাড়ি দাঁড়াতে পারবে না। হলুদ দাগ পার হলেই গাড়িকে টার্মিনাল ত্যাগ করতে হবে। আর না হয় যানজটের সৃষ্টি হবে। মানুষ নির্বিঘ্নে গ্রামে ফিরতে পারবে না। সেজন্য শ্রমিক ও বাস মালিকদের সহযোগিতা কামনা করেন পুলিশ কমিশনার।

অতিরিক্ত ভাড়ার ব্যাপারে আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, বিআরটিএ নির্ধারিত ভাড়া ব্যতীত অতিরিক্ত ভাড়ার অভিযোগ থাকলে বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা মানুষকে হয়রানি করবেন না। সারা বছরই তো লাভ করেন। ঈদের সময় না হয় একটু কম লাভ করে মানুষকে সেবা প্রদান করেন।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, পরিবহন শ্রমিকরা যাত্রীদের ব্যাগ টানাটানি করে। গাড়িতে উঠানোর চেষ্টা করে। যাত্রীদের টানাটানি করা যাবে না। যাত্রীদের সাথে সুন্দর ব্যবহার করতে হবে। যাতে যাত্রীরা ব্যবহারে সন্তুষ্ট থাকে।

তিনি বলেন, বৈধ লাইসেন্স ছাড়া টার্মিনাল থেকে গাড়ি ছেড়ে যাবে না। যদি গাড়ি ছেড়ে দেয় তাহলে নিষ্পাপ মানুষ এক্সিডেন্টের কারণে মারা যাবে। আমাদের ভাই বোন না হোক তারা কারও না কারও ভাই বোন। সেদিকে আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে। টার্মিনাল থেকে লাইসেন্স চেক করে তারপরে গাড়ি ছাড়তে হবে।

বাস মালিকদের উদ্দেশ্যে আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, আপনারা বৈধ লাইসেন্স ছাড়া কোন ড্রাইভারকে গাড়ি দেবেন না।

এসময় দুর্ঘটনা রোধে চালকদের গাড়ি চলাকালে মোবাইলে কথা না বলতে অনুরোধ করেন তিনি।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, পথচারীরা মোবাইলে কথা বলতে বলতে রাস্তা পার হয়। যদি অ্যাক্সিডেন্ট হয় তাহলে ড্রাইভারদের কি দোষ দিবো। যাত্রীরাদেরও সতর্ক হয়ে ফুটওভার ব্রিজ ব্যবহার করে রাস্তা পারাপার হতে হবে। ট্রাফিক আইন মেনে রাস্তা পারাপার হয়ে ট্রাফিক পুলিশকে সহযোগিতা করার জন্য তিনি আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, যারা ফুটওভার ব্রিজ ব্যবহার করবেন না ট্রাফিক আইন অমান্য করবে তাদেরকে আমরা দুই ঘণ্টার জন্য আটকে রেখে ট্রাফিক আইন সম্পর্কে সচেতন করবো।

তিনি আরও বলেন, যাত্রী শ্রমিক ড্রাইভার বাস মালিক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সহযোগিতার মাধ্যমে সকলের সমন্বয় করে না চললে ঢাকা বসবাসের অযোগ্য হয়ে যাবে।

বাস টার্মিনাল এলাকা ঘিরে মাদক ব্যবসার বিষয়ে ব্যাপারে পুলিশ কমিশনার বলেন, যারা মাদক ব্যবসা করে তাদের বিরুদ্ধে আমাদের যুদ্ধ। যত বড় শক্তিশালীই হোক তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। টার্মিনাল আশেপাশে মাদকের আড্ডা পেলে সেটাকে মাটির সাথে মিশিয়ে দিতে হবে। ড্রাইভাররা মাদক সেবন করে গাড়ি চালালে গাড়ি এক্সিডেন্ট হবে। মাদকাসক্তদের কে গাড়ি না দেওয়ার জন্য মালিক সমিতির কাছে আহ্বান করেন তিনি।


পিপিবিডি/আরএইচ/এসএম

আছাদুজ্জামান মিয়া
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত