• মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯
  • ||

আট বছরে পূর্বপশ্চিম

প্রকাশ:  ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:২১
পূর্বপশ্চিম পরিবার

আজ ১ ডিসেম্বর, তরুণ প্রজন্মের নিউজপোর্টাল পূর্বপশ্চিমবিডি ডট নিউজ সাত বছর পার করে আট বছরে পদার্পন করলো। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে হৃদয়ে রেখে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করে দেশে ও বিদেশের কোটি পাঠকের আস্থা ও নির্ভরতার প্রতীক হয়ে উঠেছে পূর্বপশ্চিম।

২০১৫ সালের এই দিনে প্রয়াত দেশবরেণ্য সাংবাদিক পীর হাবিবুর রহমান প্রতিষ্ঠিত পূর্বপশ্চিমবিডি নিউজ আত্মপ্রকাশ করেছিলো। যাত্রা শুরুর সেই শুভক্ষণে রাজধানীতে এক জমকালো অনুষ্ঠানে মিলিত হয়েছিলেন বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের জ্ঞানী-গুণীজন। পূর্বপশ্চিমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান আলোকিত করেন প্রয়াত কিংবদন্তি অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ও বাংলা সাহিত্যের উজ্জ্বল নক্ষত্র শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়।

অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া সুধীজনদের প্রত্যাশা ছিলো, নিউজপোর্টালটিতে প্রতিফলিত হবে গণমানুষের প্রাণের ধ্বণি। পথচলার শুরু থেকেই পূর্বপশ্চিম সেই প্রত্যাশা পূরণে সচেষ্ট ছিলো।

সমসাময়িক ঘটনা ও সমকালীন সংবাদ পরিবেশনের পাশাপাশি বিশ্লেষণধর্মী লেখা প্রকাশে গুরুত্ব দিয়ে আসছে পূর্বপশ্চিম। দেশের রাজনীতির গতিপ্রবাহ নিয়ে প্রকাশিত সংবাদ নিউজপোর্টালটিকে জনপ্রিয় করে তুলতে সহায়তা করেছে। পূর্বপশ্চিম তুলে ধরার চেষ্টা করেছে বঞ্চিত মানুষের অভাব-অভিযোগ, প্রকাশ করেছে চলতি জীবনের নানা অসংগতি।

দেশের আনাচে-কানাচে নানা অন্যায় অবিচার আর অসৎ কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে বরাবরই ছিলো সোচ্চার। শিল্প-সাহিত্য-সংস্কৃতির সংবাদে পূর্বপশ্চিম আনতে চেয়েছে নতুনত্ব। বিশ্ব-বিনোদন-খেলা, প্রতিটি সেক্টরে সময়ের সংবাদ সময়ে পরিবেশনে পূর্বপশ্চিম সচেষ্ট ছিলো।

বিগত সাত বছরে পোর্টালটি পাঠকের প্রত্যাশা কতোটা পূরণ করতে পেরেছে সেটি বিচারের ভার এর লাখো কোটি পাঠকের ওপর। তবে এটুকু বলা যায়, ইতোমধ্যে লাখো কোটি পাঠকদের অন্তরে স্থান করে নিয়েছে এই পূর্বপশ্চিম। সময়ের দিকে খেয়াল রেখে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনই এর একমাত্র কারণ।

আটবছরে পদার্পনের এই মাহেন্দ্রক্ষণে পূর্বপশ্চিম শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতায় স্মরণ করে প্রতিষ্ঠাতা ও প্রতিষ্ঠাকালীন প্রধান সম্পাদক পীর হাবিবুর রহমানের অবদান। যার দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন ও কষ্টার্জিত অর্থের ফসল আজকের এই পূর্বপশ্চিম। নিউজপোর্টালটির প্রতিটি সংবাদকর্মীই প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে বরেণ্য এই সাংবাদিকের কাছ থেকে শিখেছে সংবাদ পরিবেশনার অ আ ক খ।

গত বছরের অক্টোবরে ভারতের মুম্বাইয়ের জাসলুক হাসপাতালে বোনম্যারো ট্রান্সপ্লান্টেশনের মাধ্যমে ক্যানসার মুক্ত হন পীর হাবিবুর রহমান। কিন্তু গত ২২ জানুয়ারি তিনি করোনায় আক্রান্ত হন। এরপর বিশিষ্ট চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এবিএম আব্দুল্লাহর পরামর্শে তিনি ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি হন। করোনামুক্ত হলেও কিডনি জটিলতার কারণে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৪ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় স্ট্রোক করলে তাকে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালের আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। আর সেখানেই গত ৫ ফেব্রুয়ারি বিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। তবে তার দেওয়া নানা পরামর্শ ও উপদেশনার মাধ্যমে পীর হাবিবুর রহমান পূর্বপশ্চিমের সঙ্গেই আছেন বলে মনে করে প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা।

গত সাত বছরে পূর্বপশ্চিমে কাজ করেছেন শতাধিক সংবাদকর্মী। যাদের সিংহভাগই এখন আর পোর্টালটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট নেই, জীবনের নিয়মেই তারা ছড়িয়ে পড়েছেন নানা সংবাদমাধ্যমে। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর এই শুভলগ্নে তাদের অবদানের কথা স্মরণ করছে পূর্বপশ্চিম। প্রতিটি কর্মীর মেধা-শ্রম ও ঘামে আজকের গৌরবজনক পর্যায়ে পৌঁছেছে এই নিউজপোর্টালটি। বর্ষপূর্তিতে পূর্বপশ্চিম কৃতজ্ঞতা জানায় জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি, বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি, বিজ্ঞাপনদাতা ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি।

সবশেষে অশেষ কৃতজ্ঞতা প্রিয় পাঠকদের কাছে। বিগত দিনে তারা সঙ্গে ছিলেন, আগামী দিনেও সঙ্গে থাকবেন - এই বিশ্বাসই তরুণ প্রজন্মের নিউজপোর্টাল পূর্বপশ্চিমের পথচলার মূল প্রেরণা।

পূর্বপশ্চিমবিডি/ এসএম

পূর্বপশ্চিম,নিউজপোর্টাল
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close