• বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ১ বৈশাখ ১৪২৮
  • ||

জনকণ্ঠ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

প্রকাশ:  ১৬ মার্চ ২০২১, ১৮:৩১
নিজস্ব প্রতিবেদক

অন্যায়ভাবে চাকরিচ্যুত হওয়া জনকণ্ঠের সাংবাদিক-কর্মচারীরা চাকরি ফিরে পেতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন জনকণ্ঠের সিনিয়র রিপোর্টার রাজন ভট্টাচার্য। মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করে তিনি এ পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ জানান।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, দৈনিক জনকণ্ঠে গণছাঁটাই শুরু হয়েছে। আমরা বেশ কিছু দিন ধরে শুনে আসছিলাম কর্তৃপক্ষ সাংবাদিক কর্মচারীদের ছাঁটাই করতে চান। সোমবার (১৫ মার্চ) তার প্রথম দফা বাস্তবায়ন হয়েছে। প্রথম দিন ৬০ জনের ছাঁটাইয়ের তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছিলো। এরমধ্যে ২৬ জনকে টার্মিনেশন লেটার ইমেল করা হয়েছে। পরে বিকেলে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতৃত্বে দৈনিক জনকণ্ঠের সামনে সমাবেশ করে এই ঘটনার প্রতিবাদ করলে কর্তৃপক্ষ বাকিদের আর টার্মিনেশন লেটার দিতে সাহস করেননি।

প্রধানমন্ত্রীকে পদক্ষেপ নেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে রাজন ভট্টাচার্য বলেন, করোনা মহামারির মধ্যে একসঙ্গে এতো মানুষের কর্মসংস্থান আসলে সম্ভব নয়। আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলতে চাই, আপনি সহায়তা না করলে আমাদের পক্ষে আর কিছু করা সম্ভবও নয়। তাই বিষয়টি অনুধাবন করে একটি ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, গত আট বছর ধরে দৈনিক জনকণ্ঠে কোনো পদোন্নতি, ইনক্রিমেন্ট হয় না। এখানে অধিকাংশ সাংবাদিক-কর্মচারী ওয়েজবোর্ড পান না। আট বছর ধরে একই বেতনে কাজ করতে গিয়ে আমাদের সংসার আসলে চলে না। আট বছর আমরা অপেক্ষা করেছি। এখন সকলের দাবির প্রেক্ষিতে সম্পূর্ণ নিয়ম তান্ত্রিকভাবে ট্রেড ইউনিয়ন আইনের মধ্যে থেকে আমরা সকলের ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়ন, পদোন্নতি ও ইনক্রিমেন্টের দাবি করেছিলাম। কিন্তু পরিতাপের বিষয় হচ্ছে দাবি মানা তো দূরের কথা উল্টো আমাদের ছাঁটাই করে দেওয়া হলো। যখন আমরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শত বছরের জন্মদিন পালন ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করতে যাচ্ছি ঠিক সেই মুহূর্তে আমাদের পেটে লাথি মারা হলো।

জনকণ্ঠের এই সিনিয়র সাংবাদিক বলেন, সোমবার আমরাও সরকারের নানা মহলে যোগাযোগ করেছি। রাত ১২টায় আমরা ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ এবং সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপুর নেতৃত্বে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে প্রায় দেড় ঘণ্টা বৈঠক করেছি। সেখান থেকে মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে একাধিকবার টেলিফোনে কথা বলেছেন। আমাদের বলা হয়েছে আগামী ২০ তারিখে সরকার, মালিকপক্ষ এবং সাংবাদিক ইউনিয়ন ত্রিপক্ষীয় বৈঠক করে এ বিষয়ে একটি সমাধানে পৌঁছানোর চেষ্টা করবেন। আমরা মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং মাননীয় তথ্যমন্ত্রীর আশ্বাসের প্রেক্ষিতে ২০ তারিখ পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত করেছি।

পূর্বপশ্চিমবিডি/অ-ভি

হস্তক্ষেপ,প্রধানমন্ত্রী,জনকণ্ঠ,শেখ হাসিনা
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
cdbl
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close