• শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
  • ||

আনন্দবাজারের খবরে নুসরাত হত্যা নিয়ে ‘ভয়ঙ্কর মিথ্যাচার’

প্রকাশ:  ২৭ অক্টোবর ২০১৯, ১৫:২৫
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক

বহুল আলোচিত ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যাকাণ্ডে ১৯ আসামির সকলেও ফাঁসির খবর দেশীয় পত্র-পত্রিকাসহ বিদেশি গণমাধ্যম বিবিসি, রয়টার্স, এএফপি, আলজাজিরাতে জায়গা করে নিয়েছিল। সংবাদটি প্রকাশ করেছিল কলকাতার আনন্দবাজার পত্রিকাও। তবে প্রভাশালী ওই পত্রিকার প্রকাশিত সংবাদে নুসরাত হত্যাকাণ্ড নিয়ে ভয়ঙ্কর রকমের ভুল তথ্য দেওয়া হয়েছে।

গত শুক্রবার (২৫ অক্টোবর) নুসরাত হত্যা মামলার রায় নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে আনন্দবাজার পত্রিকা। যেখানে নুসরাতকে ধর্ষিতা হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে মামলার এজাহার অনুযায়ী নুসরাত ছিলো অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলার যৌন হয়রানির শিকার।

এছাড়া আনন্দবাজারের সংবাদে নুসরাত জাহান রাফির নাম বিকৃত করে লেখা হয়েছে ‌‘নুসরত জহান রফি’।

আনন্দ বাজারের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘ফেনির একটি মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক সিরাজদ্দৌলার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তুলে না নেয়ায় নুসরত নামে ১৯ বছরের ওই ছাত্রীর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় দুষ্কৃতীরা।’ পুলিশের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে আরও উল্লেখ করা হয়, ‘গত ২৭ মার্চ ওই শিক্ষক নিজের ঘরে নিয়ে গিয়ে নুসরতকে ধর্ষণ করে। নুসরতের মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়।’

এদিকে আনন্দবাজারে এ ধরনের জঘন্য মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। অনেকেই বলছেন, একটি পত্রিকা যৌন হয়রানির ঘটনাকে কীভাবে ধর্ষণ বলে চালিয়ে দিতে পারে। কোনো দায়িত্বশীল গণমাধ্যম এ ধরনের জঘন্য কাজ করতে পারে না।

শহিদুল ইসলাম শ্যামল নামের এক সাংবাদিক ফেসবুকে লিখেছেন, নাম বিকৃত করার ক্ষেত্রে আনন্দবাজার বিশ্বে শ্রেষ্ঠ। নুসরাতের এই নিউজটাতেও তার নাম বিকৃত করে লেখা হয়েছে এবং জঘন্য ধরনের ভুল তথ্যও দেওয়া হয়েছে। নুসরাত ধর্ষণের শিকার হয়েছিল এই তথ্য তাদের কে দিয়েছে?’

আনন্দবাজারের প্রকাশিত প্রতিবেদনটি এখানে ছাত্রী খুনে ১৬ জনের মৃত্যুদণ্ড বাংলাদেশে

পূর্বপশ্চিমবিডি/এস.খান

নুসরাত জাহান রাফি,আনন্দবাজার পত্রিকা
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত