Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০১৯, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
  • ||

আইসিডিডিআরবিতে প্রতিদিন ভর্তি হচ্ছে আটশ’ রোগী

হঠাৎ বেড়ে গেছে ডায়রিয়ার প্রকোপ

প্রকাশ:  ২৭ এপ্রিল ২০১৯, ১৯:১৮
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট icon

মধ্য বৈশাখের তাপদাহে হঠাৎ বেড়ে গেছে ডায়রিয়ার প্রকোপ। রাজধানীসহ সারাদেশেই ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছেন অনেকে। রাজধানীর মহাখালীতে আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ (আইসিডিডিআরবি) বা কলেরা হাসপাতালে রোগীদের ঠাঁই মিলছে না। ডায়রিয়ার সুচিকিৎসায় কলেরা হাসপাতাল নামে সুপরিচিত এ হাসপাতালে বর্তমানে প্রতিদিন গড়ে সাড়ে আট শ’ থেকে নয় শ’র বেশি রোগী ভর্তি হচ্ছেন।

ডায়রিয়ায় আক্রান্ত প্রতিদিন বিপুল রোগী শরণাপন্ন হচ্ছেন চিকিৎসক ও হাসপাতালের। অনেক হাসপাতালে রোগীদের উপচে পড়া ভিড়ে হচ্ছে না স্থান সংকুলান। চিকিৎসা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে হাসপাতালগুলোকে। স্থানীয় হাসপাতালগুলোতে অনেক সময় সুচিকিৎসা না পেয়ে মহাখালীর আইসিডিডিআরবিতে ছুটে আসেন ঢাকা ও এর আশপাশের মানুষ ছাড়াও সারা দেশের মানুষ।

আইসিডিডিআর’বির চীফ ফিজিশিয়ান (প্রধান চিকিৎসক) ডাঃ প্রদীপ কুমার বর্ম জানান, স্বাভাবিক সময়ে গড়ে প্রতিদিন দুই থেকে তিন শ’ রোগী ভর্তি হয়। তবে এখন স্বাভাবিকের চেয়ে প্রায় তিনগুণ বেশি রোগী ভর্তি হচ্ছেন।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, অন্য যে কোনো হাসপাতালের চেয়ে এখানে রোগীর ভিড় সবচেয়ে বেশি। প্রতিদিন প্রায় ৮০০ নতুন রোগী ডায়রিয়াজনিত কারণে ভর্তি হচ্ছে আইসিডিডিআরবিতে। হাসপাতালের ধারণক্ষমতা ছাড়িয়েছে অনেক আগেই। এমনকি পার্কিং এলাকায় তবু খাঁটিয়ে রোগী ভর্তি করেও সব রোগীর চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করা যাচ্ছে না। অভাব দেখা দিয়েছে সিটের।

আইসিডিডিআরবি তথ্য অনুযায়ী, দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে প্রতিদিন বিপুল পরিমাণ রোগী এসে ভিড় জমাচ্ছেন এখানে। তবে বেশিরভাগ রোগীই ঢাকার জুরাইন, মোহম্মদপুর, যাত্রাবাড়ী, গুলিস্থান, টঙ্গী ও মিরপুরের। বুধ, বৃহস্পতি, শুক্র এ তিনদিনে ভর্তি রোগীর সংখ্যা প্রায় তিন হাজার। এর মাঝে অর্ধেকের বেশি রোগী প্রাপ্তবয়স্ক আর বাকি অংশ শিশু।

হঠাৎ ডায়রিয়ার প্রকোপ বেড়ে যাওয়া প্রসঙ্গে ডা. প্রদীপ কুমার বর্মন বলেন, ডায়রিয়া পানিবাহিত রোগ। পানি ও খাবার গ্রহণের মাধ্যমে ডায়রিয়া ছড়ায়। গত কয়েকদিন অতিরিক্ত গরমের কারণে পানির চাহিদা বাড়ছে। অনেকেই পিপাসা মেটাতে রাস্তাঘাটে বরফ মেশানা আখ ও লেবুর রসের বিভিন্ন ধরনের শরবত পান করেন। এগুলো থেকে ডায়রিয়া আক্রান্ত হতে পারে। এছাড়া গরমে খাবার দ্রুত নষ্ট হয়। অনেক সময় বেখেয়ালে পচা খাবার খাওয়ায় ডায়রিয়া হয়। ডায়রিয়া থেকে বাঁচতে বিশুদ্ধ খাবার পানি ও খাবার গ্রহণ জরুরী।

ডায়রিয়া
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত