• বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
  • ||

ঢাকা মেডিকেলে করোনাভাইরাস পরীক্ষা বিনামূল্যে

প্রকাশ:  ০১ এপ্রিল ২০২০, ২০:৩৫ | আপডেট : ০১ এপ্রিল ২০২০, ২১:২৪
নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে তিন থেকে চার ঘণ্টায় করোনাভাইরাস শনাক্তের পরীক্ষা করা যাবে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে করোনাভাইরাস শনাক্তে পরীক্ষার কার্যক্রম শুরু হবে। করোনাভাইরাসের লক্ষণ নিয়ে আসা যেকোনো রোগী সরাসরি হাসপাতালে হাজির হয়ে বিনামূল্যে এই পরীক্ষা করাতে পারবেন।

বুধবার (১ এপ্রিল) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে দুজনের নমুনা সংগ্রহ করেছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ভাইরোলোজি বিভাগ। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘করোনাভাইরাস শনাক্তের পরীক্ষা করার বিষয়টি চালু করার জন্য আমরা কয়েক দিন থেকে কাজ করে আসছি। আমাদের হাসপাতালে আগে থেকে একটা পিসিআর মেশিন (করোনাভাইরাস শনাক্তকরণের জন্য অপরিহার্য যন্ত্র) ছিল। করোনাভাইরাস শনাক্তের পরীক্ষা করার জন্য আনুষঙ্গিক আরও অনেক মেডিকেল ইকুইপমেন্ট (সরঞ্জামাদি) দরকার। সেগুলো আমরা ইতিমধ্যে সংগ্রহ করেছি। আমাদের মেডিকেল কলেজের ভাইরোলোজি বিভাগের ল্যাবরেটরিতে সেই মেশিনগুলো চালুও করেছি। আমরা আজ বুধবার করোনাভাইরাস শনাক্তের জন্য নমুনা সংগ্রহ করলাম। আমাদের মেডিকেল কলেজের ভাইরোলোজি বিভাগ পূর্ণমাত্রায় প্রস্তুতি নিয়ে আজই তাদের কার্যক্রম শুরু করেছে। করোনাভাইরাস শনাক্তের পরীক্ষা কার্যক্রম পূর্ণাঙ্গভাবে আগামীকাল থেকে আমাদের হাসপাতালে চালু হবে।’

কাদের করোনা পরীক্ষা করা হবে জানতে চাইলে এ কে এম নাসির উদ্দিন জানান, ‘বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে বিভিন্ন রোগী আসে। তাদের একটা বড় অংশের না হলেও আমরা লক্ষ করছি, বেশ কিছু রোগীর বিভিন্ন রকমের লক্ষণ এসে যায়। অন্য রোগ নিয়ে এসেছে, সেগুলো আমাদের এক্সক্লুড করার দরকার হয়। সেটা করার ক্ষেত্রে এই ল্যাবরেটরি আমাদের অনেক সাহায্য করবে।’ যাঁরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ভর্তি হবেন, যাঁরা বহির্বিভাগে সেবা নিতে আসবেন কিংবা যাঁরা হাসপাতালের অন্তর্বিভাগে ভর্তি রয়েছেন, তাঁদের মধ্যে কোনো রোগীর ব্যাপারে চিকিৎসক যদি সন্দেহ করেন, তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত, তখন চিকিৎসকের সুপারিশ অনুযায়ী ভাইরোলোজি বিভাগ ওই রোগীর নমুনা সংগ্রহ করবে এবং করোনাভাইরাসের পরীক্ষা করা হবে।

হাসপাতালের এই পরিচালক আরও বলেন, ‘ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সব সময় সব ক্রান্তিকালে জনগণের সেবায় নিয়োজিত আছে। ২৪ ঘণ্টাই সেবা দেওয়া হয়। করোনাভাইরাস নিয়ে মানুষের মধ্যে ভীতি লক্ষ করছি। আমাদের রোগী কমে এসেছে। কিন্তু রোগীদের চিকিৎসা করার ক্ষেত্রে আমাদের মধ্যে কোনো দ্বিধাদ্বন্দ্ব নেই। যাঁরা ক্রনিক রোগে আক্রান্ত ছিলেন, তাঁদের অনেকে আমাদের হাসপাতাল ছেড়ে চলে গেছেন। রোগীদের আসার প্রবণতা একটু কম লক্ষ করছি। আমাদের হাসপাতালে রোগী ভর্তির কোনো সমস্যা নেই।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ভাইরোলোজি বিভাগের প্রধান সুলতানা সাহানা বানু বলেন, ‘করোনাভাইরাসের লক্ষণ নিয়ে আসা ব্যক্তি যখন আমাদের হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আসবেন, হাসপাতালের বহির্বিভাগে আসবেন কিংবা ভর্তি হয়ে গেছেন, এমন রোগীর করোনাভাইরাস শনাক্তের পরীক্ষার সুপারিশ পেলে আমরা তাঁর নমুনা সংগ্রহ করব। নমুনা সংগ্রহের পর আমরা তিন থেকে চার ঘণ্টার মধ্যে করোনাভাইরাস শনাক্তের পরীক্ষার ফলাফল জানাতে পারব।

প্রসঙ্গত, দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ছয়জন, আক্রান্ত হয়েছে ৫৪ জন। সারা বিশ্বে মারা গেছে ৪২ হাজারের বেশি মানুষ। আক্রান্ত হচ্ছে হাজারে হাজারে। তবে আক্রান্তদের মধ্যে সুুুুুস্থও হয়ে উঠছেন অনেকে। আজ বুধবার থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ও (বিএসএমএমইউ) করোনা শনাক্তের পরীক্ষা শুরু করেছে।


পূর্বপশ্চিমবিডি/ওআর

ঢাকা মেডিকেল,ঢামেক,করোনা পরীক্ষা
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close