Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬
  • ||

বুকের হাড় এবং পা না কেটেই বাংলাদেশে প্রথম হার্টের বাইপাস সার্জারি

প্রকাশ:  ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৮:৪১
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট icon
বুকের হাড় এবং পা না কেটেই বাংলাদেশে প্রথম হার্টের বাইপাস সার্জারি করলেন ডা. সিয়াম। ছবি: সংগৃহীত

জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে প্রথমবারের মত প্রচলিত ওপেন হার্ট সার্জারির পরিবর্তে বুকের হাড় না কেটেই হার্টে সফলভাবে বাইপাস সার্জারি করেছেন একদল বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক।

বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালে ডা. আশ্রাফুল হক সিয়ামের নেতৃত্বে একদল তরুণ চিকিৎসক এই প্রথম বুকের হাড় এবং পা না কেটে বাইপাস সার্জারি করতে সক্ষম হয়েছেন।

জানা যায়, ঢাকার ধামরাইয়ের আলামিন (৫০) গত ১২ সেপ্টেম্বর হার্টের দুইটি ব্লক নিয়ে জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালে সহকারী অধ্যাপক ডা: আশ্রাফুল হক সিয়ামের অধীনে সার্জারি বিভাগে ভর্তি হন।

সাধারণত বাইপাস সার্জারিতে বাইপাস করার জন্য পা কেটে শিরা নেওয়া হয় এবং তা বুক কেটে হার্টে গ্রাফট দেওয়া হয়। কিন্তু এই ক্ষেত্রে বুকের হাড় এবং পা না কেটে MICS-CABG Ges EVH পদ্ধতিতে এই কাজটি করা হয়েছে।

ডা. আশ্রাফুল হক সিয়াম বলেন, MICS-CABG Ges EVH দুইটি আলাদা আলাদা পদ্ধতি। সাধারণত বাইপাস সার্জারীতে পায়ের গোড়ালি থেকে থাই পর্যন্ত পা কেটে শিরা নিয়ে বাইপাস করা হয়। কিন্তু EVH এর মাধ্যমে পা না কেটে ছোট একটা ছিদ্র করে এন্ডোসকপির মাধ্যমে এই শিরা তুলা হয়। এটা একটি নতুন পদ্ধতি এর ফলে পায়ের কাটা ছিড়া কম হয়, ব্যথা কম থাকে, ক্ষত স্থানে দাগ থাকে না, ইনফেকশন হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে এবং রোগী দ্রুত হাঁটা চলা করতে পারে।

MICS-CABG এর মাধ্যমে বুকের হাড় না কেটে বাইপাস সার্জারি করার ফলে রোগীর হাড় জোড়া লাগার কোন ব্যাপার থাকে না, রক্তক্ষরণ কম হয়, ব্যথা কম হয়, ইনফেকশন হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে, আইসিইইউ এবং হাসপাতালে থাকার সময় কমে যায় এবং রোগী দ্রুত সুস্থ হয়ে বাড়িতে যেতে পারে এবং খরচও কমে যায়। এর আগেও MICS-CABG পদ্ধতিতে ডা: সিয়াম এই হাসপাতালে বুকের হাড় না কেটে কিন্তু পা কেটে বাইপাস সার্জারি করেছেন। তবে এবার এই বুক এবং পা দুটিই না কেটে ছোট ছিদ্রের মাধ্যমে বাইপাস করা হল।

ডা. সিয়াম বলেন, আলামিন সুস্থ আছেন, আজকে স্বাভাবিক খাওয়া-দাওয়া করেছেন, ব্যথাও কম আছে সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী শনিবার তাকে হাসপাতাল থেকে রিলিজ দেওয়া হবে। ডা. সিয়াম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ বরাদ্দের জন্য এই যন্ত্রপাতি ক্রয় করা সম্ভব হয়েছে এবং গরীব রোগীদের সেবা প্রদান করা সম্ভব হচ্ছে।

এই অপারেশন সম্পর্কে বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ডা. রামপদ সরকার বলেন, এই প্রথম বাংলাদেশে এ ধরনের অপারেশন জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসাপাতালে সরকারি ব্যবস্থাপনায় হল। এটা কার্ডিয়াক সার্জারির জন্য অত্যন্ত সুসংবাদ। এর ফলে এ দেশের রোগীদের বিদেশে যাওয়া প্রবণতা কমবে।

উল্লেখ্য, জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালে গত ২৫ আগস্ট বুকের হাড় না কেটে প্রথম ওপেন হার্ট সার্জারি করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় এবার বুকের হাড় এবং পা না কেটে বাংলাদেশে এই প্রথম বাইপাস সার্জারি করা সম্ভব হলো।


পূর্বপশ্চিমবিডি/কেএম

বাইপাস সার্জারি,বুকের হাড়
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত