• শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
  • ||

সাঈদ খোকনকে গালি দিতে পারেন, আক্রান্ত হলে কাজে আসবে না

প্রকাশ:  ০৯ জুলাই ২০১৯, ১৭:৪৯ | আপডেট : ০৯ জুলাই ২০১৯, ২১:৩৪
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক

বাড়ছে ডেঙ্গু জ্বরের প্রকোপ। এরই মধ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ৩০০ ছাড়িয়েছে। মারা গেছেন অন্তত তিনজন। তাদের মধ্যে একজন চিকিৎসক আছেন। এবার ডেঙ্গুর প্রকোপ গেল কয়েক বছরের তুলনায় বেশি। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা বলছেন, আক্রান্তের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

ডেঙ্গু সতর্কতা নিয়ে ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়েছেন নিশম সরকার নামের একজন ডাক্তার। লেখাটা পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

“জ্বর আসলে আপনিই হন, আপনার বাবা-মা, আপনার বাচ্চা হোক আর বাসার কাজের মানুষ হোক, ডেংগু পরীক্ষা করান। বাসার কাছে অনেক হসপিটাল, ফার্মেসিতে এমবিবিএস ডাক্তার বসেন। ১-২শ টাকা খরচ করেন। জীবন বাঁচান। একেকদিন ৮ ঘন্টা ডিউটি করতেছি আর এর মধ্যে ৩/৪টা করে রিপোর্ট পাচ্ছি ডেংগু পজেটিভের। ডেংগুর সেরোটাইপ চেঞ্জ হয়ে গেছে, আরও শক্তিশালী হয়ে এসেছে। সাইন-সিম্পটম চেঞ্জ হয়ে গেছে। তীব্র জ্বরের পাশাপাশি পেট ব্যথা, বমি, মাথা ব্যথা, চোখের পেছনে ব্যথা এইসব নিয়ে আসছে, আগের সেই মাড়ির থেকে রক্ত বের হওয়া, চামড়ার নিচে রক্ত জমা নিয়েই আসবে ঐ দিন শেষ। ৩-৪দিনের মধ্যে জ্বর ভালো হয়ে যাচ্ছে, আপনি খুশি।

খেলা শুরু তারপরে। মশারি ব্যবহার করুন। বাসার আশেপাশে নিজের গরজে পরিষ্কার রাখুন। সাঈদ খোকন কেনো পরিষ্কার করে দেয় না, সেইটা নিয়ে ক্ষোভ পুষে রেখে দুইটা গালি দিতে পারেন, কিন্তু আক্রান্ত হলে কাজে আসবে না। ঘরে গাছ আছে যাদের, গাছের টবে যাতে পানি না জমে, কোন জায়গাতেই পানি যাতে জমে না থাকে খেয়াল রাখুন। যট্টুক পারুন নিজে, নিজের পরিবারকে বাঁচানোর চেষ্টা করুন। যে নিজের জন্য চেষ্টা করে না, স্বয়ং স্রষ্টাও তাঁকে সাহায্য করেন না। সবার ভালো থাকা হোক।”

পূর্বপশ্চিমবিডি/ এআর

ডেঙ্গু জ্বর
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত