• সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
  • ||

বাংলাদেশ কি ৩৫ টাকা লিটারের রুশ ডিজেল কিনবে?

প্রকাশ:  ১৯ আগস্ট ২০২২, ১০:৫৪
নিজস্ব প্রতিবেদক

বিশ্ববাজারের তুলনায় বাংলাদেশকে অর্ধেকেরও কম দামে পরিশোধিত ডিজেল বিক্রির যে প্রস্তাব দিয়েছে রাশিয়া, সেটি নিয়ে পুঙ্খানুপুঙ্খ হিসাব-নিকাশ না করে সিদ্ধান্ত নিতে চাইছে না বাংলাদেশ।

রাশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত কোম্পানি রোসনেফ্ট অয়েল রাশিয়া যে প্রস্তাব দিয়েছে, তাতে ভ্যাট ও ট্যাক্স ছাড়া প্রতি লিটার পরিশোধিত ডিজেলের দর দাঁড়াবে ৩৫ টাকার সামান্য বেশি। এর সঙ্গে সব কর ও অন্যান্য খরচ যোগ হলেও তা ৫০ টাকার কিছু বেশি হয়।

বিশ্ব অর্থনৈতিক সংকটে চাপে পড়া বাংলাদেশের জন্য এই প্রস্তাব নিঃসন্দেহে লুফে নেয়ার মতো। কিন্তু বিষয়টি এত সরল নয়। ইউক্রেনে রুশ হামলার পর দেশটির ওপর যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা শক্তি যে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে, সেটিও সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে আরও ভাবতে বাধ্য করছে।

বাংলাদেশের রপ্তানির প্রধান অংশই যায় পশ্চিমে। কম দামে রুশ তেল কিনতে গিয়ে সেই রপ্তানিতে প্রভাব পড়ে কি না, সেটিই প্রধান দুশ্চিন্তা।

গত সপ্তাহে বাংলাদেশের কাছে পরিশোধিত তেল বিক্রির প্রস্তাব পাঠায় রাশিয়ার তেল উৎপাদন ও বিপণন কোম্পানিটি।

প্রস্তাবটি যাচাই করতে একটি কমিটিও গঠন করেছে সরকার। অচিরেই ঢাকায় আসছে রোসনেফ্ট প্রতিনিধি দল। ডিজেলের পাশাপাশি বাংলাদেশে অপরিশোধিত তেল পাঠানোর সম্ভাব্যতাও যাচাই করতে চাইছে আরেকটি একটি রুশ বিশেষজ্ঞ দল। তারা চট্টগ্রামের ইস্টার্ন রিফাইনারির সক্ষমতা যাচাই এবং রাশিয়ার অপরিশোধিত তেল পরিশোধনে করণীয় ঠিক করবেন।

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, ‘আমরা একাধিক প্রস্তাব পেয়েছি। এ জন্য বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনকে (বিপিসি) দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তারা প্রস্তাবগুলো যাচাই করছে।’

জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বিভিন্ন অফার পাচ্ছি এবং দামও তুলনামূলক কম। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন কোম্পানি ছাড়া আরও কিছু দেশের কাছ থেকে প্রস্তাব পাচ্ছি। এমনকি প্রাইভেট সেক্টর থেকেও প্রস্তাব আসছে। এর আগে আমরা রাশিয়ান অপরিশোধিত তেলের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলাম আমাদের পরিশোধনের সক্ষমতা না থাকায়।’

পূর্বপশ্চিম/ম

তেল
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close