• শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯
  • ||

ঈদের আগে একদিনে ২ হাজার কোটি টাকার রেমিট্যান্স

প্রকাশ:  ০৭ জুলাই ২০২২, ১৮:২৪
নিজস্ব প্রতিবেদক

ঈদের আগে রেমিট্যান্স বা প্রবাসী আয়ের পালে যেন হাওয়া লেগেছে। চলতি জুলাই মাসের প্রথম পাঁচদিনে দেশে আসা রেমিট্যান্সের পরিমাণ ৫৩ কোটি ৬০ লাখ ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ ৫ হাজার কোটি টাকারও বেশি।

অন্যদিকে গতকাল বুধবার (৬ জুলাই) এক দিনেই ২০ কোটি ৫০ লাখ ডলার পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। আন্তব্যাংক মুদ্রা বিনিময় হার হিসাবে (প্রতি ডলার ৯৩ টাকা ৪৫ পয়সা) টাকার অঙ্কে এক দিনের এই রেমিট্যান্সের পরিমাণ প্রায় দুই হাজার কোটি টাকা। বাংলাদেশের ইতিহাসে এর আগে কখনই এক দিনে এত রেমিট্যান্স দেশে আসেনি।

ফলে প্রবাসী আয়ের এই জোয়ারের কারণে বিদেশি মুদ্রার সঞ্চয়ন বা রিজার্ভ ৪০ বিলিয়ন ডলারের নিচে নামার যে আশঙ্কা করা হচ্ছিল, তা আর নামবে না বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা।

বাজারে ডলারের ব্যাপক চাহিদা থাকায় ব্যাংকগুলো আন্তব্যাংক মুদ্রাবাজারের দরের চেয়েও বেশি দামে রেমিট্যান্স দেশে আনছে। কোনো কোনো ব্যাংক ৯৫/৯৬ টাকায় প্রবাসী আয় বা রেমিট্যান্স দেশে আনছে। সদ্য সমাপ্ত ২০২১-২২ অর্থবছরে আশানুরূপ রেমিট্যান্স আসেনি দেশে। পরিমাণ ছিল ২১ হাজার কোটি ডলারের কিছু বেশি। অন্যদিকে চলতি অর্থবছরের প্রথম পাঁচদিনে দেশে আসা রেমিট্যান্সের পরিমাণ ৫৩ কোটি ৬০ লাখ ডলার।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বাংলাদেশ ব্যাংকের একজন কর্মকর্তা জানান, রেমিট্যান্স আসার যে গতি, তা খুবই ইতিবাচক। সাধারণত প্রতি ঈদের আগেই রেমিট্যান্স আসা বৃদ্ধি পায়। তবে এবারের রেমিট্যান্স আসার হার অন্যবারের চেয়েও বেশি। ঈদের এখনও দুদিন বাকি। এই দুদিনে আরও বেশি রেমিট্যান্স আসবে বলেই আশা করছি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ তথ্য থেকে জানা যায়, নতুন অর্থবছরের (২০২২-২৩) প্রথম মাস জুলাইয়ের প্রথম পাঁচ দিনে (১ থেকে ৫ জুলাই) ৫৩ কোটি ৬০ লাখ ডলার দেশে পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। সে হিসেবে প্রতিদিন এসেছে প্রায় ১০ কোটি ৭২ লাখ ডলার।

অন্যদিকে গতকাল বুধবার (৬ জুলাই) এক দিনেই ২০ কোটি ৫০ লাখ ডলার পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় দুই হাজার কোটি টাকা।

আরো জানা যায়, ডলারপ্রতি এখন পাওয়া যাচ্ছে ৯৩ টাকা ৪৫ পয়সা। ব্যাংকের ডলার সংকট কাটাতে রেমিট্যান্স আহরণে বিশেষ সুবিধার আওতায় আরো বেশি টাকা দিচ্ছে ব্যাংকগুলো। এছাড়া সরকার রেমিট্যান্সে আড়াই শতাংশ হারে নগদ প্রণোদনা দিচ্ছে, যার জন্য গ্রাহকরা ডলারপ্রতি পাচ্ছেন ৯৫-৯৬ টাকা।

বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারি শুরুর পর থেকে দেশে রেমিট্যান্স পাঠানোর প্রবণতা বাড়তে থাকে। সেই ধারা অব্যাহত রেখে দেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো রেমিট্যান্স প্রবাহ ছাড়ায় ২ হাজার ৪০০ কোটি ডলারের মাইলফলক। ২০২১ সালের মধ্যভাগ পর্যন্ত সেই ধারা বজায় থাকলেও এরপর হঠাৎ করেই কমতে থাকে রেমিট্যান্স আসা। তবে নতুন অর্থবছরের শুরুতে রেমিট্যান্স প্রবাহের উর্ধ্বমুখী ধারা আবারো আশা জাগাচ্ছে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এআই

রেমিট্যান্স,প্রবাস
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close