• বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯
  • ||

বাংলাদেশ ব্যাংকের ৪ কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসবাদ দুদকের

প্রকাশ:  ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ০০:১৮
নিজস্ব প্রতিবেদক

পি কে হালদারের ঋণ জালিয়াতি, অর্থ আত্মসাত ও পাচারসহ বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নিরীক্ষা প্রতিবেদনে (অডিট রিপোর্ট) প্রকৃত তথ্য গোপন করে ভুল তথ্য পরিবেশন করার অভিযোগে বাংলাদেশ ব্যাংকের চার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সোমবার (২৪ জানুয়ারি) রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন উপ-পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধানের নেতৃত্বে বিশেষ একটি টিম।

দুদকের মামলায় বিদেশে পলাতক পি কে হালদারের ইন্টারন্যাশনাল লিজিং, পিপলস লিজিং, ফাস ফাইন্যান্সের অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় তাদের সকাল ১০টা থেকে চার ঘণ্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। যাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে, তারা সবাই কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের কর্মকর্তা। তারা হলেন, যুগ্ম পরিচালক মোহাম্মদ ফেরদৌস কবির, এবিএম মোবারক হোসেন, উপ-পরিচালক মো. হামিদুল আলম ও সহকারী পরিচালক মো. কাদের।

দুদক সূত্র জানায়, পি কে হালদার গং বিভিন্ন অস্তিত্বহীন প্রতিষ্ঠানের নামে ইন্টারন্যাশনাল লিজিং, পিপলস লিজিং ও ফাস ফাইন্যান্স থেকে প্রায় সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করে বিদেশে পাচার করেছেন। ওই অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে এ পর্যন্ত ২২টি মামলা হয়েছে।

এসব প্রতিষ্ঠানের অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় বাংলাদেশ ব্যাংকের মনিটরিংয়ে দুর্বলতা ছিল কি-না, সে তথ্য জানতে চায় দুদক। এরপর ধরা পড়ে ওই তিনটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের নিরীক্ষা প্রতিবেদনে তথ্য গোপন করা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে সংশ্নিষ্ট কর্মকর্তাদের কোনো দুর্বলতা ছিল কি-না, তদন্তে তাও বের করে আনতে চায় দুদক। এরই ধারাবাহিকতায় ওই চার কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

দুদকের তদন্ত থেকে জানা গেছে, সোমবারের জিজ্ঞাসাবাদে চার কর্মকর্তা তাদের নিরীক্ষা প্রতিবেদনে অসত্য তথ্য পরিবেশনের কথা স্বীকার করেছেন। তারা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের নির্দেশনায় নিরীক্ষা প্রতিবেদনে ভুল তথ্য পরিবেশন করেছেন বলে জিজ্ঞাসাবাদের সময় দুদক কর্মকর্তাদের জানিয়েছেন।

পূর্বপশ্চিম- এনই

বাংলাদেশ ব্যাংক,দুদক
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close