• বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৯ আশ্বিন ১৪২৭
  • ||

আমরা ততদিনে হয়তো সেই ট্রেনটাই ফেল করবো: বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রকাশ:  ২০ মে ২০২০, ১৬:৫৫
নিজস্ব প্রতিবেদক

চীন থেকে অনেক বিদেশি বিনিয়োগ অন্যদেশে সরিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, করোনার পরবর্তী অনেক বড় বড় কোম্পানি অনেক দেশ থেকে তাদের বিনিয়োগ স্থানান্তর করবে। বিশেষ করে জাপান, কানাডা এবং আমেরিকার অনেক বিনিয়োগকারী সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন।

এ অবস্থায় বিদেশি এসব বিনিয়োগ যাতে বাংলাদেশে আনা যার তার জন্য প্রয়োজনীয় ক্ষেত্র তৈরির ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। এ জন্য আমরা হয়তো সবই করবো। কিন্তু ততদিনে হয়তো আমরা সেই ট্রেনটাই ফেল করবো।

বুধবার (২০ মে) বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে দেশের সার্বিক ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে ‘বাণিজ্য সহায়ক পরামর্শক কমিটির’ ৭ম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনলাইন বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। এসময় অনলাইনে সংযুক্ত থেকে আলোচনায় অংশ নেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন, শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান, এফবিসিসিআই’র সাবেক চেয়ারম্যান শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, এনবিআর চেয়ারম্যান, বিডা ও বেজা’র নির্বাহী পরিচালক, হাইটেক পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, বিজিএমইএ সভাপতি প্রমুখ।

সভার আলোচনা বিষয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘করোনার কারণে অনেক বড় বড় কোম্পানি অনেক দেশ থেকে তাদের বিনিয়োগ স্থানান্তর করবে। আমরা সেই সুযোগটা যদি নিতে পারি তাহলে করোনা পরিস্থিতি থেকে কিছু সুযোগও পেয়ে যাব। পাশাপাশি কর্মহীনতার ধাক্কাটাও আমাদের সামলাতে হবে। আজকে এসব বিষয়গুলো সব মন্ত্রণালয়, বিভাগ ও সংস্থার সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করলাম। আমরা বিভিন্ন আলোচনা করছি কিন্তু হয়তো মূল ট্রেনটাই আমরা ফেল করে দিব। সবকিছুই হয়তো আমরা করবো। কিন্তু দেখবো তখন ট্রেনটি হয়তো আমাদের স্টেশন ছেড়ে চলে গেছে, আমরা আর সেই ট্রেনে উঠতে পারবো না।

টিপু মুনশি বলেন, আমাদের অনেক সমস্যা রয়েছে, অনেক আলোচনা হয়েছে, ইজ অব ডুয়িং বিজনেসে সূচকে দুর্বলতার কথা বলা হয়েছে। নতুন বিদেশি বিনিয়োগকারীরা কিন্তু দেশের বাইরে বসে বসেই ইজ অব ডুয়িং বিজনেসের সূচকের পরিস্থির কথা জানতে চায়। সেখানে যদি তারা নিগেটিভ চিত্র পায় তাহলে তারা নিরুৎসাহিত হয়। এ জন্য অত্যান্ত জরুরিভিত্তিতে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

তিনি বলেন, এ মুহূর্তে দরকার বিনিয়োগের ক্ষেত্রে স্থানান্তর হওয়া কোম্পানিগুলোকে কতটা ধরতে পারি। আমাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিভিন্ন দেশের বড় বড় কোম্পানির সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলছেন। ব্যবসায়ীদেরও কথা বলতে বলেছেন। শিল্পমন্ত্রীও বলেছেন আমরা পজেটিভ রয়েছি।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা কি করছি? আমরা বলতে চাই যে, তাদের কাগজ-পত্র দেখে আমরা কাগজ তৈরি করবো। যাতে করে বিনিয়োগকারীরা চোখ ফিরিয়ে আমাদের দেশে চলে আসে। যে বাংলাদেশ ইজ বেটার, সেজন্য আমাদের কাজ করতে হবে।

অপর আলোচকরা বিদেশি বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী করে তুলতে আগে নিজেদের মানসিকতা পরিবর্তনের ওপর জোর দেন।

তারা বলেন, আমাদের দেশে বিনিয়োগের জন্য সব ধরনের সুযোগ সুবিধা রয়েছে। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন হয়েছে, বিদ্যুৎ সরবরাহ অনেক বেড়েছে। জনশক্তি সমৃদ্ধ একটি দেশে আমরা কেন বিদেশি বিনিয়োগ পাবো না।


পূর্বপশ্চিমবিডি/ওআর

বাণিজ্যমন্ত্রী,টিপু মুনশি,বিদেশি বিনিয়োগ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
cdbl
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close