• সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬
  • ||

পেঁয়াজের ঝাঁজ কমতে শুরু করেছে

প্রকাশ:  ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ১০:৪৯ | আপডেট : ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ১৪:৩৩
নিজস্ব প্রতিবেদক

পেঁয়াজের ডাবল সেঞ্চুরির পর রাজধানীর পাইকারি ও খুচরা বাজারে দাম কমতে শুরু করেছে। খুচরা বাজারে ২০ টাকা কমে, প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে, ২২০ টাকা। পাইকারি বাজারে দর এখন ২০০ টাকা।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, দেশের উত্তর ও মধ্যাঞ্চল থেকে নতুন পেঁয়াজ আসা শুরু করলে, আরও কমে আসবে দাম। পাবনাসহ বিভিন্ন স্থানে নতুন পেঁয়াজ বাজারে আসতে শুরু করেছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এখনও অতিরিক্ত দামে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ। তবে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে জানিয়েছেন, পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি সাময়িক। এখন এই পণ্যের মৌসুম শুরু হয়েছে। তাই কিছুদিনের মধ্যেই পেঁয়াজের দাম কমে যাবে।

তিনি বলেন, দেশে পেঁয়াজের উৎপাদন, আমদানি ও চাহিদা সংক্রান্ত যেসব তথ্য দেয়া হয় তা সঠিক নয়। এবার বাংলাদেশ ও ভারত উভয় দেশেই পেঁয়াজের উৎপাদন কমেছে। তাই দুই দেশেই এই পণ্যের দাম বেড়েছে। তবে এখন পেঁয়াজের মৌসুম। ইতোমধ্যে ভারতের কিছু এলাকায় দাম কমতে শুরু করছে। দ্রুতই বাংলাদেশেও পেঁয়াজের দাম স্বাভাবিক হয়ে যাবে।

পাইকাররা বলছেন, এর সুফল খুচরা দোকানেও পড়বে। সরকারের বিভিন্ন পর্যায় থেকে ঘোষণা আসার প্রভাব পড়তে শুরু করছে। এর সাথে যোগ হয়েছে, ক্রেতাদের ভোগ প্রবণতা কমে আসা।

খুচরা পর্যায়ের ব্যবসায়ীরা বলছেন, সকালে যারা মোকাম থেকে পেঁয়াজ সংগ্রহ করেছেন, তারা ২২০ টাকা দরে বিক্রি করছেন।

রামপুরার বাসিন্দা ইয়াছিন আলী জানান, পেঁয়াজের দাম কিছুটা কমলেও এই মূল্যও অতিরিক্ত বলে জানালেন তিনি। তিনি বলেন, পেঁয়াজের কেজি ৩০ টাকায় আসা উচিত। গত বছর এর চেয়েও কম মূল্যে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে। অথচ এবার মৌসুমে পেঁয়াজ ২২০ টাকা দিয়ে কিনতে হচ্ছে।


পূর্বপশ্চিমবিডি/কেএম/ এআর

পেঁয়াজ,বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত