Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬
  • ||

হল-মার্ক আবারও ব্যবসায় ফিরবে: অর্থমন্ত্রী

প্রকাশ:  ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২০:৫৪ | আপডেট : ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২০:৫৯
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট icon
ফাইল ছবি

বহুল আলোচিত সোনালী ব্যাংকের ঋণ দুর্নীতির মামলায় অভিযুক্ত ব্যবসায়ী গোষ্ঠী হল-মার্ক আবারও ব্যবসায় ফিরবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ১৫তম সভা শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান তিনি।

অর্থমন্ত্রী বলেন, হল-মার্ক টাকা দেবে। সবাই টাকা দেবে, এটা বিশ্বাস রাখেন। তারা (হল-মার্ক) আবার ব্যবসায় ফিরবে, সবাই ব্যবসায় ফিরবে। আমি নতুন করে ব্যবসায়ী সৃষ্টি করতে পারব না। যারা আছে, তাদের দিয়েই ব্যবসা করাতে হবে। ব্যবসায়ীরা কখনো শেষ হয়ে যায় না।

হল-মার্কের কারখানাগুলো অচল হয়ে গেছে—এ বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, কারখানাগুলো অচল হলেও এদের নিচে যে গোল্ড মাইন আছে, সেটা কী করবেন?

এ বিষয়ে বিশদ কিছু না বলে আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, নতুন ব্যবস্থা যখন নেওয়া হবে, তখন সব জানা যাবে।

আগামী বছরে ২০২০ সালে বাংলাদেশের মাথা পিছু আয় ভারতের সমান হবে বলেও জানান অর্থমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ভারতের পত্রিকা বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড লিখেছে ২০২০ সালের মধ্যে বাংলাদেশের মাথাপিছু আয় হবে ভারতের সমান।

অর্থমন্ত্রী বলেন, একটা দেশের অর্থনীতি কতটা শক্তিশালী তা নির্ভর করে টাকার মান উঠা-নামার ওপর। সেখানে আমরা ভালো অবস্থানে আছি। আমাদের পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ নেই, এফডিআই কম, সরকারি কোষাগারে টাকার পরিমাণও কম। এছাড়া আমরা যা রফতানি করি তা মধ্যম শ্রেণির। তবে আমরা ভারতের থেকে ভালো আছি।

মুস্তফা কামাল বলেন, গত ১০ বছরে এক মিনিটের জন্য আমাদের অর্থনীতি পিছনের দিকে যায়নি। মুল্যস্ফীতি আমাদের নিয়ন্ত্রণে আছে। আমাদের বাজেট অনেক বেশি থাকে। সব টাকা সরকারের হাত থেকে যাচ্ছে। তবে আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে আমরা কোন অবস্থানে আছি। আমরা বর্তমানে জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে সবার উপরে আছি। এটা অস্বীকার করার সুযোগ নেই। আমাদের জিডিপির আকার বেড়ে গেছে। বছরের কোনো সময়ই কমেনি।

পূর্বপশ্চিমবিডি/জিএম

সোনালী ব্যাংক,ঋণ দুর্নীতির মামলা,হল-মার্ক,অর্থমন্ত্রী,মুস্তফা কামাল
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত