• বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
  • ||

কোরবানির ঈদ

তেঁতুল গাছের খাটিয়ার কদর বেড়েছে

প্রকাশ:  ১১ আগস্ট ২০১৯, ০২:১৭
কে এম জাহেদ
রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে বিক্রির জন্য তেঁতুল গাছের খাটিয়া সাজিয়ে রেখেছে ব্যবসায়ীরা। ছবি: সংগৃহীত

ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে সর্বত্রই কদর বেড়েছে তেঁতুল গাছের তৈরি খাটিয়ার। প্রতি বছর কুরবানির ঈদকে সামনে রেখে কদর বাড়ে খাটিয়ার। ঈদের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ব্যবসায়ীরা একটু বেশ দামে তেঁতুল গাছের তৈরি এ খাটিয়া বিক্রি করছেন। তাতেও ক্রেতারা স্বাচছন্দে কিনে নিচ্ছেন।

জানা গেছে, প্রতি বছর পবিত্র ঈদুল আজহা আসলেই কদর বাড়ে খাটিয়ার। ঈদুল আজহার বাকী আর মাত্র ১ দিন। ঈদুল আজহায় পশু কোরবানি করার পরে মাংশ ছাটাই (টুকরা) করার জন্য প্রয়োজন হয় খাটিয়ার। যাতে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাংশ ভালোভাবে ছাটাই করা যায়। সব গাছ দিয়ে খাটিয়া তৈরি করা যায় না। খাটিয়া তৈরি করতে প্রয়োজন তেঁতুল গাছের। তেতুঁল গাছ ছাড়া অন্য গাছ দিয়ে খাটিয়া তৈরি করলে মাংশের সাথে গাছের গুড়ি উঠে মাংশের মান নষ্ট হয়ে যায়। তাই ঈদুল আজহা আসলেই তেঁতুল গাছের চাহিদা বেড়ে যায়।

কাঠ ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন এলাকা থেকে তেতুঁল গাছ সংগ্রহ করে স্ব-মিলে খন্ড খন্ড করে খাটিয়া তৈরি করে।

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর তেঁতুল গাছের খাটিয়া বিক্রেতারা পূর্বপশ্চিমকে জানান, ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী ছোট, মাঝারি ও বড় তিন ধরনের খাটিয়া রয়েছে। একটি ছোট খাটিয়া ৩০০ টাকা, মাঝারি ৪০০ টাকা এবং বড় ধরনের খাটিয়া ৫ থেকে ৬০০ টাকা দরে বিক্রি করা হচ্ছে। তবে তেঁতুল গাছ পাওয়া বড়ই দুস্কর বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

বাজার ঘুরে দেখা গেছে, কাঠ ব্যবসায়ীরা খাটিয়ার পসরা সাজিয়ে বসে আছে। ভালোই চলছে এবং ভালো দামে বিক্রি করছেন তারা।

শাহজাহানপুর থেকে আসা ক্রেতা জয়নাল আবেদীন বলেন, একটি তেতুঁল গাছের খাটিয়া ৩০০ টাকায় ক্রয় করেছি। দাম একটু বেশী হলেও চাহিতা মত পেয়েছি।

কাঠ ব্যবসায়ী পারভেজ হোসেন জানান, গত কয়েক বছর থেকে গ্রামাঞ্চলে তেঁতুল গাছ পাওয়া বড়ই দুস্কর হয়ে উঠেছে। যাওবা পাওয়া যায় তা চড়ামূল্যে ক্রয় করতে হচ্ছে। ফলে তেঁতুল গাছ দিয়ে তৈরি করা খাটিয়ার দামও পূর্বের চেয়ে একটু বেশি নেয়া হচ্ছে।

স-মিলের শ্রমিক মামুনুল ইসলাম বলেন, কাঠ ব্যবসায়ীরা এক সিএফটি তেঁতুল গাছ ৩০০ টাকা দরে ক্রয় করেন। ওই এক সিএফটি গাছে বড়, ছোট ও মাঝারি মিলিয়ে কমপক্ষে ৪টি খাটিয়া তৈরি করা হয়। যা কম হলেও ১ হাজার টাকা থেকে ১ হাজার ২০০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি করা যায়। এতে কাঠ ব্যবসায়ীরা ভালোই লাভবান হচ্ছেন।


পূর্বপশ্চিমবিডি/কেএম

তেঁতুল গাছ,কদর বেড়েছে,খাটিয়া,ঈদুল আজহা,কোরবানি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত