• বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
  • ||

মায়ের জন্য মার্সেল ফ্রিজ কিনে নতুন গাড়ি পেলেন টাইলস মিস্ত্রি

প্রকাশ:  ২৮ মে ২০১৯, ১৭:৫৪
নিজস্ব প্রতিবেদক

মার্সেল ফ্রিজ কিনে নতুন গাড়ি পেয়েছেন ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার বাজেদন্তা গ্রামের মোহাম্মদ চান মিয়া। পেশায় টাইলস মিস্ত্রি চান মিয়া ফ্রিজটি তার মায়ের জন্য কেনেন। এরপর মার্সেলের ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে রেজিস্ট্রেশন করলে নতুন গাড়ি পাওয়ার মেসেজ যায় তার মোবাইলে। এই গাড়ির মাধ্যমে ভাগ্য পরিবর্তনের সুযোগ পেয়ে চান মিয়া ও তার পরিবারে এখন খুশির জোয়ার।

মার্সেল সূত্রে জানা গেছে, ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে রেফ্রিজারেটর এবং ফ্রিজার ক্রেতাদের জন্য রয়েছে নতুন গাড়ি পাওয়ার সুযোগ। মার্সেলের ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-৪ এর আওতায় আরো থাকছে ফ্রিজ, টিভি, এসিসহ অসংখ্য পণ্য ফ্রি পাওয়ার সুযোগ। আছে কোটি কোটি টাকার নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার।

বিক্রয়োত্তর সেবা অনলাইনের আওতায় আনার লক্ষ্যে সারা দেশে এই ক্যাম্পেইন চালাচ্ছে মার্সেল। দেশের যেকোনো মার্সেল শোরুম থেকে ফ্রিজ কিনে মোবাইল নম্বর দিয়ে পণ্যটি রেজিস্ট্রেশন করবেন ক্রেতা। এরপর ফিরতি এসএমএস-এ ক্রেতাকে নতুন গাড়ি, ফ্রি পণ্য অথবা ক্যাশ ভাউচারের অংক জানিয়ে দেয়া হচ্ছে।

সোমবার (২৭ মে) ফুলপুরের মার্সেলের পরিবেশক শোরুম ‘খান মটরস এন্ড ইলেক্ট্রনিক্স’ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে চান মিয়ার কাছে নতুন গাড়ি হস্তান্তর করা হয়। তার হাতে গাড়ির চাবি তুলে দেন ফুলপুর উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউল করিম রাসেল, মার্সেলের ব্র্র্যান্ড আম্বাসেডর আমিন খান এবং হেড অব সেলস মো. সাখাওয়াত হোসেন।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফুলপুর থানার এসআই সুমন মিয়া, মার্সেলের ময়মনসিংহ জোনের এরিয়া ম্যানেজার মোজাম্মেল হক, ‘খান মটরস এন্ড ইলেক্ট্রনিক্স’-এর স্বত্ত্বাধিকারী আইয়ূব খান প্রমুখ।

নতুন গাড়ি পেয়ে আবেগাপ্লুত চান মিয়া জানান, তার বাবা বেঁচে নেই। স্ত্রী ও ছোট দুই ভাইকে নিয়ে ঢাকার সাভারে থাকেন। টাইলসের কাজ করে কোনোমতে চলে তার সংসার। এর মধ্যে মা বলে বসেন গ্রামে তার জন্য একটি ফ্রিজ কিনে দিতে। মায়ের আবদার পূরণে কিছু টাকা যোগাড় করে বাড়ি যান তিনি। গত ২১ মে ফুলপুরের ‘খান মটরস এন্ড ইলেক্ট্রনিক্স’ থেকে মাত্র ১৭ হাজার ৭০০ টাকা দিয়ে ৯ সিএফটির একটি মার্সেল ফ্রিজ কেনেন। সেই ফ্রিজেই তার ভাগ্যে নতুন গাড়ি মিলে যায়।

তিনি বলেন, মায়ের দোয়া ছিলো বলেই নতুন গাড়ি পেলাম। মা সবচেয়ে বেশি খুশি হয়েছেন। সবাইকে দেখানোর জন্য গাড়িটি আমি বাড়িতে নিয়ে যাবো। যাতে তারা বোঝে যে মার্সেল কথা দিয়ে কথা রাখে। তাদের পণ্য খুবই ভালো মানের। দামও সাধ্যের মধ্যে। আমি মার্সেলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। এই গাড়ি আমার জীবন পাল্টে দেবে।

ফুলপুর উপজেলা চেয়ারম্যান ক্রেতাদের জন্য এমন একটি সুযোগ রাখায় মার্সেল কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান। উল্লেখ্য, ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের আগের তিন সিজনে মার্সেল পণ্য কিনে নতুন গাড়ি, আমেরিকা ও রাশিয়া ভ্রমণের ফ্রি বিমান টিকিট ছাড়াও ক্রেতারা কোটি কোটি টাকার ক্যাশ ভাউচার, মোটরসাইকেল, ফ্রিজ, টিভি, এসিসহ বিভিন্ন পণ্য ফ্রি পেয়েছেন।

গাড়ি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে ফুলপুর শহরের ‘অ্যাম্বিশন রেসিডেনসিয়াল স্কুল’-এর শিক্ষাথীরা মার্সেল পণ্যের ওপর একটি দৃষ্টিনন্দন প্রদর্শনী উপস্থাপন করে।

মার্সেল
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত